তুরস্কে বাড়ছে নাস্তিকতা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৩ জানুয়ারি ২০১৯, রোববার

মুসলিম অধ্যুষিত দেশ তুরস্কে নাস্তিকতা বাড়ছে। আন্তর্জাতিক সংস্থা কোন্ডার গবেষণায় এমন তথ্যই উঠে এসেছে। সংস্থাটি নানা বিষয়ে জরিপ পরিচালনার জন্য বিখ্যাত। তাদের জরিপে বলা হয়েছে, গত ১০ বছরে তুরস্কে ‘অবিশ্বাসীদের’ সংখ্যা বেড়েছে। পাশাপাশি, দেশটিতে ইসলাম পালন করা বা কট্টর ইসলামপন্থি লোকের সংখ্যা ৫৫ শতাংশ থেকে ৫১ শতাংশে নেমে এসেছে। এ খবর দিয়েছে, ডয়েচে ভেলে।
৩৬ বছর বয়সী কম্পিউটার বিজ্ঞানী আহমেদ বালেইমেজ ১০ বছর ধরে নাস্তিক। তিনি বলেন, তুরস্কে ইসলাম পালন করতে বাধ্য করা হয়। আমাদের প্রশাসন আমাদের ওপর তা চাপিয়ে দিচ্ছে।
ফলে আমরা ভাবতে বাধ্য হই এই কী আসল ইসলাম? তুরস্কের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ২০১৪ সালে ঘোষণা দিয়েছিল যে, দেশটির ৯৯ শতাংশ লোক ইসলাম ধর্মের অনুসারী। কিন্তু কোন্ডার এই গবেষণা প্রকাশের পর ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এ দাবি প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে। ধর্মতত্ত্ববিদ কেমিল কেলিক বলেন, কোন্ডার জরিপ ও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের জরিপ দুটোই সঠিক। কারণ, তুরস্ক একটি মুসলিম প্রধান দেশ। তাই এই দেশে জন্মসূত্রে সবাই মুসলমান। তবে, এখানে ৯৯ শতাংশ মুসলমানের একটি অংশ শুধুমাত্র সামাজিক দায়-দায়িত্ব পালনের লক্ষ্যে ইসলাম পালন করে। তারা আত্মিকভাবে মুসলমান নয়। তুরস্কের নাস্তিকদের অন্যতম প্রধান সংগঠন অ্যাটিজম ডেরনেগির প্রধান সেলিম ওজকোহেন বলেন, বর্তমান প্রশাসন চেষ্টা করছে ধর্মপ্রাণ মুসলমান প্রজন্ম তৈরি করতে, যাদের নিজেদের প্রয়োজনে ব্যবহার করা যাবে। অথচ ভেতরে ভেতরে এই প্রজন্মের মধ্যে বিশ্বাসগত বিভাজন স্পষ্ট হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে সেলিম ২০১৬ সালের অভ্যুত্থানের প্রসঙ্গ তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ওই অভ্যুত্থানের দায় দেয়া হয়েছিল ধর্মীয় চিন্তাবিদ ফেতুল্লাহ গুলেনকে। তার অনুসারীরা প্রশাসনের সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে যুক্ত হয়। এতেই রাজনৈতিক ও ধর্মীয় বিভেদ স্পষ্ট। জনগণ নিজেদের বিশ্বাসগত এই পার্থক্য লক্ষ্য করছে। এদের মধ্যে যৌক্তিক আচরণের ব্যক্তিরা নাস্তিকতায় ঝুঁকছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বিশ্ব চিন্তাবিদদের তালিকায় শেখ হাসিনা

সমঝোতা ফেব্রুয়ারিতে ইজতেমা

ডাকসু নির্বাচন ১১ই মার্চ

বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ২৩ কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দুদকের চিঠি

এক বছরে যৌন নির্যাতনের শিকার ৮১২ শিশু

রাজধানীতে প্রকাশ্যে তরুণীকে নিয়ে টানাটানি শ্লীলতাহানির চেষ্টা

সুশাসনে অগ্রাধিকার দিচ্ছে বাংলাদেশের নতুন সরকার

নির্বাচনের অনিয়ম ও রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনা হয়েছে

লক্ষ্মীপুরে রোগী দেখতে গিয়ে লাশ হলেন সাত জন

খালেদার জামিন আবেদন নিষ্পত্তির নির্দেশ

সরকারি কেনাকাটা হবে উন্মুক্ত দরপত্রে: অর্থমন্ত্রী

ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ জন রিমান্ডে

সাংবাদিকদের জন্য ফ্ল্যাট নির্মাণের চিন্তাভাবনা করছি

লিবিয়া উপকূল থেকে বাংলাদেশিসহ ৫০০ অভিবাসনপ্রত্যাশী উদ্ধার

বিকিনিতে বাংলাদেশি উপস্থাপিকা, বিতর্ক