মানিকগঞ্জে বিএনপির প্রচারণায় ছাত্রলীগ-যুবলীগের হামলা, আহত ১০ জন

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার,মানিকগঞ্জ থেকে | ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার, ৭:২১
মানিকগঞ্জ-৩ আসনে জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খান রিতার নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতরা। আজ বিকাল ৪টায় বিএনপির প্রার্থী আফরোজা খান রিতা সাটুরিয়া উপজেলার কালুশাহ মাজার জিয়াতর করতে গেলে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রেজাউর করিম ও যুগ্ম আহবায়ক আ. খালেকের নেতৃত্বে যুবলীগ-ছাত্রলীগ এই হামলা চালায় বলে অভিযোগ বিএনপি নেতাদের। এ ঘটনায় ছাত্রদলের ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে।  

সদর-সাটুরিয়া আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাবেক মন্ত্রী হারুনার রশিদ খান মুন্নুর কন্যা আফরোজা খান রিতা মঙ্গলবার বিকালে তার নির্বাচনী এলাকায় প্রচানরনায় নামার আগে সাটুরিয়া কালুশাহ মাজার জিয়াতর করতে যান। ৪টার দিকে দলীয় নেতাকর্মী নিয়ে আফরোজা খান রিতার বহনকারী গাড়িটি মাজারের রাস্তায় থামানোর পর পরই সেখানে জড়ো হয়ে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মী মিছিল নিয়ে গাড়িটি ঘেরাও করে ফেলে। এসময় আফরোজা খান রিতাকে লক্ষ্য করে নানা ধরনের শ্লোগান দেয় ছাত্রলীগ-যুবলীগ । পরে বিএনপি প্রার্থী আফরোজা খান রিতাকে ছাত্রদল, যুবদল ও বিএনপি নেতাকর্মীরা হাতে হাত রেখে নিরাপত্তা বেষ্টনীতে কালুশাহ মাজারে নিয়ে যায়। পরে ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাকর্মীরাও সেখানে ছুটে যায়।
আফরোজা খান রিতা মাজার জিয়ারত শেষে নিজের বহন কারী গাড়িতে উঠতে গেলে আবারও হট্টগোল বাধিয়ে দেয় ছাত্রলীগ-যুবলীগ । এ সময় আফরোজা খান রিতা নিজের দলের নেতাকর্মীদের ধৈর্য ধরার আহবান জানান।

এক পর্যায়ে আফরোজা খান রিতার কর্মী ও সমর্থকদের লাঠিসোঠা দিয়ে বেধরক মারধর করে যুবলীগ-ছাত্রলীগ। পরে সেখান থেকে আফরোজা খান রিতার গাড়িটিকে বিএনপি দলীয় নেতাকর্মী নিরাপদে নিয়ে যায়। সাটুরিয়া থানার সামনে রিতার গাড়ির বহর থামিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশের সাহায্য চায়। পরে সেখান থেকে আফরোজা খান রিতা সাটুরিয়া বাসস্ট্যান্ডে নির্বাচনী প্রচারণা করতে গেলে সেখানেও ছাত্রলীগ-যুবলীগ একই কায়দায় বাধা দেয়া এবং নেতাকর্মীদের ওপর লাঠি সোঠা নিয়ে হামলা চালায়। প্রায় আধা ঘন্টা পর সাটুরিয়া বাসস্ট্যান্ডে পুলিশ উপস্থিত হয়ে  পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেও পারেনি। তখন আফরোজা খান রিতার গাড়ি বহরটি দরগ্রাম অভিমুখে যাত্র করলে পেছনে পেছনে ছাত্রলীগ-যুবলীগ শ্লোগান দিয়ে বেশ কিছু দূর যায়। বাধা ও হামলার কারণে  আফরোজা খান রিতা তার নির্ধারিত গনসংযোগ স্থগিত করে মানিকগঞ্জের গিলন্ড এলাকায় তার নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন।

এ বিষয়ে আফরোজা খান রিতা বলেন, কালুশাহর মাজার জিয়ারতের মধ্য দিয়ে আমরা সাটুরিয়া উপজেলায় আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণায় শুরু করতে যাচ্ছিলাম। কিন্ত ছাত্রলীগ-যুবলীগ আমাদের শান্তিপুর্ণ প্রচারণায় হামলা ও বাধা দিয়ে প্রমাণ করলো সরকার শান্তিপুর্ণ নির্বাচন চায় না। সরকার তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে নির্বাচনী পরিশেশ নষ্ট করছে। ওরা জানে সুষ্ঠ নির্বাচন হলে জনগণ বিএনপিকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করবেন। এই ভয়ে তারা আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। এ হামলায় আমার দলের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে তিনি জানান।

নির্বাচনী প্রচারনায় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাডভোকেট মোখসেদুর রহমান,সহসভাপতি অ্যাডভোকেট জামিলুর রশিদ খান,সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আজাদ হোসেনসহ বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদলসহ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সাটুরিয়া বিএনপির প্রার্থীর প্রচারনায় হামলা ঘটনায় জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশন ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করবেন বলে জানায় দলটির নেতাকর্মীরা।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বগুড়ায় বিএনপির জিএম সিরাজ জয়ী

১৯ ঘণ্টা পর সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ চালু

ছাত্রদলের খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ

নাগরিকদের ভ্রমণে সতর্কতার পরামর্শ বৃটেনের

ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে মামলা

বাঘের খাঁচায় বন্দি আফগানরা

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শাহবাজপুর সেতু দিয়ে যান চলাচল শুরু

‘তিন বছরের বেশি ক্ষমতায় থাকবো না’

জঙ্গি নির্মূলে বাংলাদেশ বিশ্বের রোল মডেল: আইজিপি

অপহরণের ৮ দিনেও উদ্ধার হয়নি চাটখিলের বীথি

মালয়েশিয়ার মন্ত্রীর কথিত সেক্স ভিডিও, তোলপাড়

লক্ষ্মীপুরে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সভায় যুবলীগ-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ১৩

বিএনপি কার্যালয়ের সামনে বিক্ষুব্ধ ছাত্রদলের তুলকালাম

আমরা ডুবেছি, এবার বাংলাদেশকেও ডুবাবো : গুলবাদিন নায়েব

কেমন হবে রোজ বোলের উইকেট!

ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধদের তোপের মুখে মিলন