জামায়াতের দৃষ্টি মৌলভীবাজার-১ আসনে

বাংলারজমিন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি | ১৭ নভেম্বর ২০১৮, শনিবার
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন নেই। দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করতে পারবে না। তাই স্বতন্ত্র পরিচয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে। জোটের শরিক দলের প্রতীক নিয়েও তারা নির্বাচন করতে মানসিকভাবে প্রস্তুত। মৌলভীবাজার জেলার ৪টি আসনের মধ্যে জামায়াতের দৃষ্টি মৌলভীবাজার-১ আসনে। তাই জোটের কাছে এই আসনটিই চাইবে তারা। এই আসনটিতে প্রার্থী হচ্ছেন ঢাকা মহানগর মজলিসে শূরার সদস্য মাওলানা আমিনুল ইসলাম। মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলা ও জুড়ী উপজেলা নিয়ে মৌলভীবাজার-১ আসন। জেলার অন্যান্য স্থানের তুলনায় এই আসনে জামায়াতে ইসলামীর জনসমর্থন বেশি এমন দাবি জেলা জামায়াতের একটি সূত্রের। তাই সিলেট বিভাগে যে কয়টি আসন দাবি করছে ২০ দলীয় জোটের কাছে এর মধ্যে মৌলভীবাজার-১ আসনটিও আছে। জেলা জামায়াতের একটি সূত্র জানায়, বড়লেখা ও জুড়ী উপজেলায় স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন নির্বাচনে জামায়াতের প্রার্থীরা কোনো কোনো সময় বিজয়ী হয়েছেন। কোনো সময় প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়ে হেরেছেন। তাদের ভাষায় প্রতিকূল পরিস্থিতির কারণে তারা হেরেছেন। জেলা জামায়াতের একজন নেতা উদাহরণ হিসেবে বলেন, বড়লেখা উপজেলা নির্বাচনে তাদের চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রায় ২৯ হাজার ভোট পেয়েছিলেন। এর আগের নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে তাদের প্রার্থী বিজয়ী হয়। সর্বশেষ পৌরসভা নির্বাচনে তাদের প্রার্থী প্রায় ২৭০০ ভোট পান। অপরদিকে জুড়ী উপজেলা নির্বাচনে তাদের প্রার্থী প্রায় ২২০০০ ভোট পান। আর এই সব নির্বাচনে ভোট পাওয়া জামায়াতের এ আসনটি চাওয়ার ব্যাপারে মূল শক্তি জোগাচ্ছে। তাই দলীয়ভাবে এই আসনে প্রার্থী দেয়ার ব্যাপারে জোর চেষ্টা চলছে। বিশেষভাবে পছন্দ করার নেপথ্যে কাজ করছে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তাদের প্রার্থীদের ভোট পাওয়া। এই আসনে জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থী হচ্ছেন ঢাকা মহানগর মজলিসে শূরার সদস্য, ছাত্র শিবিরের সাবেক ছাত্র কল্যাণ সম্পাদক মাওলানা আমিনুল ইসলাম। মাওলানা আমিনুল ইসলাম মানবজমিনকে গতকাল বলেন, প্রার্থী হিসেবে দলীয় সিদ্ধান্ত আছে। তবে জোটগত না স্বতন্ত্র প্রার্থী সে বিষয়টি এখনো ফাইনাল হয়নি। তাই মার্কা কি হবে সে বিষয়টি এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। কেন্দ্রে আলাপ-আলোচনা চলছে। মৌলভীবাজার জেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা আবদুল মান্নান মানবজমিনকে বলেন, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী এই সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে জোটের স্বার্থে সেক্রিফায়েস করতে পারে। অন্য দলের প্রতীকেও নির্বাচনে অংশ নিতে পারে। সবকিছু জোটের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে। জেলা জামায়াতের একটি সূত্র জানায় মৌলভীবাজার-১ আসনে ১৯৮৬ সালে সংসদ নির্বাচনে তাদের একজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এরপর দলের কোনো প্রার্থী দেয়া হয়নি এই আসনে।





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভিপি নুরের ইফতারে ছাত্রলীগের বাধা, রেস্টুরেন্টে তালা

বাংলাদেশ দলের নিউক্লিয়াস

সৌভাগ্যের কার্ডিফে টাইগারদের বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু

ছোট নৌকায় দ্বিগুণ যাত্রী তুলে ভাসিয়ে দেয় সাগরে

রাজনৈতিক দলে না থাকলেও ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে থাকবো

ওদের কান্নার যেন শেষ নেই

দ্বিতীয় মেঘনা, গোমতী সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

নরসিংদীতে অভাবের তাড়নায় দুই কন্যাকে হত্যা করেছে বাবা

একদিনে দুই ইফতার

মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রয়োজন বৃহত্তর ঐক্য

ফ্রান্সের লিওনে পার্সেল বোমা বিস্ফোরণ আহত ১৩

কসাইখানা থেকে কলেজে মহিষ...

নগরীতে ‘বাস বে’ করা একটি বড় চ্যালেঞ্জ: ডিএনসিসি মেয়র

জীবন উৎসর্গ করা ১২ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীর প্রতি জাতিসংঘের সম্মাননা

লোকসভায় বেড়েছে মুসলিম এমপি

বান্দরবানে অপহৃত আওয়ামী লীগ নেতার লাশ উদ্ধার