জাপায় এরশাদের পরেই হাওলাদার

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ৯ ডিসেম্বর ২০১৮, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৫৩
মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনের আগেও জানা গেল না জাতীয় পার্টির চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা। মহাজোট থেকে পাওয়া জাপা প্রার্থীদের নাম ঘোষণা দেয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তা আটকে যায়। গতকাল রাত ৮টায় প্রেস ব্রিফিংয়ের ঘোষণা দিয়েও তা স্থগিত করা হয়। মনোনয়ন প্রত্যাহারের দিনে এসেও প্রার্থীরা তাদের নাম জানতে পারেননি। এ কারণে পার্টির নেতাকর্মীরা হতাশা ব্যক্ত করেন। সিদ্ধান্তহীনতার কারণে অনেক নেতা রাত পর্যন্ত পার্টি অফিসে অপেক্ষা করেন। এদিকে শনিবার রাতে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সদ্য সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারকে এরশাদের বিশেষ সহকারী হিসেবে নিয়োগের কথা জানানো হয়। জাপা চেয়ারম্যানের পরেই দ্বিতীয় স্থান এখন হাওলাদারের।
তিনি পার্টির চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতিতে যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন। গতকাল দিনভর জাপা চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় ছিল মনোনয়ন প্রত্যাশী ও তাদের সমর্থকদের ভিড়। একাধিক প্রার্থী তাদের কর্মী নিয়ে অপেক্ষা থাকেন মনোনয়ন তালিকায় নিজেদের নাম রয়েছে কি না তা জানার জন্য। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কোনো কিছুই তাদের কাছে পরিষ্কার ছিল না। দুপুরের পর জানা যায় প্রার্থীদের নাম রাতে ঘোষণা করবেন মহাসচিব। রাত ৮টায় প্রেস ব্রিফিংয়ের জন্য গণমাধ্যমকর্মীদের আমন্ত্রণ জানানো।

কিন্তু ঘড়ির কাটায় যখন পৌনে ৮টা তখন জানানো হয় অনিবার্য কারণবশত এ প্রেস ব্রিফিং স্থগিত করা হয়েছে। এ সময় জাপার অনেক নেতা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। নাম প্রকাশ না করে এক মনোনয়ন প্রত্যাশী বলেন, এখনো জানতে পারলাম না আমি মহাজোটের প্রার্থী তালিকায় আছি কি না। যদি না-ই থাকি তাহলে কাল এলাকায় গিয়ে কীভাবে মনোনয়ন প্রত্যাহার করবো তা জানি না। আরেক প্রার্থী বর্তমান এমপি জানান, আমার নাম আছে লোক মারফত শুনেছি কিন্তু নিশ্চিত হতে পারিনি। মহাসচিবের ঘোষণার অপেক্ষায় ছিলাম, এখনো জানতে পারলাম না। অন্যদিক ঢাকা-১৭ আসনে মহাজোট থেকে এরশাদের প্রার্থিতা চেয়ে মিছিল করেছে পার্টির নেতাকর্মীরা। তারা স্লোগান দিয়ে বনানীর জাপা চেয়ারম্যানের কার্যালয় প্রদক্ষিণ করেন। এসময় তারা বলেন, আমাদের চেয়ারম্যানের আসনের ব্যাপারে কোনো ছাড় নেই। ঢাকা-১৭ এরশাদকে দিতেই হবে। আমরা যদি চেয়ারম্যানের জন্য কোনো রকম ছাড় দিই তাহলে আমাদের অস্তিত্ব থাকবে না। তাই এটি আমাদের দিতেই হবে।

অন্যদিেক জাপা মহাসচিবের প্রেস ব্রিফিং স্থগিত হওয়ার পরেই এরশাদের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি দেলোয়ার জালালির পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, জাপা চেয়ারম্যান এরশাদ পার্টির সদ্য সাবেক মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারকে তার বিশেষ সহকারী হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন। চিঠিতে বলা হয়, এখন থেকে এরশাদের অনুপস্থিতে পার্টির চেয়ারম্যানের সার্বিক সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করবেন রুহুল আমিন হাওলাদার। তার পদমর্যাদা হবে পার্টির চেয়ারম্যানের পরে তথা দ্বিতীয় স্থান; যা অবিলম্বে কার্যকর হবে। জাপার গঠনতন্ত্রের ২০/১/ক ধারা মোতাবেক এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

পদ হারালেন জিএম কাদের

গণপরিবহনে বিশৃঙ্খলার নেপথ্যে

অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন মেনন, লাইসেন্স ছিল না চালকের

পতাকা উত্তোলন দিবস আজ

ওয়াশিংটনে মোমেন-পম্পেও বৈঠক ১০ই এপ্রিল

ইন্টারনেটে ব্ল্যাকমেইল

বরিশালে দুর্ঘটনায় মা-ছেলেসহ নিহত ৭

ডাকসুর নেতৃত্ব দেবেন নুর, থাকবেন আন্দোলনেও

ঐক্যফ্রন্টের কর্মী সমাবেশ এপ্রিলে

দুই মিনিট স্তব্ধ নিউজিল্যান্ড, সংহতি অস্ট্রেলিয়ারও

বিমানবন্দরে অস্ত্রসহ আওয়ামী লীগ নেতা আটক

বিয়ের পিঁড়িতে ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজ

যক্ষ্মা: ২৬ শতাংশ রোগী শনাক্তের বাইরে

ওবায়দুল কাদের শঙ্কামুক্ত

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৩

দর্শকশূন্যতার বড় কারণ হলের বাজে পরিবেশ