আলাপন

‘এটি এই বছরের জন্য স্পেশাল একটি বিষয়’

বিনোদন

এন আই বুলবুল | ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৫২
চলতি বছরে আমি চল্লিশ বছরে পা দিয়েছি। এটি নাকি সবার জন্য পরিপূর্ণতার বয়স। সেই দিক থেকে হিসেব করলে এটি আমারও পরিপূর্ণতার বছর। নিজের সম্পর্কে এভাবে মন্তব্য করলেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী দীপা খন্দকার। তিনি আরো বলেন, চল্লিশের পর থেকে সব মানুষের মধ্যে একটা পরিবর্তন আসে। একজন মানুষের মধ্যে ম্যাচিউরিটির প্রতিফলন ঘটে। আমারও তাই হয়েছে। অনেক নির্মাতা এখন আমাকে এমন কিছু চরিত্রের জন্য ভাবেন যেটি আগে ভাবা হতো না।
বিশেষ করে এ বছর আমার অভিনীত চলচ্চিত্রটি দেখার পর আমার প্রতি সবার দৃষ্টিভঙ্গির দারুণ পরিবর্তন হয়েছে। চলতি বছরটি আপনার ক্যারিয়ারের জন্য কেমন ছিল? এই প্রশ্নের উত্তরে দীপা খন্দকার বলেন, ক্যারিয়ারের ঊনিশ বছরে এসে ফিল্মে অভিনয় করেছি। এটি এই বছরের জন্য স্পেশাল একটি বিষয়। এছাড়া এবার ছয়টি বিজ্ঞাপনের মডেল হয়েছি। টিভি নাটকেও অনেক কাজ ছিল। এক কথায় বলতে পারি, চলতি বছরটা আমার ক্যারিয়ার এবং নিজের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ বছর। চলতি বছরের শেষ কাজ নিয়েও কথা বলেন এই অভিনেত্রী। আজ থেকে তিনি শুরু করবেন অমিতাভ রেজার একটি শর্টফিল্মের শুটিং। এটির নাম ‘বন্ধু অথবা বন্ধুকের গল্প’। এরপরেই তিনি ২৫শে ডিসেম্বর উড়াল দেবেন মালয়েশিয়াতে। এক সপ্তাহ সেখানে পরিবারের সবাইকে নিয়ে বেড়াবেন। প্রথমটির পর দীপা খন্দকারকে এখনো নতুন কোনো চলচ্চিত্রে দেখা যায়নি। নতুন চলচ্চিত্রে নেই কেন? এই প্রশ্নের উত্তরে তার ভাষ্য, ক্যারিয়ারের শুরু থেকে মনের মতো একটি চরিত্রের জন্য অপেক্ষা করেছি। সেই রকম চরিত্র পাওয়ার পরেই ‘ভাইজান এলোরে’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছি। এখন যদি তার কাছাকাছি কোনো চরিত্র না পাই তাহলে অভিনয় করার কোনো মানে হয় না। আবারো যদি নিজেকে প্রকাশ করার মতো কোনো চরিত্র পাই তাহলে অবশ্যই চলচ্চিত্রে অভিনয় করব। ২০১৮ সাল শোবিজের জন্য কেমন ছিল বলে দীপা মনে করেন? তিনি বলেন, এই বছর আমাদের শোবিজে বেশ পরিবর্তন এসেছে। বিশেষ করে নাটকে সিনিয়র শিল্পীদের এক ধরনের হতাশা ছিল তাদের নিয়ে কাজ হচ্ছে না । কিন্তু এবার সেই ধারা অনেকটা ভাঙা হয়েছে বলে আমি মনে করি। আমার সঙ্গেও এবার বেশ কয়েকজন সিনিয়র শিল্পী অনেকগুলো নাটকে অভিনয় করেছেন। নির্মাতাদের মধ্যেও সিনিয়রদের নিয়ে কাজ করার আগ্রহ দেখেছি। নতুন বছরে আমাদের শোবিজে হয়তো আরো বড় ধরনের পরিবর্তন আসবে। ২০১৯ সালের জুন মাসে এই অভিনেত্রী ক্যারিয়ারের বিশ বছর পূর্ণ করবেন। দীর্ঘ এই সময়ের অভিজ্ঞতা কেমন? এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের সূবর্ণা আপা ক্যারিয়ারের ৫০ বছর পূর্ণ করছেন। এটি একজন অভিনেত্রীর জন্য বড় ক্রেডিট। একজন শিল্পী আসলেন আর কয়েকটা হিট নাটক উপহার দিয়ে হারিয়ে গেলেন এটিতে কোনো অর্জন নেই। একজন শিল্পী কতদিন তার ক্যারিয়ারকে সফলতার সঙ্গে টেনে নিতে পারেন সেটিই দেখার বিষয়। সূবর্ণা আপা আমাদের আদর্শ। আমারও ২০১৯ সালে বিশ বছর পূর্ণ হবে, এই সময়ের অনেকের কাছে এটি নিশ্চয় বড় একটি বিষয় হবে। কারণ এই সময়ের বেশিভাগ অভিনেত্রী ক্যারিযারে এত লম্বা সময় পান না। তারা আসেন তারপর আবার হারিয়ে যান। তিনি আরো বলেন, আমি যখন অভিনয় শুরু করি, তখন ক্যামেরাম্যান, নির্মাতাসহ অনেকেই আমার বড় ছিলেন। কিন্তু এখন যাদের সঙ্গে আমি কাজ করি তাদের বেশির ভাগই বয়সে আমার ছোট। সত্যি এটিকে আমি দারুণ এনজয় করি। সবাইকে আমি অনেক আদর করি। শুটিং স্পটে তাদের আমার অনেক আপন আপন লাগে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

পদ হারালেন জিএম কাদের

গণপরিবহনে বিশৃঙ্খলার নেপথ্যে

অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন মেনন, লাইসেন্স ছিল না চালকের

পতাকা উত্তোলন দিবস আজ

ওয়াশিংটনে মোমেন-পম্পেও বৈঠক ১০ই এপ্রিল

ইন্টারনেটে ব্ল্যাকমেইল

বরিশালে দুর্ঘটনায় মা-ছেলেসহ নিহত ৭

ডাকসুর নেতৃত্ব দেবেন নুর, থাকবেন আন্দোলনেও

ঐক্যফ্রন্টের কর্মী সমাবেশ এপ্রিলে

দুই মিনিট স্তব্ধ নিউজিল্যান্ড, সংহতি অস্ট্রেলিয়ারও

বিমানবন্দরে অস্ত্রসহ আওয়ামী লীগ নেতা আটক

বিয়ের পিঁড়িতে ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজ

যক্ষ্মা: ২৬ শতাংশ রোগী শনাক্তের বাইরে

ওবায়দুল কাদের শঙ্কামুক্ত

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৩

দর্শকশূন্যতার বড় কারণ হলের বাজে পরিবেশ