বিকল্প ধারার স্ববিরোধিতা

শেষের পাতা

বিশেষ প্রতিনিধি | ১৫ অক্টোবর ২০১৮, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৩৯
কেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে নেই বিকল্প ধারা? রাজনীতিতে এই মুহূর্তে আলোচিত এক প্রশ্ন। শনিবার বিকল্প ধারার তিন শীর্ষ নেতা এক সংবাদ সম্মেলনে এই প্রশ্নের জবাব দেন। বিকল্প ধারার প্রেসিডেন্ট প্রফেসর বি. চৌধুরী, মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান ও যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী কথা বলেন ওই সংবাদ সম্মেলনে। তাদের সাফ কথা- মূলত দুটি কারণে তারা জোটে যোগ দেননি 
। ১. প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে স্বাধীনতাবিরোধীদের সঙ্গে সম্পর্ক, ২. ক্ষমতার ভারসাম্য। কিন্তু নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নার সঙ্গে মাহী বি. চৌধুরীর একটি ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার পর এই প্রশ্ন সামনে এসেছে যে, বিকল্প ধারা কি জোটে যায়নি, না তাদেরকে নেয়া হয়নি। কারণ ওই ফোনালাপে মাহী বি. চৌধুরীকে বলতে শোনা যায়, আমরা বেরিয়ে যাইনি, আমাদের বের করে দিলেন আপনারা। আপনারা মিটিং করলেন, আমাদের ডাকলেনই না।
আপনারা ঘোষণা দেবেন, বি. চৌধুরীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন? আপনি আমাকে বলেন, বি. চৌধুরী সাহেব কামাল হোসেনের বাসায় যাবেন। অথচ উনি বাসায় ছিলেনই না। একবার ফোন করে দুঃখ প্রকাশ পর্যন্ত করেননি। যৌথ ঘোষণা দেবেন, আমাদের জানিয়েছেন?

আমরা কিন্তু ঐক্য থেকে বেরিয়ে আসিনি। ঐক্য কে চায় না, তা জাতির সামনে পরিষ্কার হয়ে গেছে। ফোনালাপে মাহী বি. চৌধুরী মান্নাকে উদ্দেশ্য করে এটাও বলেন, আমার মনে হয় একটা চক্রান্তের মধ্যে আপনারা ভিকটিম হয়ে যাচ্ছেন মান্না ভাই। আমার মনে বিশ্বাস থেকে বললাম, ঐক্যপ্রক্রিয়ার নামে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এখানে আমাদের জড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছিল। আমি আল্লাহর রহমতে বেঁচে গেলাম। আপনাকে দিয়ে ঘোষণাপত্র পাঠ করানো হলো। জবাবে মান্না বলেন, না, আপনি যেভাবে মনে করছেন আমি সেভাবে মনে করছি না। আজকের ঘটনার জন্য আমি মর্মাহত।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

sm mozibur

২০১৮-১০-১৫ ১২:১৬:২৫

মাহী বি চৌধুরী অতি চালাক। বি এন পির দরি দিয়ে বি এন পিকে বাধতে চায়। এবার বাপ বেটার চালাকি দেশের মানুষ দেখেছে।এখন সুবিধা পেলে হয়তো আওয়ামীলীগে যোগ দিবে। এই অতি চালাকদের মালায়শিয়ায় 'লেব্বে পান্ডাই ' বলে।

রবি

২০১৮-১০-১৫ ০৯:৪২:৪৩

তা তো আমরা আগেই বুজেছি, মাহীর পাকনামীর জন্য এমনটা হয়েছে। সে বিএনপিকে টেক্কা দিতে চায়!!! বিএনপির কাছে ১৫০ সিট দাবী করে!!! সামাজিক মাধ্যমে বিএনপি নিয়ে কুৎসা করে। সে মনে করেছিল বিএনপি এখন গ্যাড়াকলে পড়েছে, এই সুযোগে নিজেকে রথি-মহারথী ভাবা শুরু করে সে!! ঐক্য পক্রিয়ায় তারা থাকলে ভাল হত হয়ত, কিন্তু বিশ্বাস করেন, বেশ কিছুদিন থেকে মাহীর দাম্ভিক আচরণ দেশের ঐক্য কামনা করা আপামর জনগণ ভাল ভাবে নেয়নি। তাই তারা না থাকায় মানুষ খুব একটা অখুশী হয়নি।

abid

২০১৮-১০-১৫ ০২:১৩:১৪

Dear Mr B choudhury keep your position firm you are in right trak we respect your firmness dr kamal is not a lawyer is a layer and word breaker low minded.

আপনার মতামত দিন

নির্বাচন বর্জন নয়, কেন্দ্র পাহারা দিন

হঠাৎ কবিতা খানমের সুর বদল

ফাঁকা মাঠে গোল নয়

রেজা কিবরিয়া ঐক্যফ্রন্টে

সংখ্যালঘু নির্যাতনকারীদের নির্বাচনে মনোনয়ন না দেয়ার দাবি

‘ফের বাংলাদেশের বিরুদ্ধে’

মামলার বাদী যখন খুনি

ক্ষমতায় গেলে যেসব কাজ করবে ঐক্যফ্রন্ট জানালেন ডা. জাফরুল্লাহ

‘নতুন করে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে’

বিএনপিতে মনোনয়ন যুদ্ধে সাবেক ছাত্র নেতারা

তলাফাটা নৌকা নিয়ে কতদূর যেতে পারেন দেখাতে চাই

সিলেটে জামায়াতকে ছাড় দিতে চায় না বিএনপি

রাষ্ট্র ভিন্নমতাবলম্বীদের সহ্য করতে পারছে না

নয়া মার্কিন দূত মিলার ঢাকা আসছেন আজ

দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে নাগরিক ঐক্য

ভোট পর্যবেক্ষণের আবেদন ২১ নভেম্বরের মধ্যে