একনেকে ৩২ হাজার কোটি টাকার ২০ প্রকল্প অনুমোদন

এক্সক্লুসিভ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | ১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২৫
জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ২০টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এসব প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৩২ হাজার ৫২৪ কোটি ৯০ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ১৫ হাজার ৪৯৪ কোটি ৩৭ লাখ টাকা, বাস্তবায়নকারী সংস্থা থেকে ১১ হাজার ৬৫৬ কোটি ২৭ লাখ টাকা এবং বৈদেশিক সহায়তা থেকে ৫ হাজার ৩৭৪ কোটি ২৬ লাখ টাকা যোগান দেয়া হবে। গতকাল রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ সভা হয়। প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা এতে সভাপতিত্ব করেন। সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।
ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলায় ঘোড়াশাল এবং পলাশ ইউরিয়া সার কারখানায় উৎপাদনে থাকায় যন্ত্রপাতিগুলো পুরাতন ও জরাজীর্ণ হয়ে গেছে এবং কারখানাগুলোর উৎপাদন খরচ বেড়ে যাওয়ায় তা অলাভজনক হয়ে পড়েছে। এ কারণেই ওই একই স্থানে নতুন একটি ইউরিয়া সারকারখানা স্থাপনের জন্য একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। প্রকল্পটির খরচ ধরা হয়েছে ১০ হাজার ৪৬০ কোটি ৯১ লাখ টাকা।
এদিকে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাসহ কুমিল্লা ও চাঁদপুরে জ্বালানি তেল সরবরাহের জন্য পাইপলাইন স্থাপনের একটি প্রকল্পও অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সহজ, সুষ্ঠু ও নিরবচ্ছিন্নভাবে জ্বালানি তেল পরিবহনের জন্যই দুই হাজার ৮৬১ কোটি টাকা ব্যয়ে এই প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে বলে জানান পরিকল্পনা মন্ত্রী।
অনুমোদিত অন্য প্রকল্পগুলো হচ্ছে- জরুরি সহায়তা প্রকল্প বিআরবি অংশ (কক্সবাজার আশ্রয় গ্রহণকারী বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের জন্য বিদ্যুতায়ন) প্রকল্প, রুরাল কানেকটিভিটি ইমপ্রুভমেন্ট (আরসিআইপি) প্রকল্প, বাংলাদেশ ইমার্জেন্সি এসিস্ট্যান্স (এলইডি অংশ) প্রকল্প, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব কেল্লা নির্মাণ, সংস্কার ও উন্নয়ন প্রকল্প, কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন উপজেলাধীন নির্মিতব্য মিঠামইন সেনা উপস্থাপনা-এর ভূমি সমতল উঁচুকরণ, ওয়েভ প্রটেকশন ও তীর প্রতিরক্ষা কাজ প্রকল্প, চট্টগ্রাম জেলাধীন রাঙ্গুনিয়া ও বোয়ালখালী উপজেলা এবং রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার কাপ্তাই উপজেলায় কর্ণফুলি ও ইছামতি নদী এবং শিলক খালসহ অন্য খালের উভয় তীরের ভাঙন থেকে রক্ষা প্রকল্প, রংপুর জেলার গঙ্গাচড়া ও রংপুর সদর উপজেলায় তিস্তা নদীর ডান তীর ভাঙন থেকে রক্ষা প্রকল্প, ক্রস বর্ডার রোড নেটওয়ার্ক ইমপ্রুভমেন্ট (বাংলাদেশ) প্রকল্প, গোবিন্দগঞ্জ-ঘোড়াঘাট-বিরামপুর-ফুলবাড়ী-দিনাজপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক যথাযথ মানে উন্নতিকরণ প্রকল্প, কক্সবাজার-টেকনাফ সড়ক (এন-১) উন্নয়ন প্রকল্প, খুলনা সিটি করপোরেশনের গুরুত্বপূর্ণ ও ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা উন্নয়ন ও পুনর্বাসন প্রকল্প, দেশের গুরুত্বপূর্ণ ২৫টি (সংশোধিত ৪৬টি) উপজেলা সদর স্থানে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন স্থাপন প্রকল্প, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ক্যাম্পাস স্থাপন ভূমি অধিগ্রহণ ও উন্নয়ন প্রকল্প, শহীদ এম. মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ ও ৫০০ শয্যার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সিরাজগঞ্জ স্থাপন প্রকল্প, ১২টি ক্যাডেট কলেজের অবকাঠামোগত সুবিধাদি সমপ্রসারণ প্রকল্প, পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন (কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও চাঁদপুর জেলা) প্রকল্প, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৫ নং গুদারাঘাটের নিকট শীতলক্ষ্যা নদীর ওপর কদমরসুল ব্রিজ নির্মাণ প্রকল্প এবং চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল (বেজা) বন্যা নিয়ন্ত্রণ, সড়ক কাম বেড়িবাঁধ প্রতিরক্ষা ও নিষ্কাশন প্রকল্প।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নির্বাচনের আগে সোস্যাল মিডিয়ার ওপর ‘ক্র্যাকডাউন’

মাঠ দখলে রাখতে টানা কর্মসূচিতে থাকবে আওয়ামী লীগ

ঐক্যফ্রন্টের গোড়াতেই গলদ

ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে সরকার বিচলিত

বি. চৌধুরী-মাহীকে অব্যাহতি দিয়ে বিকল্পধারার নতুন কমিটি

একটি কফিন ঘিরে ভালোবাসার মিছিল

সিলেট থেকেই ঐক্যযাত্রা, অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা

সমন্বিত অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব চুক্তির প্রস্তাব ভারতের

প্রার্থী নিয়ে চলছে যোগ-বিয়োগ

প্রতিমা বিসর্জনে শেষ হলো দুর্গোৎসব

কামাল হোসেনের সামর্থ্য জানা আছে

প্রধানমন্ত্রীর ওমরাহ পালন

মাওলানা হাবিবুর রহমানের ইন্তেকাল জানাজায় মানুষের ঢল

নতুন নম্বরে রাস্তায় নামছে পুরনো অটোরিকশা

উচ্চমূল্যে মালয়েশিয়াকে ফ্ল্যাট বানানোর কাজ, প্রতি বর্গফুটে খরচ লাগবে ৩৪৩৫ টাকা

‘মহেশখালীতে এবার শান্তি ফিরবে’