রায় ঘিরে রাজধানীতে কঠোর নিরাপত্তা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার, ১০:১৫ | সর্বশেষ আপডেট: ৪:২৭
২০০৪ সালের ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে কেন্দ্র করে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পুলিশ-র‌্যাবের সমন্বয়ে রাজধানীতে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পুরান ঢাকার বেশ কয়েকটি মোড়ে পথচারিতে চলাচল সীমিত করা হয়েছে। একইসঙ্গে দেহতল্লাশী করছে তাদের। বুধবার সকাল থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বিশেষ নিরাপত্তার এই চিত্র দেখা গেছে।

রাজধানীর ঘুরে দেখা গেছে, যাত্রাবাড়ী এলাকায় সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে রয়েছেন  ডেমরা জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার ইফতেখারুজ্জামান ইফতি। তিনি বলেন, সব ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে মাঠে কাজ করছে পুলিশ। দয়াগঞ্জ মোড়ে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মেতায়েন করা হয়েছে।
পুলিশ বন্দুক তাক করে বুলেট প্রুফ জ্যাকেট পরে অবস্থান নিয়েছে। পাশেই রয়েছে অ্যাম্বুলেন্সসহ পুলিশের গাড়ি।
মতিঝিল, দৈনিক বাংলা মোড়, পুরানা পল্টন, নয়া পল্টন, কাকরাইল কদম ফোয়ারা, মৎস ভবন, শাহবাগ এলাকায় দেখা যায়, মোড়ে মোড়ে বিপুল সংখ্যক পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে। সেইসঙ্গে রায়ট কার, এপিসি কারসহ জলকামানের গাড়ি প্রস্তুত রাখা হয়েছে। একইসঙ্গে র‌্যাব টহল দিচ্ছে। পুলিশ বলছে, কেউ যাতে নূন্যতম বিশৃঙ্খলা করতে না পারে সেজন্য এতো আয়োজন।
রাজধানীর উত্তরায়ও বিপুল সংখ্যক র‌্যাব ও পুলিশ উত্তরা এলাকায় নিরাপত্তা বলয় করেছে। একইসঙ্গে পুলিশের জল কামানসহ বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট ও র‌্যাবের ডগ  স্কোয়াড মোতায়েন রয়েছে।  
সবচেয়ে বেশি নিরাপত্তা বলয় তৈরী করা হয়েছে, চাঁনখার পুল থেকে পুরান ঢাকায়। কেন্দ্রিয় কারাগারের আশপাশের এলাকায় প্রায় ৫০০ পুলিশ মোতায়েন থাকতে দেখা গেছে। একইসঙ্গে   জলকামান, রায়ট কার ও এপিসি কারসহ বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটকেও প্রস্তুত থাকতে দেখা গেছে। ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিশেষভাবে দেখা গেছে। পুলিশের পক্ষ থেকে এই এলাকায় লোকজনকে দল বেঁধে যাতায়াত করতে নিষেধ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।
আইনশৃঙ্খলার ব্যাপারে ডিএমপি কমিশনার বলেন, কোন ধরনের নৈরাজ্য বরদাস্ত করা হবে না। কেউ নৈরাজ্য করে আতঙ্ক সৃষ্টি করার চেষ্টা করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

১৪ বছর পর আবার স্বামীকে বিয়ে করলেন নাদিয়া হোসেন

মেহেরপুরে বিএনপির নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর

হিরো আলম পর্যন্ত ইসিকে হাইকোর্ট দেখায় : ইসি সচিব

লিঙ্গগত ফারাক বিশ্বে সবচেয়ে কম আইসল্যান্ডে, দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ

গাংনীতে বিএনপি-জামায়াতের ১৯ নেতাকর্মী আটক

হাসপাতালে ভর্তি লতিফ সিদ্দিকী

৪০ হাজার শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি

সেনাবাহিনীর সঙ্গে যোগসাজশ: মিয়ানমারে শতাধিক একাউন্ট মুছে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ

নির্বাচনী প্রচারণায় কুমিল্লার পথে ঐক্যফ্রন্ট

জনগণের আস্থার জায়গা যেন ব্যাহত না হয় : সিইসি

হঠাৎ প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন মনমোহন সিং!

এনআরসিতে নাম না ওঠায় আসামে ফের আত্মহত্যা

নির্বাচন নিয়ে জনমনে অজানা ভয় ফুটে উঠেছে

শ্রীলঙ্কার রাজনৈতিক সঙ্কট সহজেই কাটছে না

ফতুল্লায় বাসায় আগুন, দগ্ধ ৯

রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে আসিয়ানের সহযোগিতা নেবে মিয়ানমার