কুষ্টিয়ায় বাসায় ঢুকে সাব-রেজিস্ট্রারকে কুপিয়ে হত্যা

এক্সক্লুসিভ

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি | ১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার
কুষ্টিয়া শহরের নিজ ভাড়া বাসায় ঢুকে সদর সাব-রেজিস্ট্রার নূর মহম্মদ শাহকে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। ইতিমধ্যে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ করতে সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের দুই কর্মচারীকে আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন। আটককৃতরা হলো অফিস পিয়ন ফারুক এবং রাব্বি। এদিকে মঙ্গলবার নিহত সাব-রেজিস্ট্রার নূর মোহম্মদ শাহের লাশের ময়নাতদন্ত শেষে অফিসের সহকর্মীদের হাতে লাশ হস্তান্তর করে পুলিশ। এরপর বেলা ২টার দিকে নিহতের নিজ কার্যালয় জেলা রেজিস্ট্রি অফিস চত্বরে গোসল, কাফন ও জানাজা শেষে মরদেহ গ্রহণকালে উপস্থিত ছিলেন- ছেলে সিফাত ইবনে নূর এবং নিহতের ছোটভাই কুড়িগ্রাম রাজারহাট উপজেলার পাড়ামওলা গ্রামের আলহাজ মজিবুর রহমান শাহর ছেলে মহসিন আলী শাহ। লাশবাহী এম্বুলেন্সটি গ্রামের বাড়ি কুড়িগ্রামের উদ্দেশে রওনা হয় বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ।


সদর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের কয়েকজন সহকর্মী জানান, সোমবার শহরের এরশাদ নগর এলাকাস্থ আন্তঃজেলা ট্রাক চোর চক্রের  মূল হোতা ও মাদারীপুর জেলা কারাগারে বন্দি মনির হোসেনের বাড়ি কেনা-বেচায় কমিশন দলিল করতে সাব-রেজিস্ট্রার নূর মহম্মদ শাহ্‌ মাদারীপুর কারাগারে গিয়েছিলেন এবং কাজ শেষে বিকাল ৪টার দিকে কুষ্টিয়াস্থ নিজ কার্যালয়ে ফিরে আসেন। ধারণা করা হচ্ছে ওই বাড়িটি ক্রয়-বিক্রয় সংক্রান্ত বিষয়ে কোনো পক্ষের বিরোধ থেকে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে।  

উল্লেখ্য, সোমবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের বাবুর আলী গেট নামক এলাকার হানিফ আলীর চারতলা ভবনের ৩য় তলার ভাড়া বাসা থেকে পুলিশ হাত-পা বাঁধা গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজিবুল হাসান তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কুষ্টিয়া সদর ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই সন্তু বিশ্বাস জানিয়েছেন, রাত সাড়ে ১০ টার দিকে বাড়ির মালিক পুলিশকে   ফোন করে সংবাদ জানান। সংবাদ পেয়ে পুলিশ সদর সাব-  রেজিস্ট্রার নূর মোহম্মদকে তার নিজ ভাড়াটে বাসার রান্না ঘর থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়। কুষ্টিয়া  জেনারেল হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজিবুল হাসান জানান, সোমবার রাত ১১টার দিকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আসার আগেই নূর মোহম্মদ শাহ মারা যান। তার দুই হাতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো রক্তাক্ত জখমের চিহ্ন রয়েছে। রশি দিয়ে হাত-পা বাঁধা ও গলায় ফাঁসের চিহ্ন আছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

দগ্ধদের দেখতে ঢামেকে প্রধানমন্ত্রী

২০০ টাকায় ২২ কেজি পেঁয়াজ, গ্রামে গ্রামে মাইকিং

চকবাজার ট্র্যাজেডিতে জাতিসংঘ মহাসচিবের শোক বার্তা

কালিহাতীতে সড়ক দুর্ঘটনায় সুজনের চাপাইনবাবগঞ্জ সভাপতিসহ নিহত ২

আইএসের শামিমার ছেলেকে লন্ডনে নিতে চান পরিবারের সদস্যরা

অন্তরঙ্গ ভিডিও ফাঁস

তেরেসা মেকে ৩ মাসের মেয়াদ বেঁধে দিলেন মন্ত্রীরা

‘দর্শক ছবিটি দেখতে আসছেন এবং কাঁদছেন’

লাশটাও যদি পাওয়া যায়

ভোট হয়েছে রাতেই, নেতাদের প্রতিও ক্ষোভ

নাটেশ্বরের ঘরে ঘরে কান্না

গাড়িতে গাড়িতে ‘গ্যাস বোমা’

রাসায়নিকের গোডাউন ওয়াহেদ ম্যানশন

সরকারকে দায়ী করে বিএনপির মন্তব্য দায়িত্বজ্ঞানহীন: তথ্যমন্ত্রী

চ্যালেঞ্জ ছুড়ে সিলেটে মাঠে ৫ বিদ্রোহী আওয়ামী লীগে দ্বিধাবিভক্তি

সড়কে মৃত্যুর মিছিল যেন স্বাভাবিক