খুলনায় বিএনপি’র সমাবেশ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে | ১২ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার
গ্রেনেড হামলা মামলার ফরমায়েশি রায় প্রত্যাখ্যান করে বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহানগর সভাপতি সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, গত ১০ বছরে দেশে যতো নারকীয় হত্যাকাণ্ড, খুন, গুম, দুর্নীতি, অনিয়ম, দুরাচার, স্বেচ্ছাচারিতা হয়েছে তার জন্য শেখ হাসিনার বিচার হবে এবং তাকে কারাগারে যেতে হবে। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা জানেন আবারও ক্ষমতায় যেতে না পারলে তার পরিণতি কি হবে। এ জন্য যেকোনো উপায়ে বিএনপিকে নির্বাচনের বাইরে রেখে তারা মসনদ দখলের পাঁয়তারা করছে। কিন্তু সে সুযোগ আর তারা পাবে না। আগামী এক মাসের ভেতরে পরিস্থিতি পাল্টে যাবে এবং জনগণের বিজয় হবে। ষড়যন্ত্রমূলকভাবে দেশনায়ক তারেক রহমানসহ বিএনপির নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে ফরমায়েশি আদালতের রায়ের প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী গতকাল দুপুরে নগরীর কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তৃতায় নগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু এ কথা বলেন।   বেলা ১১টার দিকে শুরু হওয়া সমাবেশস্থলের আশেপাশে সকাল থেকেই ছিল বিপুলসংখ্যক পুলিশের কর্ডন। প্রশাসনের কড়া নজরদারির মধ্য দিয়ে দলের নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ডভাবে সমাবেশস্থলে হাজির হন। নগরীর প্রতিটি থানায়, ওয়ার্ডে দলীয় নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি পুলিশের তল্লাশি ও গণগ্রেপ্তার অভিযান এবং গায়েবি মামলা দায়েরের তীব্র নিন্দা জানান নজরুল ইসলাম মঞ্জু।
এদিকে সকাল ১০টায় কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত খুলনা জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে খুলনা জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট এসএম শফিকুল আলম মনা বলেছেন, এ রায় উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে অনির্বাচিত সরকার আদালতকে ব্যবহার করে আরেকটি ন্যক্কারজনক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন এবং আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এ রায়ের মোকাবিলা করা হবে বলে ঘোষণা দেন তিনি।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নির্বাচনের আগে সোস্যাল মিডিয়ার ওপর ‘ক্র্যাকডাউন’

মাঠ দখলে রাখতে টানা কর্মসূচিতে থাকবে আওয়ামী লীগ

ঐক্যফ্রন্টের গোড়াতেই গলদ

ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে সরকার বিচলিত

বি. চৌধুরী-মাহীকে অব্যাহতি দিয়ে বিকল্পধারার নতুন কমিটি

একটি কফিন ঘিরে ভালোবাসার মিছিল

সিলেট থেকেই ঐক্যযাত্রা, অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা

সমন্বিত অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব চুক্তির প্রস্তাব ভারতের

প্রার্থী নিয়ে চলছে যোগ-বিয়োগ

প্রতিমা বিসর্জনে শেষ হলো দুর্গোৎসব

কামাল হোসেনের সামর্থ্য জানা আছে

প্রধানমন্ত্রীর ওমরাহ পালন

মাওলানা হাবিবুর রহমানের ইন্তেকাল জানাজায় মানুষের ঢল

নতুন নম্বরে রাস্তায় নামছে পুরনো অটোরিকশা

উচ্চমূল্যে মালয়েশিয়াকে ফ্ল্যাট বানানোর কাজ, প্রতি বর্গফুটে খরচ লাগবে ৩৪৩৫ টাকা

‘মহেশখালীতে এবার শান্তি ফিরবে’