সিলেটে বিএনপির আলোচনা সভা

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে | ৮ নভেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
ঐতিহাসিক ৭ই নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে বুধবার বিকেলে সিলেট নগরীর সোবহানীঘাটস্থ একটি কমিউনিটি সেন্টারে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিলেট মহানগর বিএনপির সহসভাপতি জিয়াউল গনি আরেফিন জিল্লুরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম। সিলেট জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আহাদ খান জামালের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর বিএনপির সহসভাপতি কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েছ লোদী, জেলা বিএনিপর সহসভাপতি একেএম তারেক কালাম, আজির উদ্দিন চেয়ারম্যান, জেলা বিএনপির উপদেষ্টা মাজহারুল ইসলাম ডালিম, মহানগর বিএনপির উপদেষ্টা সৈয়দ বাবুল হোসেন, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমদ, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মুকুল মুর্শেদ, জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক অ্যাডভোকেট ফখরুল হক, মহানগর বিএনপির প্রচার সম্পাদক শামীম মজুমদার, অ্যাডভোকেট আল আসলাম মুমিন, হাবিব হোসেন শিলু, অধ্যক্ষ নিজাম উদ্দিন তফাদার, সুরমান আলী, মির্জা বেলায়েত হোসেন লিটন, লায়েছ আহমদ, আফজল উদ্দিন, ওহিদ তালুকদার, হাবিবুর রহমান হাবিব, জেবরুল হাসান ফাহিম, লোকমান আহমদ, আবদুল মালেক, অ্যাডভোকেট ইসরাফিল, আবদুল লতিফ খান, আবদুস সত্তার আমিন, আবদুল ওয়াহিদ, শাহ নেওয়াজ বখত তারেক, কামাল হাসান জুয়েল, সহিবুর রহমান সুজান, মফিজুর রহমান জুবেদ, আবদুস সবুর, সাগর আহমদ কয়েছ, উজ্জ্বল রঞ্জন, জিয়াউর রহমান দিপন, মোতাহের আলী মাখন, ময়নুল ইসলাম মঞ্জু, মল্লিক আহমদ, দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, দেলোয়ার হোসেন রানা, ময়নুল হক স্বাধীন, আলমগীর বখত সুয়েব, লুৎফুর রহমান, মকবুল হোসেন, জাবেদ আহমদ জীবন, কুমকুম বেগম প্রমুখ। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক দিলদার হোসেন সেলিম বলেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বদৌলতেই বাংলাদেশে এক দলীয় শাসন বাকশালের পরিবর্তে বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তন হয়েছিল। শহীদ জিয়া বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তন করেছিলেন বলেই শেখ হাসিনা আজকে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হতে পেরেছেন, এজন্য তার শহীদ জিয়ার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকা উচিত। সভায় বক্তারা উচ্চ আদালতের জামিন থাকা সত্ত্বেও সিলেট জেলা বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক আ.ফ.ম কামাল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মুরাদ হোসেন, সদর উপজেলা বিএনপির ১ম যুগ্ম সম্পাদক ফারুক আহমদ, জেলা বিএনপির সদস্য ওয়ারিছ আলী, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমনসহ ২৪ জন নেতাকর্মীকে জেলে প্রেরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তাদের মুক্তি দাবি করেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মার্চে জাতীয় কাউন্সিল করতে পারে বিএনপি

জাপানে বাংলাদেশি আশ্রয়প্রার্থীর ছবি নিয়ে তোলপাড়

দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়ার নির্দেশ

প্রতি তিনজনে একজন নারী পারিবারিক সহিংসতার শিকার

বর্বরতা!

ঐক্যফ্রন্টের জাতীয় সংলাপ ৬ই ফেব্রুয়ারি

জানুয়ারিতে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে ১৩০০ রোহিঙ্গা

প্লাস্টিক ও গার্মেন্টস অ্যাক্সেসরিজ মেলার উদ্বোধন

বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গারা ভারতীয় পাসপোর্টে যাচ্ছে সার্বিয়া

সালমান এফ রহমানকে উপদেষ্টা করায় প্রধানমন্ত্রীকে এফবিসিসিআই ও ঔষধ শিল্প সমিতির অভিনন্দন

৮৮ ‘বাংলাদেশির’ ভারতীয় নাগরিকত্বের দরখাস্ত বিবেচনাধীন

রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ, ১৫ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদ গঠন

সন্ত্রাস-দুর্নীতিতে জিরো টলারেন্স সুশাসনের অঙ্গীকার

আশা করি বিএনপি সংসদে যাবে: আইনমন্ত্রী

হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া ১০ হাজার টাকা কমলো

মার্চে প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা