টয়লেট সিটের চেয়েও ৭ গুণ নোংরা আপনার মোবাইল

রকমারি

অনলাইন ডেস্ক | ৩ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:৩৯
মোবাইল। এই প্রয়োজনীয় যন্ত্রটি ছাড়া একদিন ভাবাটাও অধিকাংশের কাছে ভীতিকর ঘটনা। কিন্তু যদি শোনেন যে, টয়লেট সিটের চেয়েও ৭ গুণ নোংরা আপনার মোবাইল। তারপরেও কি সব সময় তালুবন্দি করে রাখতে চাইবেন আপনার সাধের মোবাইল ফোনটিকে? আপনার কি এর পরেও বিরক্তি আসবে না আপনার মোবাইলটির উপর?
গবেষকরা বলছেন, টয়লেট সিটের চেয়েও ৭ গুণ বেশি নোংরা আমার, আপনার মোবাইল ফোনটি। তাতে কিলবিল করছে ব্যাকটেরিয়া। ঘুরে বেড়াচ্ছে মোবাইল ফোনের সর্বত্র। তার চামড়ার খাপের জন্যই আপনার সাধের মোবাইলে এত বেশি বাসা বাঁধে ব্যাকটেরিয়া।

আর সেই মোবাইল ফোনটি যদি রাখা থাকে কোনও রবারের খাপে, তা হলে অবশ্য ব্যাকটেরিয়ার দাপাদাপি একটু কমে। তখন বলা যায় টয়লেট সিটের চেয়ে ৬ গুণ বেশি নোংরা হয় মোবাইল ফোন।

টয়লেট সিট আর মোবাইল ফোনের উপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে এ কথা জানতে পেরেছেন এবার্ডিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাকটেরিয়া বিশেষজ্ঞরা।
তাঁরা দেখেছেন, কোনও টয়লেট সিটে ২২০ থেকে ২৫০টির মতো থাকে ব্যাকটেরিয়া। আর মোবাইল ফোনে তার সংখ্যাটা হয় ১ হাজার ৪৭৯ থেকে দেড় হাজারের মতো।
তবে যেহেতু আমাদের মোবাইল ফোনটি বেশির ভাগ সময়ই থাকে আমাদের হাতে, তাই ওই ব্যাকটেরিয়াগুলির বেশির ভাগই আসে আমাদের শরীর থেকে। তারা আমাদের শরীরেই থাকে। তাই ওই সব ব্যাকটেরিয়া আমাদের শরীর-স্বাস্থ্যের পক্ষে ততটা বিপজ্জনক হয় না।

মূল গবেষক এবার্ডিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাকটেরিয়া বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক হাফ পেনিংটন বলেছেন, বারবার আমরা মোবাইল ফোন নাড়াচাড়া করি বলে আমাদের শরীরের ওই সব ব্যাকটেরিয়া এসে জমে মোবাইল ফোনের উপরে। মোবাইল ফোনটি এক হাত থেকে অন্য হাতে গেলে কিছু বিপদের আশঙ্কা থেকেই যায়, যেহেতু সে ক্ষেত্রে ওই সব ব্যাকটেরিয়া অন্য শরীর থেকে আসা, এমনটাই বলেছেন পেনিংটন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কাজিপুরে রিং বাঁধ ধসে ৩ গ্রাম প্লাবিত, পানিবন্দী ৩০০ পরিবার

৪১ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাস করেননি কেউ

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই যুবক নিহত

একই উত্তর ৯৫৯ পরীক্ষার্থীর খাতায়

এরশাদের সংসদীয় আসন শূন্য ঘোষণা

যেভাবে জানা যাবে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল

‘গান আগের মতো স্থায়িত্ব পাচ্ছে না’

নিরাপত্তা জোরদার আইনের শাসন নিশ্চিতের তাগিদ

রংপুরেই এরশাদের সমাধি

লক্ষাধিক বিও অ্যাকাউন্ট বন্ধ

যে কারণে পুঁজিবাজারে পতন থামছে না

মিন্নি গ্রেপ্তার

হাসপাতালে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীদের ভিড়

ছুরি নিয়ে কীভাবে গেল তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে

সব আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানো হবে

ঘাতকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি, মামলা ডিবিতে