মিয়ানমারে আরো কিছু করার ছিল ফেসবুকের

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৬ নভেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:১১
মিয়ানমারে সহিংসতার বিষয়ে ফেসবুকের আরো বেশি কিছু করার ছিল বলে স্বীকার করেছে কর্তৃপক্ষ। তারা স্বীকার করেছে, সহিংসতা উস্কে দেয়া প্রতিরোধের ক্ষেত্রে তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক যথেষ্ট কিছু করতে পারে নি।  সান ফ্রান্সিসকোভিত্তিক অলাভজনক প্রতিষ্ঠান বিজনেস ফর সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটি (বিএসআর) ফেসবুকের পক্ষে একটি মানবাধিকার বিষয়ক রিপোর্ট তৈরি করেছে। তাতে ফেসবুকের করণীয় ও দায়বদ্ধতা সম্পর্কে কিছু সুপারিশ তুলে ধরা হয়েছে। এতে কন্টেন্ট বা পোস্টের উপাদান বিষয়ক নীতি আরো কঠোরভাবে প্রয়োগ করতে বলা হয়েছে। বলা হয়েছে, মিয়ানমারের সরকারি কর্মকর্তা ও নাগরিক সমাজের গ্রুপগুলোর সঙ্গে বেশি বেশি যোগাযোগ স্থাপনের জন্য। আর নিয়মিতভাবে মিয়ানমার পরিস্থিতির অগ্রগতি সম্পর্কে নিয়মিত ডাটা প্রকাশ করতে বলা হয়েছে। ফেসবুকের প্রোডাক্ট পলিসি ম্যানেজার অ্যালেক্স ওয়ারোফকা এক ব্লগপোস্টে লিখেছেন, ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই বছরে আমরা আমাদের প্লাটফরমকে মিয়ানমারে ফুলেফেঁপে ওঠা বিভক্তি ও সহিংসতা ছড়িয়ে দেয়া থেকে যথেষ্ট করতে পারি নি। আমরা স্বীকার করি, আমরা এক্ষেত্রে আরো কিছু করতে পারি এবং আমাদের আরো কিছু করা উচিত।

বিএসআর সতর্ক করেছে যে, ২০২০ সালে মিয়ানমারে ফের নির্বাচন হওয়ার কথা। সে সময় ভুল তথ্য পরিবেশন মোকাবিলার জন্য ফেসবুককে প্রস্তুত থাকতে হবে। এ ছাড়া মিয়ানমারে হোয়াটসঅ্যাপের মতো মিডিয়াও ব্যবহার হতে পারে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন