শিগগিরই ভালোবাসার অনুভূতি আসবে সেক্স রোবটের মাঝে!

দেশ বিদেশ

মানবজমিন ডেস্ক | ৬ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
 শিগগিরই ভালোবাসার অনুভূতি আসবে সেক্স রোবটদের মাঝে। তারা বেদনা অনুভব করতে পারবে। কষ্ট অনুভব করতে পারবে। তাদেরকে ফেলে রাখলে তাদের মনোকষ্ট হবে। ল’ অ্যান্ড মেডিকেল এথিকস অ্যান্ড কেন্ট ল’ স্কুলের পরিচালক প্রফেসর রবিন ম্যাকেনজি বলেছেন, শিগগিরই রোবটদের মাঝে মানবিক সব গুণ প্রকাশ পাবে। প্রযুক্তি সে দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি টেক-এক্সপ্লোরকে বলেছেন, এজন্য রোবট ডিজাইনে এবং তা উৎপাদনে মানুষকে আরো বেশি তথ্য জানার প্রয়োজন। প্রয়োজন রোবটের মধ্যে অনুভূতি সৃষ্টি, আত্মসচেতনতা তৈরির মতো প্রযুক্তি।
পুরুষ এবং নারী উভয় প্রকার সেক্স রোবটের মধ্যে এমন প্রযুক্তি এরই মধ্যে চালু করা হয়েছে বা হচ্ছে বলে মনে করা হয়। এজন্য সেক্স রোবটের চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে বিভিন্ন দেশে। চীনের কারখানা থেকে এমন রোবট বানিয়ে নিয়ে তো পশ্চিমা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তা বিক্রি করা হচ্ছে। গড়ে তোলা হচ্ছে রোবটদের যৌনপল্লী। রবিন ম্যাকেনজি বলেন, এসব রোবট অনেক দিক দিয়ে হবে আমাদের মতো। এমন সব সেক্স রোবট ভালোবাসতে জানবে। তাদের ভেতর ব্যবহার করা প্রযুক্তি দিয়ে তারা আমাদেরকে বুঝতে পারবে। এমন কি তাদের নিজেদের বেদনা সম্পর্কেও বুঝতে পারবে। এ নিয়ে ফিনল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অব হেলসিংকি একটি জরিপ চালিয়েছে। তাতে তারা ৪৩২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। তাতে তারা সেক্স রোবট সম্পর্কে কি ভাবছে এবং আদৌও সেক্স রোবটের সাহচর্য পাওয়ার জন্য তারা অর্থ ব্যয় করেছে কি না তা জানতে চাওয়া হয়েছে। তাতে বিবাহিতরা সেক্স রোবট ব্যবহারের নিন্দা জানান। তবে যারা পতিতা হিসেবে সেক্স রোবটকে ব্যবহার করছেন তারা এর বিরোধী।





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভোট হয়েছে রাতেই, নেতাদের প্রতিও ক্ষোভ

নাটেশ্বরের ঘরে ঘরে কান্না

গাড়িতে গাড়িতে ‘গ্যাস বোমা’

রাসায়নিকের গোডাউন ওয়াহেদ ম্যানশন

সরকারকে দায়ী করে বিএনপির মন্তব্য দায়িত্বজ্ঞানহীন: তথ্যমন্ত্রী

চ্যালেঞ্জ ছুড়ে সিলেটে মাঠে ৫ বিদ্রোহী আওয়ামী লীগে দ্বিধাবিভক্তি

সড়কে মৃত্যুর মিছিল যেন স্বাভাবিক

বাংলাদেশের জনগণ ভালো থাকলে কিছু মানুষ অসুস্থ হয়ে যায়

গা ঢাকা দিয়েছেন গোডাউন মালিকরা

চার জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৫

কোথায় হারালো দুই বোন

আজিমপুরে শোকের মাতম

কান্নায় ভারি হয়ে উঠেছে বাতাস

কন্যার স্মৃতিতে পিতা

বাংলাদেশের জনগণ ভালো থাকলে কিছু মানুষ অসুস্থ হয়ে যায়

দরিদ্র্যতা নয় লোভের বলি