সাহায্যের আবেদন

বাবার চোখে পড়েন ক্যানসারে আক্রান্ত সুবর্ণা

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার | ৫ ডিসেম্বর ২০১৮, বুধবার
৪ মাস আগে দুরারোগ্য ব্যাধি ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত হন ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া সুবর্ণা। গ্রামের বাড়ি নাটোরের সিংড়া থানায়। তার চিকিৎসা করাতে এ পর্যন্ত খরচ হয়েছে মোট সাড়ে ৫ লাখ টাকা। দরিদ্র কৃষক বাবা শহিদুল ইসলাম ফসলি জমি ও গরু-ছাগলসহ মূল্যবান জিনিসপত্র বিক্রি করে এখন প্রায় সর্বস্বান্ত। বইপাগল সুবর্ণার এখন একমাত্র ভরসা হচ্ছে তার বাবার চোখ। বাবা বই পড়ে শোনায় সুবর্ণা সেগুলো আত্মস্থ করে। কারণ ক্যানসারের ভাইরাস দমনে কেমোথেরাপির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় সুবর্ণার দু’চোখই এখন অন্ধ হওয়ার পথে। চিকিৎসকরা বলেছেন, যতদ্রুত সম্ভব তার চোখের অপারেশন করাতে হবে।
ইতিমধ্যে ধারদেনা করে সুবর্ণার একটি চোখের অপারেশন করানো হয়েছে। আরেকটি চোখ এই মাসের মধ্যে অপারেশন করাতে বলেছেন ডাক্তাররা। সুবর্ণার চোখের অপারেশন ও ক্যানসারের চিকিৎসাসহ পুরোপুরি সুস্থ হতে এখনো প্রায় ৩ লাখ টাকা লাগবে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এ অবস্থায় ছোট্ট সুবর্ণার চিকিৎসায় এগিয়ে আসতে সমাজের দাতা ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছে সাহায্যের অনুরোধ জানিয়েছেন তার বাবা। সহায়তা পাঠাতে মোবাইল: বিকাশ ০১৭৭৪৮৯৩৭৫১ (বাবা শহিদুল ইসলাম)। গফ: ঝযধযরফঁষ ওংষধস.ঊষবঢ়যধহঃ জড়ধফ (ওইইখ)অ/ঈ হড়: ১৩২৩৯.




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভোট হয়েছে রাতেই, নেতাদের প্রতিও ক্ষোভ

নাটেশ্বরের ঘরে ঘরে কান্না

গাড়িতে গাড়িতে ‘গ্যাস বোমা’

রাসায়নিকের গোডাউন ওয়াহেদ ম্যানশন

সরকারকে দায়ী করে বিএনপির মন্তব্য দায়িত্বজ্ঞানহীন: তথ্যমন্ত্রী

চ্যালেঞ্জ ছুড়ে সিলেটে মাঠে ৫ বিদ্রোহী আওয়ামী লীগে দ্বিধাবিভক্তি

সড়কে মৃত্যুর মিছিল যেন স্বাভাবিক

বাংলাদেশের জনগণ ভালো থাকলে কিছু মানুষ অসুস্থ হয়ে যায়

গা ঢাকা দিয়েছেন গোডাউন মালিকরা

চার জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৫

কোথায় হারালো দুই বোন

আজিমপুরে শোকের মাতম

কান্নায় ভারি হয়ে উঠেছে বাতাস

কন্যার স্মৃতিতে পিতা

বাংলাদেশের জনগণ ভালো থাকলে কিছু মানুষ অসুস্থ হয়ে যায়

দরিদ্র্যতা নয় লোভের বলি