জিম্বাবুয়েকে ২১৮ রানে হারালো বাংলাদেশ

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৫ নভেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৫২
দুর্দান্ত জয় দিয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১-১ সমতায় দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শেষ করলো বাংলাদেশ। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ পঞ্চম ও শেষ দিনে মিরাজ-তাইজুলদের স্পিন ঘূর্ণিতে ৮৩.১ ওভারে ২২৪ রানে থামে সফরকারীদের দ্বিতীয় ইনিংস। আর এক সেশন বাকি থাকতেই ২১৮ রানের জয় কুড়ায় মাহমুদুল্লাহর দল। পাঁচ উইকেটের ণৈপুণ্যে জিম্বাবুয়ে ইনিংসের সমাপ্তি টানেন মেহেদি হাসান মিরাজ। জিম্বাবুয়ের হয়ে ব্যাক-টু-ব্যাক সেঞ্চুরি করে ব্যক্তিগত ১০৬ রানে অপরাজিত থাকেন ব্রেন্ডন টেইলর। ম্যাচসেরার পুরস্কার জেতেন প্রথম ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়া মুশফিকুর রহিম। পেসার তেন্দাই চাতারা ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ায় দুই ইনিংসেই একজন ব্যাটসম্যান কম নিয়ে খেলে জিম্বাবুয়ে। আর এক উইকেট পেলেই দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেটসংগ্রাহক মিরাজের ১৯ উইকেটের রেকর্ড স্পর্শ করতে পারতেন তাইজুল। এই সিরিজে টানা তিন ইনিংসে পাঁচ উইকেটের কীর্তি গড়েন এই বাঁহাতি স্পিনার। সিরিজের শেষ ইনিংসে দুই উইকেট পান তাইজুল। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৫২২ রানের জবাবে ব্রেন্ডন টেইলর ও পিটার মুরের ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে (১৩৯) ভর করে তিনশ’ পার জিম্বাবুয়ে। আর ম্যাচ বাঁচানোর কঠিন চ্যালেঞ্জেও দলকে পথ দেখানোর চেষ্টা করে এই দুইজনের জুটি। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। ৭২তম ওভারে পিটার মুরকে (১৩) ফিরিয়ে ব্রেকথ্রু এনে দেন মেহেদি হাসান মিরাজ। আর ৪৪৩ রানের টার্গেটে দলীয় ১৮৬ রানে পঞ্চম উইকেট হারায় সফরকারীরা। ৭৬/২ সংগ্রহ নিয়ে শেষ দিনের ব্যাটিং শুরু করে জিম্বাবুয়ে। ৩১ ওভারের প্রথম সেশনে দুই উইকেটে ৮৫ রান তোলে তারা। দলীয় ৯৯ রানে শন উইলিয়ামসকে (১৩) বোল্ড করে ম্যাচে নিজের প্রথম উইকেট নেন মোস্তাফিজুর রহমান। আর দলীয় ১২০ রানে সিকান্দার রাজাকে (১২) ফিরতি ক্যাচ বানিয়ে নিজের দ্বিতীয় উইকেট পূর্ণ করেন তাইজুল ইসলাম। মধ্যাহ্ন বিরতির পর ১১তম ওভারে পিটার-মুর জুটি ভাঙতেই ম্যাচ বাঁচানোর শেষ আশার কবর রচিত হয় জিম্বাবুয়ের। শেষ ৩৮ রানে পাঁচ উইকেট হারায় সফরকারীরা। দলীয় ১৯৯ রানের মাথায় মুমিনুল হকের থ্রো থেকে রেগিস চাকাবাকে (২) রানআউট করে ষষ্ঠ উইকেটের পতন ঘটান মুশফিক। এরপর মিরাজের স্পিন ভেল্কিতে একে একে সাজঘরে ফেরেন ডোনাল্ড তিরিপানো (০), ব্রেন্ডন মাভুতা (০) ও কাইল জারভিস (১)। গতকাল চতুর্থ দিনে হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে (২৫) মিরাজ ও ব্রায়ান চারিকে (৪৩) ফেরান তাইজুল। এই দুইজনের ওপেনিং জুটিতে আসে ৬৮ রান। মুমিনুল হকের ১৬১, মুশফিকুর রহিমের ডাবল সেঞ্চুরি (২১৯*) ও মিরাজের ৬৮ রানের অপরাজিত ব্যাটিংয়ে ৭ উইকেটে ৫২২ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। টেস্ট ইতিহাসের প্রথম উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে দুইটি ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েন মুশফিক। আর দলীয় ২৬ রানে তিন উইকেট হারানোর পর ২৬৬ রানের রেকর্ড জুটি (চতুর্থ উইকেটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ) গড়েন মুশফিক ও মুমিনুল। জবাবে টেইলের ১১০ ও মুরের ৮৩ রানে ভর করে ৩০৪ রানে থামে জিম্বাবুয়ের প্রথম ইনিংস।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

প্রিয়তি ধর্ষণ চেষ্টা, তদন্তে ইন্টারপোল!

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে জাতীয় সংসদের বিশেষ আয়োজন

প্রার্থী হচ্ছেন না খালেদা জিয়া

সাকিব আবার শীর্ষে

দোষী ৬৭ জন ১৮ থেকে ২৩ তলা অবৈধ

নারী হতে বাংলাদেশির অস্ত্রোপচার গুজরাটে

সিমলায় আটকে আছে তদন্ত!

অনির্বাচিত সরকারকে গ্রহণ করার মূল্য দিচ্ছে জনগণ

ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু অনলাইনে চরম ভোগান্তি

চাল আমদানিতে শুল্ক কর বাড়িয়ে দ্বিগুণ

বান্ধবীর বাসায় আশিকের মৃত্যু নানা রহস্য

সিলেটের ৫ গুণীজনকে রত্ন ফাউন্ডেশনের সংবর্ধনা

রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে বিশ্বাঙ্গনে একত্রে লড়বে দুই দেশ

অধ্যক্ষ ফের দুই দিনের রিমান্ডে

ঢাকার ৮৪ ভাগ বহুতল ভবনই ত্রুটিপূর্র্ণ

পা হারানো রাসেলকে বাকি টাকা দেয়নি গ্রীনলাইন তীব্র ক্ষোভ হাইকোর্টের