পরিস্থিতি নো ইলেকশনের দিকেই যাচ্ছে

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:২৯
নির্বাচন বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমেদ মনে করছেন নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণার সময়ই সংঘাত ও হামলার ঘটনা দেখে মনে হচ্ছে পরিস্থিতি নো ইলেকশনের দিকে যাচ্ছে। নির্বাচন পরিস্থিতি নিয়ে মানবজমিনকে দেয়া প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যে ধরপাকড় হচ্ছে তা মানুষের মধ্যে ভীতি প্রদর্শন করার চেষ্টা ছাড়া অন্য কিছুই না। তিনি বলেন, যারা এসব করছে তারা হয়তো ভাবছেন, এটার বেনিফিট হচ্ছে মানুষ ভোট কেন্দ্রে গেল না। আমার তো মনে হচ্ছে তাদের সরল অংকটা ভুল হচ্ছে। তিনি বলেন, নির্বাচনটার দিকে সারা বিশ্ব তাকিয়ে আছে। হামলা-বাধার ঘটনায় মানুষের মধ্যে আরো বেশি ক্ষোভ জমছে। আসলে এসব কাজ কী একটা দলকে পুরোপুরি নির্বাচনী বৈতরণী পার করে দিতে পারবে? আমি তো খুব সন্দিহান। আমার মনে হচ্ছে,  বিষয়টা অন্যদিকে নিয়ে যাচ্ছে।
ইলেকশন না হওয়ার দিকে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Md. Wazed Ali

২০১৮-১২-১৬ ২২:৪৮:৩৬

স্যার, সবই তো বুঝলাম।কিনতু এ সরকার তো কোন কথাই শুনছেন না। আপনারা কি করে ভাবছেন যে নো ইলেকশন হবে? রক্ত যাদের কাছে পানীয় র মতো লাগে তাদের কাছে মানুষের রক্তের কি কোন মূল্য আছে! নমুনা দেখে তা তো মনে হচছে ----!

Sohel Rana

২০১৮-১২-১৬ ২১:২০:৫৬

I think this country property is one party. There thinking are wrong. They know all power is general people.

Harun

২০১৮-১২-১৬ ১৪:১৬:৫০

Thanks sir for your nice comments.

Shakawat

২০১৮-১২-১৬ ১৩:১৪:০৪

মানবজমিন কে thanks

Mustafa Ahsan

২০১৮-১২-১৬ ১২:০৬:৪৩

আমার তিন সপ্তাহ আগের prediction মানব জমিন ছাপায়নি,দুখ্য নেই এখনও বলছি এমন অবস্তার অবতারনা করবে সরকারী দল যাতে গুলি খেয়ে দুইজন প্রার্থীর জীবন যাবে তখন প্রসিডেন্টকে দিয়ে নির্বাচন বাতিল করে ইমারজেনসি ডিকলেয়ার করে ইলেকশন বন্দ করাবে।সরকার জানে মানুষ পনচাশ ভাগ ভোট কেন্দ্র যেতে পারলেই উনাদের দিন শেষ ,কাজেই এই রিস্ক আ.লীগ নিবে না।ভোটের দিন যত এগিয়ে আসবে ততই মরহুম দের সংখ্যা বাড়তেই থাকবে এর মধ্য ভি আই পি ও মিততুর মিছিলে শরিক হবেন।বাংলাদেশ তার মাস্টার প্লান অনুযায়ী নস্টাদের পরিচালনায় নর্দমায় পাক খেতে যাচ্ছে এটা বাইরের জগত থেকে দিব্বি দেখতে পারছি।একমাত্র সমাধান এখনও সেনাবাহিনীর মাধ্যমে নিয়মতানতিরিক ব্যবস্হা ফিরিয়ে আনা।যদিও এটা এদের কাছে আশা করা যায় না।

Sumon Ahmed chowdhur

২০১৮-১২-১৬ ১২:০২:০৩

Right

আপনার মতামত দিন

পদ হারালেন জিএম কাদের

গণপরিবহনে বিশৃঙ্খলার নেপথ্যে

অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন মেনন, লাইসেন্স ছিল না চালকের

পতাকা উত্তোলন দিবস আজ

ওয়াশিংটনে মোমেন-পম্পেও বৈঠক ১০ই এপ্রিল

ইন্টারনেটে ব্ল্যাকমেইল

বরিশালে দুর্ঘটনায় মা-ছেলেসহ নিহত ৭

ডাকসুর নেতৃত্ব দেবেন নুর, থাকবেন আন্দোলনেও

ঐক্যফ্রন্টের কর্মী সমাবেশ এপ্রিলে

দুই মিনিট স্তব্ধ নিউজিল্যান্ড, সংহতি অস্ট্রেলিয়ারও

বিমানবন্দরে অস্ত্রসহ আওয়ামী লীগ নেতা আটক

বিয়ের পিঁড়িতে ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজ

যক্ষ্মা: ২৬ শতাংশ রোগী শনাক্তের বাইরে

ওবায়দুল কাদের শঙ্কামুক্ত

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৩

দর্শকশূন্যতার বড় কারণ হলের বাজে পরিবেশ