ডিজিটাল আইন

৯টি ধারা সংশোধনী চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫৮
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিতর্কিত ৯টি ধারা সংশোধন চেয়ে সরকারকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। গতকাল সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এস এম জুলফিকার আলী রেজিস্ট্রি ডাকযোগে তথ্যমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, তথ্য সচিব এবং আইন সচিবের উদ্দেশ্যে এ নোটিশ পাঠান। নোটিশে আগামী ৩০ দিনের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৮, ২১, ২৫, ২৮, ২৯, ৩১, ৩২, ৪৩ ও ৫৩- এই ৯টি ধারার সংশোধন অথবা বাতিল চাওয়া হয়েছে। অন্যথায় সংবিধানের ১০২ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী হাইকোর্টে এ বিষয়ে রিট আবেদনের মাধ্যমে প্রতিকার চাওয়া হবে বলে নোটিশে জানানো হয়।

নোটিশে বলা হয়েছে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৮, ২১, ২৫, ২৮, ২৯, ৩১, ৩২, ৪৩ ও ৫৩ ধারাগুলো গণমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং বাকস্বাধীনতা সুরক্ষার অন্তরায় বলে সাংবাদিক নেতারা বিভিন্ন সভা-সমাবেশ, মানববন্ধন ও সেমিনারের মাধ্যমে দাবি করেছেন। আইনের ওই ধারাগুলো নিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে এবং বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠে। এই ধারাগুলো সংবাদ কর্মীদের স্বাধীনভাবে সংবাদ পরিবেশনে এবং প্রকাশে বাধার অন্তরায় হবে বলে বিশিষ্ট দেশবরেণ্য ব্যক্তি ও পত্রিকার সম্পাদকরা অভিমত প্রকাশ করেছেন। নোটিশে বলা হয়েছে, এই লিগ্যাল নোটিশের ৩০ দিনের মধ্যে আইনের ওই ধারাগুলো বাতিল অথবা সংশোধনের উদ্যোগ গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হলো।
অন্যথায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের এই ধারাগুলো বাতিল এবং সংশোধনের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে সংবিধানের ১০২ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রিট দাখিল করে যথোপযুক্ত প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চাওয়া হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

পদ হারালেন জিএম কাদের

গণপরিবহনে বিশৃঙ্খলার নেপথ্যে

অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন মেনন, লাইসেন্স ছিল না চালকের

পতাকা উত্তোলন দিবস আজ

ওয়াশিংটনে মোমেন-পম্পেও বৈঠক ১০ই এপ্রিল

ইন্টারনেটে ব্ল্যাকমেইল

বরিশালে দুর্ঘটনায় মা-ছেলেসহ নিহত ৭

ডাকসুর নেতৃত্ব দেবেন নুর, থাকবেন আন্দোলনেও

ঐক্যফ্রন্টের কর্মী সমাবেশ এপ্রিলে

দুই মিনিট স্তব্ধ নিউজিল্যান্ড, সংহতি অস্ট্রেলিয়ারও

বিমানবন্দরে অস্ত্রসহ আওয়ামী লীগ নেতা আটক

বিয়ের পিঁড়িতে ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজ

যক্ষ্মা: ২৬ শতাংশ রোগী শনাক্তের বাইরে

ওবায়দুল কাদের শঙ্কামুক্ত

কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ীসহ নিহত ৩

দর্শকশূন্যতার বড় কারণ হলের বাজে পরিবেশ