বদলে যাওয়া শিমু

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ১২ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার
১৯৯৯ সালে ‘এখানে আতর পাওয়া যায়’ নাটকের মাধ্যমে অভিনয়ে অভিষেক হয় জনপ্রিয় টিভি অভিনেত্রী সুমাইয়া শিমুর। সাবলীল অভিনয়গুণে প্রথম নাটকের মাধ্যমেই  টিভি দর্শকের কাছে পরিচিতি পান তিনি। এই নাটকের পর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। একক নাটকের বাইরে ধারাবাহিক নাটকেও এই অভিনেত্রী নির্মাতাদের আস্থা তৈরি করেন। ২০১০ সালে জুয়েল মাহমুদের ‘ললিতা’ ধারাবাহিকে নাম ভূমিকায় অভিনয় করে প্রশংসিত হন এই অভিনেত্রী। গত ১৪ই ডিসেম্বর এসএ টিভিতে তার অভিনীত ‘জাদুর শহরে নতুন ভোর’ শিরোনামের
একটি নাটক প্রচার হয়। এতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে তিনি অভিনয় করেছেন। বিশেষ দিবসের এই নাটকটির জন্যও বেশ সাড়া পেয়েছেন বলে জানান শিমু।
তিনি বলেন, বিষয়ভিত্তিক এ নাটকটির জন্য দর্শক আমাকে দারুণ উৎসাহিত করেছেন। সাধারণ নাটকের পাশাপাশি বিশেষ দিবসের নাটকগুলোয় বিভিন্ন ধরনের নিরীক্ষামূলক চরিত্রে এখন অভিনয় করছি। একজন অভিনেত্রী হিসেবে আমি মনে করি, এমন কিছু কাজ করা প্রয়োজন যেগুলো আমাকে দর্শকের কাছে আজীবন রাখবে। তবে এই সময়ে শিমুকে আগের মতো নিয়মিত অভিনয়ে দেখা যায় না। প্রায় দু’বছর পর গেল বছরের শেষের দিকে একটি ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। বিশেষ দিবসের বাইরে খণ্ড নাটকেও নিয়মিত অভিনয় করছেন না। এই প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিভিন্ন ব্যস্ততার জন্য কাজের সংখ্যা কমিয়ে দিয়েছি। কিন্তু অভিনয় থেকে দূরে নেই। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নিজেকেও এখন একটু বদলে ফেলেছি। প্রতিনিয়ত নতুন কাজের প্রস্তাব পাচ্ছি। সব কাজে এখন আর আগ্রহ পাই না। একান্ত ভালো নাটকগুলোতেই অভিনয় করবো। বিদায় বছরে টিভি নাটক নিয়ে নানা রকম মন্তব্য শোনা যায়। দর্শক টিভি থেকে সরে এসে ইউটিউবে নাটক বেশি দেখছে এখন। এই সময়ের টিভি নাটকে নিয়ে শিমুর মন্তব্য কি? তার ভাষ্য, পরিবর্তন সব সময় হয়ে আসছে। আগে আমাদের একটি মাত্র চ্যানেল ছিল। এখন অনেক চ্যানেল হয়েছে এটিও একটি পরিবর্তন। দর্শক ইউটিউবে নাটক দেখছে এটি প্রযুক্তির নতুন মাধ্যম। এটি সত্যি, টিভিতে নাটক দেখার আনন্দ অন্য রকম। তাই চ্যানেল কর্তৃপক্ষদের এনিয়ে নতুন পরিকল্পনা করতে হবে।






এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বরগুনায় ওরশ থেকে ধরে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ

দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা, গুলিবিদ্ধ-১

পাহাড়ে ভোটের নিরাপত্তায় ঘাটতি ছিল না: সিইসি

পীরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

বরগুনায় বিএনপির ৫ নেতা বহিষ্কার

জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮.১৩ শতাংশ, মাথাপিছু আয় ১৯০৯ ডলার : অর্থমন্ত্রী

ফের নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের ডাক শিক্ষার্থীদের

অব্যাহতি চাওয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলেন খালেদা

অস্ট্রেলিয়া ভ্রমণেও সতর্কতা জারি

ঢাকার কোন রুটেই সুপ্রভাত বাস চলবে না: আতিকুল

ভিপি নুরের একাত্মতা, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে আঘাত এলে দাঁতভাঙা জবাব

৮ দফায় অনড় বিইউপির শিক্ষার্থীরা

রাখাইন শীর্ষ নেতার ২০ বছরের জেল

ফরিদগঞ্জে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়ি থেকে অস্ত্র ও গুলি জব্দ

চিলমারীতে মৎস্যজীবীদের মাঝে দুর্গন্ধযুক্ত চাল বিতরণ, ক্ষোভ

ক্রাইস্টচার্চ হামলা: যে কারণে লাশ দাফনে বিলম্ব