রাজশাহীতে ১৪ দলের জনসভায় বক্তারা

‘বিএনপিকে বর্গা দেয়া হচ্ছে’

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী থেকে | ১০ অক্টোবর ২০১৮, বুধবার
রাজশাহীতে নির্বাচনকে সামনে রেখে ১৪ দলের প্রথম জনসভায় শীর্ষ নেতৃবৃন্দের মুখে ২১শে আগস্ট গ্রেনেড মামলার রায়, চলমান জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বিষয়টি ঘুরেফিরে ফুটে উঠেছে। ঐক্য প্রক্রিয়ায় বিএনপির রাজনীতিকে বর্গা দেয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন। গতকাল বিকেলে সাহেবাজার বড় রাস্তায় মহানগর আওয়ামী লীগের আয়োজনে অনুষ্ঠিত ১৪ দলের জনসভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘এই রাজশাহী সেই রাজশাহী যেখাএন বাংলা ভাই সৃষ্টি হয়েছিলো। ওদের সন্ত্রাসে এই অঞ্চলের মানুষ জিম্মি হয়েছিলো। সরাদেশের মানুষ গ্রেনেড হামলার রায়ের দিকে তাকিয়ে আছে। রায়ে খালেদা-তারেক রহমানের ফাঁসি দেখতে চায় অগণিত মানুষ। ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘বিএনপিকে বড় দল জানতাম।
সে দলকে বর্গা দেয়া হবে সেটা কখনো ভাবি নি। জমি বর্গা দেয়ার কথা শুনেছি। গবাদিপশুও বর্গা দেয়া যায়। কিন্তু রাজনীতি বর্গা দেয়ার কথা শুনিনি। কোনো ষড়যন্ত্রের ঐক্য টিকবে না বলে উল্লেখ করেন তিনি। ১৪ দলের মুখপাত্র আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ‘বিজয় ছাড়া সামনে কোনো বিকল্প নেই। আমরা চাই ভোট হবে, আর ভোট দিবে জনগণ। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিলো, হত্যার বিচার করে নি তাদের মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায় না। নির্বাচন হবে সংবিধানের আলোকে, শেখ হাসিনার অধীনে। এবার খেলা হবে। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিতে চাই না। খেলেই গোল করতে চাই। আশা রাখি, বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে। অংশ না নিলে বাটি চালান দিয়েও বিএনপিকে খুঁজে পাওয়া যাবে না। আগামী নির্বাচনে ১৪ দল বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে। বিএনপি-জামায়াতের যে কুচক্রী দল আছে তা বিলীণ হয়ে যাবে।’ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাখেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, জাসদ সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া, সাম্যবাদী দলের সভাপতি দিলীপ বড়ুয়া, জাতীয় পার্টি (জেপি) সাধারণ সম্পাদক শেখ শহিদুল ইসলাম, তরিতক ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজ ভাণ্ডারী, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদত হোসেন, জাসদ স্থায়ী কমিটির সদস্য একেএম রেজাউল করিম তানসেন প্রমুখ।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এমন নির্বাচন হওয়া উচিত যাতে বৈধতার সংকট থেকে শাসনব্যবস্থা মুক্ত হয়

সেপ্টেম্বরে খাসোগি হত্যার নীলনকশা তৈরি হয়

খালেদা জিয়ার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড চায় দুদক

মানহানির মামলায় মইনুল হোসেন কারাগারে

মইনুলকে গ্রেপ্তার জরুরি ছিল- কাদের

ঢাবি’র ‘ঘ’ ইউনিটের উত্তীর্ণদের নিয়ে আবার পরীক্ষা

সরকারের সাম্প্রতিক পদক্ষেপে ড. কামালের উদ্বেগ

সেলিম ওসমানকে অব্যাহতি

কোটা আন্দোলনের চার নেতাকে ছাত্রলীগের মারধর

জয়-পরাজয়ে অন্তরায় কোন্দল

পার্বত্য অঞ্চলের শান্তিতে হুমকি ৯৬৯-এর তৎপরতা

সিলেটে রাতে ধরপাকড়ের অভিযোগ

সিলেটে মাজার জিয়ারতে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা ( ভিডিও)

এবার মোবাইল অ্যাপ দেবে অ্যাম্বুলেন্সের সন্ধান

মধ্যরাতে তরুণীর সঙ্গে পুলিশের অশোভন আচরণ ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ

সৌদিতে ‘যৌনদাসী’ হিসেবে বিক্রি হচ্ছে বাংলাদেশি নারীরা