ভারতে নারী অধিকারকর্মীদের নিয়ে তসলিমা নাসরিনের বিস্ময়

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৭ নভেম্বর ২০১৮, শনিবার
ভারতের সবরিমালা মন্দিরে প্রবেশ নিয়ে নারী অধিকার কর্মীরা যে প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন তাতে বিষ্ময় প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। তিনি বলেছেন, নারী অধিকারকর্মীরা সবরিমালা মন্দিরে যাবার জন্য আগ্রহী না হয়ে তাদের উচিত গ্রামের সমস্যায় জর্জরিত নারীদের সঙ্গে দেখা করা। তসলিমা নাসরিনের টুইট বার্তা উদ্ধৃত করে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা পিটিআই।
টুইট বার্তায় তসলিমা নাসরিন লিখেছেন, আমি বুঝি না নারী অধিকারকর্মীরা কেন সবরিমালায় যাবার জন্য এতো আগ্রহী। এর চেয়ে তাদের উচিত গ্রামের এমনসব নারীর সঙ্গে সাক্ষাত করা, যারা পারিবারিক নির্যাতন, ধর্ষণ, যৌন হেনস্থা, ঘৃণার শিকার। ওইসব গ্রামের মেয়ে শিশুদের শিক্ষার সুযোগ নেই, স্বাস্থ্যসেবার সুযোগ নেই, চাকরি করার স্বাধীনতা নেই, পুরুষের সমান বেতন পাবার অধিকার নেই।
তসলিমা নাসরিন ১৯৯৪ সালে একটি উপন্যাস লেখার কারণে দেশের কট্টরপন্থিদের রোষানলে পড়েন। দেশ ছাড়তে বাধ্য হন। ভারত, ইউরোপ সহ বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে কাটিয়েছেন জীবনের অনেকটা সময়। বর্তমানে তিনি ভারতে নির্বাসিত জীবন যাপন করছেন।   
তৃপ্তি দেশাই নামের এক নারী অধিকারকর্মী সবরিমালা মন্দিরে যাবার জন্য কোচি বিমানবন্দরে পৌঁছালে মন্দিরের সন্ন্যাসী এবং বিজেপি কর্মীদের আন্দোলনের মুখে মন্দিরে প্রবেশের পরিকল্পনা বাদ দেন। তাকে বিমানবন্দরের বাইরেই বের হতে দেয়া হয় নি। পরবর্তীতে ওই নারী অধিকারকর্মী এবং তার সহকর্মীরা ঘোষণা দেন যে, তারা কোচি থেকে চলে যাচ্ছেন। 



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

প্রিয়তি ধর্ষণ চেষ্টা, তদন্তে ইন্টারপোল!

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে জাতীয় সংসদের বিশেষ আয়োজন

প্রার্থী হচ্ছেন না খালেদা জিয়া

সাকিব আবার শীর্ষে

দোষী ৬৭ জন ১৮ থেকে ২৩ তলা অবৈধ

নারী হতে বাংলাদেশির অস্ত্রোপচার গুজরাটে

সিমলায় আটকে আছে তদন্ত!

অনির্বাচিত সরকারকে গ্রহণ করার মূল্য দিচ্ছে জনগণ

ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু অনলাইনে চরম ভোগান্তি

চাল আমদানিতে শুল্ক কর বাড়িয়ে দ্বিগুণ

বান্ধবীর বাসায় আশিকের মৃত্যু নানা রহস্য

সিলেটের ৫ গুণীজনকে রত্ন ফাউন্ডেশনের সংবর্ধনা

রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে বিশ্বাঙ্গনে একত্রে লড়বে দুই দেশ

অধ্যক্ষ ফের দুই দিনের রিমান্ডে

ঢাকার ৮৪ ভাগ বহুতল ভবনই ত্রুটিপূর্র্ণ

পা হারানো রাসেলকে বাকি টাকা দেয়নি গ্রীনলাইন তীব্র ক্ষোভ হাইকোর্টের