‘বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী পরিচিতি ও ব্যবস্থাপনা কৌশল’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১২ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার
জীববৈচিত্র্যে ভরপুর বাংলাদেশ প্রাকৃতিকভাবে অনেক সমৃদ্ধ। সচেতনতা, ব্যবস্থাপনা কৌশল ও অবহেলাসহ বিভিন্ন কারণে কমে আসছে বন ও বন্যপ্রাণী। ‘বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী পরিচিতি ও ব্যবস্থাপনা কৌশল’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এ কথাগুলোই তুলে ধরেন বক্তারা।
মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এবং ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেড, চ্যানেল আইয়ের পরিচালক মুকিত মজুমদার বাবু, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মোস্তফা ফিরোজ ও ড. মনিরুল এইচ খান, সাবেক প্রধান বন সংরক্ষক ইশতিয়াক উদ্দিন আহমেদ, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. মিহির কান্তি মজুমদার, সাবেক প্রধান বন সংরক্ষক ইউনুস আলী, সাবেক বন সংরক্ষক অসিত রঞ্জন পাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. নুর জাহান সরকার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল ইসলাম, বাংলাদেশ প্রাণিবিজ্ঞান সমিতির সভাপতি ড. গুলশান আরা লতিফা এবং বইটির লেখক ড. তপন কুমার দে সহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অভিজ্ঞজনেরা।
অনুষ্ঠানে আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, ‘বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী পরিচিতি ও ব্যবস্থাপনা কৌশল’ গ্রন্থটি ১১৪৮ পৃষ্ঠার একটি চমৎকার প্রকাশনা। কঠিন এ কাজের জন্য নেচার কনজারভেশন সোসাইটি ও প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনকে আমি ধন্যবাদ জানাই। মন্ত্রী আরো বলেন, বন ও বন্যপ্রাণী নিয়ে যদি কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান গবেষণা করতে চায় তাহলে মন্ত্রণালয় থেকে তাদেরকে সহযোগিতা করা হবে। মুকিত মজুমদার বাবু বলেন, বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী নিয়ে লেখা বইগুলোর মধ্যে ড. তপন কুমার দে’র ‘বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী পরিচিতি ও ব্যবস্থাপনা কৌশল’ একটি উল্লেখযোগ্য বই। বইটির প্রকাশনার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকতে পেরে আমরা আনন্দিত।
বন্যপ্রাণীর প্রতি মানুষের সচেতনতা সৃষ্টিতে বইটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। বইটির লেখক ড. তপন কুমার দে বলেন, আমি দেশের বিভিন্ন বনাঞ্চল ও রক্ষিত এলাকার বর্ণনা, জীববৈচিত্র্য, ইকোট্যুরিজমের সুযোগ-সুবিধাদি; বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনার আধুনিক কৌশল ও আবাসস্থল উন্নয়ন; বন্যপ্রাণীর খাদ্য, চিকিৎসা সেবা, লালন-পালন ও পরিবহন সম্পর্কে বইটিতে বিস্তারিত বর্ণনা প্রদানের চেষ্টা করেছি।
গ্রন্থটিতে সহজ সাবলীল বাংলা ভাষায় রঙিন ছবিসহ বাংলাদেশের অধিকাংশ স্তন্যপায়ী, পাখি, সাপ, গিরগিটি, অঞ্জন, কচ্ছপ-কাছিম ও ব্যাঙের প্রজাতিভিত্তিক বর্ণনা, জীবনদশা, সামগ্রিক জীবন প্রণালির ও ব্যবস্থাপনা কৌশলের বর্ণনা দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া সহস্রাধিক প্রাণীর রঙিন ছবি, আবাসস্থল বিস্তৃতি, শনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য, বংশবিস্তার, খাদ্য, স্বভাবসহ অন্যান্য তথ্যাদিও রয়েছে। গ্রন্থটি পড়ে বন্যপ্রাণিবিদ, ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, গবেষক, বন বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সাধারণ মানুষ বিশেষভাবে উপকৃত হবেন। গ্রন্থটির প্রকাশনা ও প্রচারে রয়েছে- নেচার কনজারভেশন সোসাইটি এবং প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নির্বাচনের আগে সোস্যাল মিডিয়ার ওপর ‘ক্র্যাকডাউন’

মাঠ দখলে রাখতে টানা কর্মসূচিতে থাকবে আওয়ামী লীগ

ঐক্যফ্রন্টের গোড়াতেই গলদ

ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে সরকার বিচলিত

বি. চৌধুরী-মাহীকে অব্যাহতি দিয়ে বিকল্পধারার নতুন কমিটি

একটি কফিন ঘিরে ভালোবাসার মিছিল

সিলেট থেকেই ঐক্যযাত্রা, অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা

সমন্বিত অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব চুক্তির প্রস্তাব ভারতের

প্রার্থী নিয়ে চলছে যোগ-বিয়োগ

প্রতিমা বিসর্জনে শেষ হলো দুর্গোৎসব

কামাল হোসেনের সামর্থ্য জানা আছে

প্রধানমন্ত্রীর ওমরাহ পালন

মাওলানা হাবিবুর রহমানের ইন্তেকাল জানাজায় মানুষের ঢল

নতুন নম্বরে রাস্তায় নামছে পুরনো অটোরিকশা

উচ্চমূল্যে মালয়েশিয়াকে ফ্ল্যাট বানানোর কাজ, প্রতি বর্গফুটে খরচ লাগবে ৩৪৩৫ টাকা

‘মহেশখালীতে এবার শান্তি ফিরবে’