সিলেটে ২ আসন পেলো জাপা

মাঠে সমশের মবিন চৌধুরী

শেষের পাতা

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে | ৯ ডিসেম্বর ২০১৮, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:০৯
সিলেটে মহাজোটের প্রার্থিতা নিয়েও সংকট তীব্র ছিল। জাতীয় পার্টি চেয়েছিল চারটি আসন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে দুটি আসনেই তাদের সন্তুষ্ট থাকতে হলো। আর এ দুটি আসন পেয়েছেন বর্তমান দুই সংসদ সদস্য। এরা হলেন- সিলেট-২ আসনে ইয়াহ ইয়া চৌধুরী এহিয়া ও সিলেট-৫ আসনে হুইপ সেলিম উদ্দিন। খাদের কিনারা থেকে উঠে এসে ফের মহাজোটের মনোনয়ন পেয়ে চমক দেখালেন সেলিম উদ্দিন। তার বাড়িও সিলেট-৫ আসনে নয়। এ কারণে তাকে নিয়ে ক্ষোভ-বিক্ষোভ ছিল।
সবকিছু ছাপিয়ে মহাজোটের রায় গেল সেলিম উদ্দিনের পক্ষেই।

বাদ পড়লেন সাবেক একাধিক বারের এমপি হাফিজ আহমদ মজুমদার। তিনি এবার নির্বাচনে হঠাৎ করে এসে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী হন। অনেক চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে হাফিজ আহমদ মজুমদার পান সিলেট-৫ আসনে আওয়ামী লীগের টিকিট। প্রাথমিক বাছাইয়ে মনোনয়ন বাতিল হয়েছিল সেলিম উদ্দিনের। এরপর আপিল করে সেলিম উদ্দিন প্রার্থিতা ফিরে পান। এরপর জাতীয় পার্টি থেকেই তাকে মহাজোটের মনোনয়ন দেয়া হয়। হাফিজ আহমদ মজুমদার শেষ পর্যন্ত প্রার্থী না হওয়ায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের জন্য বিশাল ধাক্কা। কারণ আওয়ামী লীগ এই আসনে এবার তাদের দলীয় প্রার্থী দাবি করেছিলো।

সিলেটের মহাজোটের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এই তালিকায় সিলেট-১ আসনে প্রার্থী হয়েছেন ড. একে আবদুল মোমেন, সিলেট-২ আসনে জাতীয় পার্টির ইয়াহইয়া চৌধুরী এহিয়া, সিলেট-৩ আসনে মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী কয়েস, সিলেট-৪ আসনে ইমরান আহমদ চৌধুরী, সিলেট-৫ আসনে সেলিম উদ্দিন ও সিলেট-৬ আসনে নুরুল ইসলাম নাহিদ। এর মধ্যে সিলেট-৬ আসনে ছাড় পাচ্ছেন না মহাজোট প্রার্থী শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এই আসনে বিকল্পধারার প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছেন কূটনীতিবিদ সমশের মবিন চৌধুরী। গতকাল বিকালে সমশের মবিন চৌধুরী মানবজমিনকে জানিয়েছেন, তিনি এখনো প্রার্থী আছেন। এবং প্রার্থী থাকার ইচ্ছা রয়েছে তার।

জাতীয় পার্টির নেতারা জানিয়েছেন, এবারের নির্বাচনে তারা সিলেট-২ ও সিলেট-৫ ছাড়া আরো দুটি আসন মহাজোটের কাছে দাবি করেছিলেন। ওই দুটি আসন হচ্ছে সিলেট-৩ ও সিলেট-৪। সিলেট-৩ আসনে তাদের প্রার্থী হচ্ছেন সিলেট জেলার সদস্য সচিব উসমান আলী ও সিলেট-৪ আসনে প্রেসিডিয়াম সদস্য তাজ রহমান। গতকাল বিকাল পর্যন্ত এ দুটি আসনে তারা প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেন নি। তবে দলীয় প্রতীকের শেষ চিঠি রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে জমা না দিলে তাদের প্রার্থিতা থাকবে না। শেষ মুহূর্তে দুই প্রার্থীর বদলে জাপা এই দুটিতে মহাজোটের প্রার্থীদের ছাড় দিয়েছে বলে জানান তারা।

এদিকে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী জানিয়েছেন, সিলেটে মহাজোট একক প্রার্থী দিয়েছে। তাদের কোনো বিদ্রোহী নেই। সিলেট-৫ আসনটিতে শেষ পর্যন্ত মহাজোটভুক্ত নির্বাচন নাও হতে পারে। এই আসনে নৌকার প্রার্থী হাফিজ আহমদ মজুমদার নৌকা নিয়ে নির্বাচন করতে পারেন। তিনি বলেন, সিলেট জেলার ৬টি নির্বাচনী আসন আমরা এবারো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চাই। সেই লক্ষ্য নিয়ে মহাজোট গোটা জেলায় কাজ করছে। ইতিমধ্যে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। পরবর্তীতে আসনওয়ারী নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হবে বলে জানান তিনি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

বুরহান উদ্দীন

২০১৮-১২-০৯ ১৫:০৫:১৫

সিলেট ৫ আসনে তো হাফিজ আহমদ মজুমদার নৌকা নিয়ে নির্বাচনে আছেন।

আপনার মতামত দিন

এক ম্যাচে সাকিবের এত রেকর্ড !

ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

সংগীতশিল্পী মিলার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

নয়া পল্টনে ছাত্রদলের দুই পক্ষের হাঙ্গামা

১৯ ঘণ্টা পর সিলেট-ঢাকা রেল যোগাযোগ চালু

যাতায়াত ও যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছে: ফখরুল

চেনা সাকিব মুশফিক

লাফ দিতে গিয়ে বগিতে পিষ্ট সানজিদা-ফাহমিদা

ট্রেনে যাত্রী ছিল ৩ গুণ গতি ছিল বেশি

বগুড়ায় বিএনপির সিরাজ জয়ী

বাড়ছে কিশোর অপরাধ

সুন্দরবন নিয়ে দেনদরবার

যত আঘাত এসেছে আওয়ামী লীগ ততই শক্তিশালী হয়েছে

অবকাঠামোর উন্নয়নে বিনিয়োগ বেড়েছে- সালমান এফ রহমান

ভিভ, গাঙ্গুলী-ওয়াহকে ছাড়িয়ে সাকিব

লর্ডসে আজ মুখোমুখি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া