ময়মনসিংহে মনোনয়ন লড়াইয়ে পিতা-পুত্র সহোদর, চাচা-ভাতিজা

বাংলারজমিন

মতিউল আলম, ময়মনসিংহ থেকে | ১৯ নভেম্বর ২০১৮, সোমবার
ময়মনসিংহ জেলার ময়মনসিংহ-৪ সদর, ময়মনসিংহ-৯ নান্দাইল, ময়মনসিংহ-৮ ঈশ্বরগঞ্জ, ময়মনসিংহ-৫ মুক্তাগাছা ও ময়মনসিংহ-৬ ফুলবাড়িয়া আসনে ভোটের মাঠে আওয়ামী লীগ-বিএনপি ও জাতীয় পার্টিতে মনোনয়ন নিয়ে বাবা-ছেলে ভাইয়ে ভাইয়ে, চাচা-ভাতিজার মধ্যে রীতিমতো মনোনয়ন লড়াই চলছে। মনোনয়ন প্রত্যাশী সকলেই নিজ নিজ মনোনয়নে শতভাগ আশাবাদী। ময়মনসিংহ-৪ সদরে বাবা-ছেলে, মুক্তাগাছা ও নান্দাইল থেকে ভাইয়ে ভাইয়ে, ঈশ্বরগঞ্জ ও ফুলবাড়িয়ায় বিএনপির মনোনয়ন বাগিয়ে নিতে চাচা-ভাতিজার লড়াই চলছে। এছাড়াও মনোনয়ন প্রত্যাশায় নান্দাইলে জাতীয় পার্টি থেকে দুই সহোদর দলীয় মনোনয়ন ক্রয় করেছেন। মনোনয়ন ইস্যুতে একে অপরকে ছাড় দিতে নারাজ।
ময়মনসিংহ-৪ সদর আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপত্র কিনেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও ধর্মমন্ত্রী আলহাজ অধ্যক্ষ মতিউর রহমান ও তার ছেলে ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত।
ময়মনসিংহ-৫ মুক্তাগাছা আসনে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন ক্রয় করেছেন সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী ও ময়মনসিংহ জেলা বিএনপির সভাপতি একেএম মোশাররফ হোসেন এফসিএ। তার অনুজ সহোদর ময়মনসিংহ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি জাকির হোসেন বাবলুও (ক্লাসিক বাবলু) মুক্তাগাছা আসন থেকে বিএনপির মনোনয়ন ক্রয় করেছেন।
ময়মনসিংহ-৬ ফুলবাড়িয়া আসন থেকে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির মেম্বার সাবেক এমপি ইঞ্জিনিয়ার শামছউদ্দিন আহমদ ও তার ভাতিজা ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপির সদস্য আখতারুল আলম ফারুক বিএনপির দলীয় মনোনয়ন ক্রয় করেছেন। চাচা-ভাতিজা একই দলের রাজনীতি করলেও দীর্ঘদিন যাবত দু’জনের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছে।
এখন মনোনয়ন ইস্যুতে সম্পর্কটা সাপে-নেউলে হয়ে গেছে।
ময়মনসিংহ-৮ ঈশ্বরগঞ্জ আসনে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন ক্রয় করেছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক সাবেক এমপি মো. আবদুছ ছাত্তার ও তার ভাতিজা বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান সুমন। দু’জনেই দলীয় মনোনয়ন পাবেন বলে আশাবাদী। চাচা-ভাতিজা দুই মেরুতে অবস্থান নিয়ে একই দলের মনোনয়ন চাওয়ায় রয়েছে বৈরিতা। চাচা ভাতিজা একে অপরকে টেক্কা দিয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন।
ময়মনসিংহ-৯ নান্দাইল আসন থেকে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন ক্রয় করেছেন সৌদি আরব বিএনপির পূর্বাঞ্চল কমিটির সভাপতি একেএম রফিকুল ইসলাম ও তার সহোদর সাবেক পৌর মেয়র একাধিবার কারা নির্যাতিত এফএম আজিজুল ইসলাম পিকুল। দুই সহোদরই মনোনয়ন প্রত্যাশায় এলাকায় কাজ করছেন। এছাড়াও এই আসনটিতে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশায় জাতীয় পার্টি থেকে দুই সহোদর মনোনয়ন ক্রয় করেছেন। তারা হলেন- জাতীয় পার্টির নান্দাইল উপজেলা সভাপতি মো. হাসনাত মাহমুদ তালহা ও তার সহোদর আলহাজ হাসনাত মাহমুদ তারিক। তবে মনোনয়ন প্রত্যাশার দাবি করে বলেন, মনোনয়ন প্রশ্নে বিরোধ থাকলেও দল যাকে মনোনয়ন দিবে তার হয়েই আমরা ভোটের মাঠে দলীয় প্রার্থীর জয় নিশ্চিত করতে কাজ করবো।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নিজ আসন থেকেই প্রচার শুরু করছেন শেখ হাসিনা

নির্বাচন পর্যবেক্ষণে আগ্রহী ৩৪,৬৭১ স্থানীয় পর্যবেক্ষক

উচ্চ আদালতে হাজারো জামিনপ্রার্থী, দুর্ভোগ

পরিস্থিতির উন্নতি না হলে নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন উঠবে

হাইকোর্টেও বিভক্ত আদেশ

সব দলকে অবাধ প্রচারের সুযোগ দিতে হবে

পাঁচ রাজ্যে বিজেপির ভরাডুবি

নোয়াখালীতে গুলিতে যুবলীগ নেতা নিহত

ভুলের খেসারত দিলো বাংলাদেশ

চার দলের প্রধান লড়ছেন যে আসনে

কোনো সংঘাতের ঘটনা ঘটেনি

সিলেটে মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনী প্রচারণা শুরু আজ

দেশজুড়ে ধরপাকড়

টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীদের চার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব তিন জনের হাতে

আবারো বন্ধ হলো ৫৪টি নিউজ পোর্টাল

নারী প্রার্থীদের অঙ্গীকার