ধনবাড়ীতে ছাত্রাবাসে ডেকে নিয়ে গণধর্ষণ

বাংলারজমিন

মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি | ৯ নভেম্বর ২০১৮, শুক্রবার
 ধনবাড়ীতে এসএসসি পরীক্ষার্থী এক ছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় ৩ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ। ধনবাড়ী নওয়াববাড়ী লিচু বাগান ছাত্রাবাসে নিয়ে ১১ জন মিলে পালাক্রমে রাতভর গণধর্ষণ করেছে ওই এসএসসি পরীক্ষার্থী ছাত্রীকে। গণধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থী ধনবাড়ী সরকারি নওয়াব ইনস্টিটিউশন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। ন্যক্কারজনক এ ঘটনায় গতকাল গণধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ১১ জনের বিরুদ্ধে ধনবাড়ী থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ধনবাড়ী থানা পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার জানান, গত ২৭শে অক্টোবর (শনিবার) ওই শিক্ষার্থীকে পরীক্ষার সাজেশন দেয়ার কথা বলে মোবাইলে ডেকে নিয়ে ধনবাড়ীর নওয়াববাড়ী লিচু বাগান ছাত্রাবাসে নিয়ে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। পরদিন রোববার সকালে মেয়েটিকে ধর্ষণের এ ঘটনা কাউকে না বলার হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।
ধর্ষণের এ ঘটনা কাউকে জানালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ ঘটনার দৃশ্য ছেড়ে দেয়ারও হুমকি দেয়া হয়। পরে মেয়েটি বাসায় গিয়ে তার বাবা-মায়ের কাছে পুরো ঘটনাটি খুলে বলে। এদিকে ধর্ষণের এ ঘটনাটি প্রভাবশালী মহলের চাপে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় আসামি পক্ষ। অবশেষে গত বুধবার বিকালে ধর্ষিতার বাবা পুলিশ পাহারায় ধনবাড়ী থানায় গিয়ে ১১ জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেন। এদের মধ্যে ৭ জন ধনবাড়ী সরকারি নওয়াব ইনস্টিটিউশন উচ্চ বিদ্যালয়, ৩ জন ধনবাড়ী কলেজিয়েট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় এবং ১ জন ধনবাড়ী সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী বলে পুলিশ জানায়। আসামিদের গ্রেপ্তারের স্বার্থে এর বেশি পরিচয় জানাতে অস্বীকৃতি জানায় থানা পুলিশ।
ধনবাড়ী থানার ওসি মজিবর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গণধর্ষণের ঘটনায় ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে ধনবাড়ীর নওয়াববাড়ী লিচু বাগান ছাত্রাবাসের ১১ জন  শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন। তিনি আরো জানান, ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে এবং ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেয়েটিকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বাংলাদেশকে এখন সবাই সম্মানের চোখে দেখে

এরপরও মুক্তিযোদ্ধা সার্টিফিকেট পেলাম না

রাজনৈতিক গোষ্ঠী ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে ধর্মের অপব্যবহার করছে

সেই চালক-হেলপারের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

তৃতীয় ধাপে ভোট পড়েছে ৪১ দশমিক ৪১ শতাংশ

কালরাত স্মরণে ব্ল্যাকআউট

সরকার ছদ্মবেশে একদলীয় বাকশাল প্রতিষ্ঠা করেছে

শহিদুল আলমের মামলায় হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত হয়নি

সাহসিকতা ও সেবায় পুরস্কার পাচ্ছেন ৫৯ সদস্য

ঘুষ না খাওয়ার শপথ পড়ালেন অর্থমন্ত্রী

মৌলভীবাজার যুবলীগের কমিটিতে ছাত্রদল নেতা!

মঠবাড়িয়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

মাদক পাচার ও বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শরণার্থী

ফেল থেকে পাস ৮ হাজার শিক্ষার্থী

ক্রাইস্টচার্চের ঘটনায় সর্বোচ্চ পর্যায়ের তদন্তের ঘোষণা

ভিকারুননিসায় অধ্যক্ষ নিয়োগে বাধা নেই