ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের মধ্যবর্তী স্থানে চা চাষের জোর পরিকল্পনা

দেশ বিদেশ

মানবজমিন ডেস্ক | ৬ ডিসেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
ভারতের সীমান্ত বেড়া এবং বাংলাদেশ সীমান্তের মধ্যবর্তী জায়গায় চা উৎপাদনের কথা গভীরভাবে বিবেচনা করছে ত্রিপুরা টি ডেভেলপমেন্ট করপোরেশন (টিটিডিসি) বা ত্রিপুরা চা উন্নয়ন করপোরেশন। এ শিল্পকে সমৃদ্ধ করতে সীমান্তের ওই এলাকায় চা চাষের পরিকল্পনার কথা মঙ্গলবার জানিয়েছেন টিটিডিসি’র চেয়ারম্যান সন্তোষ সাহা। বলেছেন, রাজ্যের চা খাতকে পুনরুজ্জীবিত করার অংশ হিসেবে, সীমান্ত বেড়া ও বাংলাদেশ সীমান্তের মধ্যবর্তী জায়গাকে ব্যবহারের জন্য এমন পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে। বার্তা সংস্থা পিটিআইকে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি। রিপোর্টে বলা হয়েছে, বছরে ত্রিপুরা উৎপাদন করে প্রায় ৯০ লাখ কিলোগ্রাম চা। ১৯৭১ সালে ইন্দিরা-মুজিব চুক্তি ও দুই দেশের সীমান্তরক্ষীদের মধ্যবর্তী চুক্তির অধীনে সীমান্তের ১০০ গজের মধ্যে নির্মাণ করা হয়েছে সীমান্ত বেড়া। ত্রিপুরার কিছু কৃষকের কৃষিজমি পড়েছে সীমান্ত বেড়ার অপর পাড়ে। নিয়ম মেনে তারা ওই জমিতে কাজ করতে পারেন
সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। চা চাষের নতুন পরিকল্পনা সম্পর্কে সন্তোষ সাহা বলেন, সীমান্ত বেড়া ও বাংলাদেশ সীমান্তের মধ্যবর্তী স্থানে চা চাষের প্রকল্প চালু করতে প্রয়োজন হবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনাপত্তি। এজন্য তারা প্রাথমিকভাবে মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলবেন। তবে ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, দ্বিপক্ষীয় চুক্তির রীতি অনুযায়ী, দুই দেশের মধ্যে আন্তর্জাতিক সীমান্ত বরাবর লম্বা গাছ ও কৃষিজ উৎপাদন অনুমোদিত নয়। টিটিডিসির প্রধান বলেন, এজন্য সীমান্ত এলাকায় চা চাষ করতে গেলে বিশেষ অনুমোদন প্রয়োজন হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

প্রিয়তি ধর্ষণ চেষ্টা, তদন্তে ইন্টারপোল!

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে জাতীয় সংসদের বিশেষ আয়োজন

প্রার্থী হচ্ছেন না খালেদা জিয়া

সাকিব আবার শীর্ষে

দোষী ৬৭ জন ১৮ থেকে ২৩ তলা অবৈধ

নারী হতে বাংলাদেশির অস্ত্রোপচার গুজরাটে

সিমলায় আটকে আছে তদন্ত!

অনির্বাচিত সরকারকে গ্রহণ করার মূল্য দিচ্ছে জনগণ

ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু অনলাইনে চরম ভোগান্তি

চাল আমদানিতে শুল্ক কর বাড়িয়ে দ্বিগুণ

বান্ধবীর বাসায় আশিকের মৃত্যু নানা রহস্য

সিলেটের ৫ গুণীজনকে রত্ন ফাউন্ডেশনের সংবর্ধনা

রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে বিশ্বাঙ্গনে একত্রে লড়বে দুই দেশ

অধ্যক্ষ ফের দুই দিনের রিমান্ডে

ঢাকার ৮৪ ভাগ বহুতল ভবনই ত্রুটিপূর্র্ণ

পা হারানো রাসেলকে বাকি টাকা দেয়নি গ্রীনলাইন তীব্র ক্ষোভ হাইকোর্টের