এফডিসিতে আবারো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ৯ নভেম্বর ২০১৮, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:২৩
বিএফডিসিতে এর আগে বেশকিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সংবাদ বিভিন্ন সময় প্রকাশ হয়। গতকাল জানা গেল আবারো এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার কথা। জানা যায়, ছবির শুটিং সেটের বাইরে চিত্রনায়ক শাকিব খানের সঙ্গে সহকারী পরিচালক সমিতির সদস্যদের উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ের মুহূর্তে ভিডিও করছিলেন অনলাইন পোর্টালের দুজন সাংবাদিক জিয়াউদ্দিন আলম ও সুদীপ্ত সাঈদ খান। তা দেখে ক্ষিপ্ত হন শাকিব খান। এরপর ওই দুই সাংবাদিকের মুঠোফোন কেড়ে নিতে বললেন তার দেহরক্ষী হারুনকে। এ সময় শামীম আহমেদ রনীর ছবির সেটে কাজ করছিলন শাকিব খান। তিনি তার দেহরক্ষীকে মোবাইল ফোন ‘চেক’ করে যা ভিডিও করা হয়েছে, তা ডিলিট করতে বলেন বলে জানান শাকিব খান। বৃহস্পতিবার বিকালে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএফডিসি) প্রশাসনিক ভবনের সামনে এই ঘটনা।
এফডিসিতে এখন শাকিব খানের ‘শাহেনশাহ’ ছবি শুটিং চলছে। শুটিং চলার সময় অনাকাঙ্খিত এই ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে জানা গেছে, ‘শাহেনশাহ’ ছবিতে প্রধান সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করছেন আলোক হাসান। তিনি সহকারী পরিচালকদের সংগঠন সিনে ডিরেক্টোরিয়াল অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সদস্য নন। তাই বিষয়টি নিয়ে শাহেনশাহ ছবির শুটিং সেটে কথা বলতে যান সংগঠনটির সভাপতি এস আই ফারুক। সেটের পাশে যখন তাদের সঙ্গে আলাপ হয়, তখন আরো কয়েকজন সদস্য সেখানে যান। একপর্যায়ে সেখানে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয়। শাকিব খানসহ শুটিং ইউনিটের আরো কয়েকজন সেখানে এগিয়ে যান। এ সময় সহকারী পরিচালকদের এমন আচরণ দেখে রেগে যান শাকিব খান। পাশে থাকা ওই দুজন সাংবাদিক উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ের মুহূর্ত নিজেদের মোবাইল ফোনের ক্যামেরায় ধারণ করছিলেন। এ প্রসঙ্গে শাকিব খান জানান, বিষয়টি জানলে সকলে বুঝতে পারবেন। কেন মোবাইল কেড়ে নেব না? এখানে যা হয়েছে এটা আমাদের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। এসব কেন ভিডিও করে নিয়ে যাবে? তাই আমি ধমক দিয়ে বলেছি, এটা ভিডিও করার কী আছে? তারপর আমি ওসব ভিডিও মুছে ফেলতে বলেছি। শাকিব খানের মতে, যারা শাহেনশাহ ছবির শুটিং সেটে ছিলেন, তাদের তিনি সংবাদকর্মী মনে করেন না, ছোট ভাই হিসেবে দেখেন। সাংবাদিক হিসেবে যদি দেখতেন, তাহলে নাকি তাদের শুটিং স্পটে ঢুকতেই দিতেন না। জানা যায়, পরে এফডিসিতে থাকা অন্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এসে সহকারী পরিচালকদের সঙ্গে তৈরি ঝামেলার মীমাংসা করেন। এদিকে বিনোদন সাংবাদিক জিয়াউদ্দীন আলম ও সুদীপ্ত সাঈদ দুজনেই জানান, তারা পেশাগত দায়িত্ব পালন করছিলেন। শাকিব খানের এমন আচরণে তারা অবাক হয়েছেন। দেশের একজন জনপ্রিয় নায়কের কাছ থেকে এমন আচরণ কোনোভাবেই কাম্য নয়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

১ মিনিট অন্ধকার থাকবে গোটা দেশ

সোনাগাজীতে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা

সাংবাদিককে পেটালেন ছাত্রলীগ নেতা

কাতারে ৪৩৪ মিলিয়ন ডলারে নির্মিত গোলাপ জাদুঘরের উদ্বোধন

ওয়াসিম হত্যায় মামলা করলো সিকৃবি

উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় এক গুচ্ছ সরকারী সিদ্ধান্ত

জেট এয়ারওয়েজ চেয়ারম্যানের পদত্যাগ

শহিদুল আলমের মামলা নিয়ে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চান রাষ্ট্রপক্ষ

আইএস, আল কায়েদার হুমকিতে দিল্লি, মুম্বই, গোয়াতে সতর্ক পুলিশ

ধর্মের ভিত্তিতে ঐক্য বিনষ্ট করা সংবিধান সম্মত নয়: কামাল

মহানগর বিএনপি নেতাকে তুলে নিয়ে গেছে সাদা পোশাকধারীরা, রিজভীর বিবৃতি

ডিজিটাল গুপ্তচররা যেভাবে কতৃত্ববাদী সরকারের পক্ষে যুদ্ধ করে

রিয়েলিটি টিভি শো বাতিলের আহ্বান পামেলা এন্ডারসনের

ক্ষমতা ধরে রাখার চেষ্টা তেরেসা মে’র

কুষ্টিয়ায় স্কুলছাত্রী অপহরণ মামলায় ১৪ বছরের কারাদন্ড

প্রবৃদ্ধি ৮ ভাগ অর্জন করতে যাচ্ছি: প্রধানমন্ত্রী