যৌন হেনস্থা করার অভিযোগে ইস্তফা দিচ্ছেন, এম জে আকবর?

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
'#মিটু' আন্দোলন দাবানলের মত ভারতে ছড়িয়ে পড়েছে। যৌন হেনস্থার শিকার হওয়ার অভিযোগ তুলে নারীরা এগিয়ে আসছেন। তবে এবার তা রাজনীতির অঙ্গনের ঢুকে পড়েছে।
সম্প্রতি ৬ জন মহিলা সাবেক সাংবাদিক ও সম্পাদক এম জে আকবরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগে সরব হয়েছেন। আকবর ২০১৪ সালে নির্বাচনের আগে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। পরে রাজ্যসভার সদস্য মনোনীত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি মোদী মন্ত্রিসভার পররাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী।

নয়াদিল্লি সুত্রের খবর আকবরকে নিয়ে অস্বস্তি তৈরি হয়েছে বিজেপিতে। ফলে তাকে ইস্তফা দিতে বলা হতে পারে।
বর্তমানে নাইজেরিয়া সফরে রয়েছেন আকবর। তাঁকে সফর কাটছাঁট করে ফিরে আসতে বলা হয়েছে বলেও কোনও কোন মহল থেকে বলা হচ্ছে।  

সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের দাবি, এম জে আকবরকে নিয়ে বড় ঘোষণাও হতে পারে। আকবরের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রকাশ্যে আসতেই তার পদত্যাগের দাবিতে বিরোধীরা সরব হয়েছে। বিজেপির শরিক শিবসেনাও তদন্ত দাবি করেছে।
বৃহষ্পতিবার শিবসেনার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সরকার যদি স্বচ্ছ্বতায় বিশ্বাস করে তবে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা উচিত।

'#মিটু' আন্দোলনকে সমর্থন করে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেছেন, প্রকাশ্যে যে তথ্য উঠে আসছে তা খুবই মারাত্মক। সিপিআইএমও আকবরের ইস্তফা দাবি করে বলেছে, আকবরের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তাতে তার মন্ত্রিত্ব থেকে  ইস্তফা দেওযা উচিত।

গত মঙ্গলবার সাংবাদিক প্রিয়া রামানি ও প্রেমা সিং বৃন্দা অভিযোগ করেছেন, আকবরের অধীনে কাজ করার সময় তারা যৌন হেনন্থার শিকার হয়েছেন। এর পরই আরও কয়েকজন নারী সাংবাদিক আকবরের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ করেছেন।

রামানি প্রথম বলেন, একজন সম্পাদক তাকে মধ্যরাতে কাজ নিয়ে কথা বলার জন্য  হোটেলে ডেকে পাঠিয়েছিলেন। তিনি প্রত্যাখ্যান করায় আমাকে নানাভাবে হয়রাণির শিকার হতে হয়েছে। কিন্তু নানা বাধ্যবাধকতার জন্য তখন মুখ খুলতে পারিনি।

পরের দিনই রামানি টুইট করে জানান, সেই সম্পাদক হলেন এম জে আকবর। আকবর দীর্ঘ সময় কলকাতা থেকে প্রকাশিত ট্রেলিগ্রাফ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন।  আরেক নারী সাংবাদিক অভিযোগ করেছেন, তাকে একবার আকবর আদর করার চেষ্টা করেছেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এমন নির্বাচন হওয়া উচিত যাতে বৈধতার সংকট থেকে শাসনব্যবস্থা মুক্ত হয়

সেপ্টেম্বরে খাসোগি হত্যার নীলনকশা তৈরি হয়

খালেদা জিয়ার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড চায় দুদক

মানহানির মামলায় মইনুল হোসেন কারাগারে

মইনুলকে গ্রেপ্তার জরুরি ছিল- কাদের

ঢাবি’র ‘ঘ’ ইউনিটের উত্তীর্ণদের নিয়ে আবার পরীক্ষা

সরকারের সাম্প্রতিক পদক্ষেপে ড. কামালের উদ্বেগ

সেলিম ওসমানকে অব্যাহতি

কোটা আন্দোলনের চার নেতাকে ছাত্রলীগের মারধর

জয়-পরাজয়ে অন্তরায় কোন্দল

পার্বত্য অঞ্চলের শান্তিতে হুমকি ৯৬৯-এর তৎপরতা

সিলেটে রাতে ধরপাকড়ের অভিযোগ

সিলেটে মাজার জিয়ারতে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা ( ভিডিও)

এবার মোবাইল অ্যাপ দেবে অ্যাম্বুলেন্সের সন্ধান

মধ্যরাতে তরুণীর সঙ্গে পুলিশের অশোভন আচরণ ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ

সৌদিতে ‘যৌনদাসী’ হিসেবে বিক্রি হচ্ছে বাংলাদেশি নারীরা