চকরিয়ায় হাসিনা আহমেদের গণসংযোগে হামলা, গুলিবর্ষণ

অনলাইন

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি | ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৮:২১ | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৪৭
কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভার বাইতুশ শরফ রোডে পৌরসভা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র নুরুল ইসলাম হায়দারে ওপর দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করছেন বিএনপি। আহত নুরুল ইসলাম হায়দারকে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টার দিকে এঘটনা ঘটে। এ হামলার ঘটনায় যুবদল নেতা জুয়েল নামের এক বিএনপির কর্মীও আহত হন।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডে কক্সবাজার-১ আসনের বিএনপির ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হাসিনা আহমেদের একটি পথসভার প্রস্তুতি চলছিল। এরই অংশ হিসেবে পৌরসভা বিএনপির সভাপতি নুরুল ইসলাম হায়দারের নেতৃত্বে মিছিল বের করা হয়। এসময় মিছিলে অতর্কিতভাবে লাঠি নিয়ে হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে আহত হায়দারকে দেখতে হাসপাতালে আসেন ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হাসিনা আহমেদ।
বিএনপি দাবি করছেন, আওয়ামী লীগের একদল নেতাকর্মী নেতৃত্বে এ হামলা চালায়। চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা আমার নলেজে নেই। অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এদিকে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী জানান, কক্সবাজার-১ আসনে ধানের শীষ প্রার্থী হাসিনা আহমেদের নির্বাচনী প্রচারণায় আওয়ামী সন্ত্রাসীরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতে সশস্ত্র হামলা চালায় ও গুলিবর্ষণ করে। সন্ত্রাসীদের হামলায় চকোরিয়া পৌর বিএনপির সভাপতি নুরুল ইসলাম ইসলাম হায়দারসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন। তারা এখন মুর্মুষু অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এছাড়া নির্বাচনী এলাকায় প্রতিনিয়ত নির্বাচনী প্রচার মাইক ভেঙে ফেলছে, ছিনিয়ে নিচ্ছে এবং পোষ্টার-লিফলেট ছিঁড়ে ফেলছে। ধানের শীষের প্রার্থী হাসিনা আহমেদ এ বিষয়ে পুলিশকে অভিযোগ দিলে পুলিশ তার সাথেও দূর্ব্যবহার করে। তিনি থানায় অভিযোগ দেয়ার সময় আওয়ামী সন্ত্রাসীরা থানা অবরোধ করে গুলিবর্ষণ করতে থাকে। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ নেতা জাফর আলমের নেতৃত্বে এসব ন্যক্কারজনক কর্মকান্ড সংঘটিত হচ্ছে।




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Jamir Uddin

২০১৮-১২-১৩ ০৯:৫৮:৩১

আমরা চকরিয়া বাসী এই ঘঠনার তদন্ত করে দোষীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি চাই।

আপনার মতামত দিন