ভারতে বিএনপি নেতা সালাহ উদ্দিনের রায় তৃতীয় দফা পেছালো

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:০৮
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাহ উদ্দিন আহমেদের বিরুদ্ধে ভারতে অনুপ্রবেশের ঘটনায় দায়ের করা মামলার রায় গতকালও ঘোষণা করা হয়নি। রায় ঘোষণার পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৯ই নভেম্বর। এনিয়ে সালাহ উদ্দিনের মামলার রায়ের তারিখ তৃতীয় দফা পেছানো হয়েছে। সালাহ উদ্দিনের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, রায় ঘোষণার পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ৯ই নভেম্বর। বিএনপি নেতা সালাহ উদ্দিনের আইনজীবী এসপি মহন্ত বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিন আদালতে সময় আবেদন করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রাজীব নাথ। পরে আদালত তা মঞ্জুর করে আগামী ৯ই নভেম্বর রায় ঘোষণার নতুন দিন ধার্য করেন। এর বেশি কিছু বলতে চাননি তিনি।
এর আগে গত ২৫শে জুন উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে আদালত ১৩ই আগস্ট রায়ের তারিখ ঘোষণা করেন। কিন্তু পরে তা পিছিয়ে ২৮শে সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করা হয়। ওই দিন ১৫ই অক্টোবর নির্ধারণ করা হয়। গতকাল রায়ের তারিখ আরেক দফা পেছানো হয়েছে। ১৯৪৬ সালের ১৪ ধারা অনুযায়ী, অবৈধ অনুপ্রবেশ আইনে করা মামলায় ২০১৫ সালের ২২শে জুলাই আদালতে অভিযোগপত্র দেয় শিলং পুলিশ। এতে বলা হয়, বিএনপি নেতা সালাহ উদ্দিন আহমেদের শিলংয়ে আকস্মিক উপস্থিতি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। বাংলাদেশে বেশ কয়েকটি অভিযোগের বিচার এড়াতে তিনি ভারতে এসেছেন। এ মামলায় আদালত সালাহ উদ্দিন আহমেদের বক্তব্য রেকর্ড করেন। এ ছাড়া তাকে শিলংয়ে পাওয়ার পর যে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়, সেই হাসপাতালের দুই চিকিৎসকসহ ১০ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত। এদিকে, ২০১৫ সালের ১০ই মার্চ ঢাকার উত্তরা থেকে অপহৃত হন সালাহ উদ্দিন আহমেদ। অপহরণের প্রায় দুই মাস পর ২০১৫ সালের ১১ই মে ভোরে শিলংয়ের গলফ লিংক এলাকায় ঘোরাঘুরির সময় পুলিশ তাকে আটক করে। ফরেনারস অ্যাক্টের আওতায় মামলার তদন্ত শেষে মেঘালয় পুলিশ ২০১৫ সালের ৩রা জুন সালাহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়। এরপর বিচার শুরু হয়।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন