টাইম টেলিভিশনকে এসকে সিনহা

চাপ, হুমকির মুখে দেশ ত্যাগ করেছি (ভিডিওসহ)

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১:২৭ | সর্বশেষ আপডেট: ৮:৩৫
একটা হ-য-ব-র-ল অবস্থা। আমি কিছুই বুঝলাম না। ওয়াহাব মিয়া বলছেন যে তিনি সারারাত ঘুমাননি। অভিযোগগুলো নিয়ে অনেক চিন্তা করেছেন। অভিযোগগুলো সিরিয়াস। আমি বললাম, এসব কি অভিযোগ যে আমি জানলাম না। আমাকে রাষ্ট্রপতি জানালেন না। তোমরা আমার বিচার করবা? সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছো? প্রধান বিচারপতিকে যদি এতো তাড়াতাড়ি সরানো যায়।
এতো তাড়াতাড়ি যদি সরকারের ফর্মূলা হয়ে যায়। তাহলে বিচার বিভাগ থাকবে ? ওয়াহাব মিয়া কিছুই বলছেন না। সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা আমেরিকার নিউইয়র্ক থেকে সম্প্রচারিত টিভি চ্যানেল টাইম টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন। নিজের আতœজীবনীমূলক ‘অ্যা ব্রোকেন ড্রিম’ বই প্রকাশের পর এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা চলছে দেশে বিদেশে। যেখানে তিনি দাবি করেছেন বর্তমান সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের চাপ ও হুমকির মুখে দেশ ত্যাগে বাধ্য হয়েছেন। এই ইস্যুতে টাইম টেলিভিশনের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে সবিস্তারে বর্ণনা করেছেন কীভাবে এবং কেন তাকে দেশ ত্যাগে বাধ্য হতে হয়েছে। সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের অব্যাহত চাপ, গৃহবন্দি, বিশেষ বাহিনীর চাপ, সুস্থ থাকার পরও কেন তাকে ক্যান্সারের রোগি বানিয়ে দেয়া হয়েছে তাকে। সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা  বলেন, এর মধ্যে ১১টার সময় আমাকে আমার সেক্রেটারি এসে বলছে, স্যার ডিজিএফআই’র প্রধান এসেছেন আপনার সাথে কথা বলবে। তিনি এসে বললেন, স্যার আপনাকে লম্বা ছুটিতে যেতে হবে। হুয়াট? তিনি বললেন, হাই অথরিটি থেকে আমাকে অর্ডার দেয়া হয়েছে। দেখেন, আর্মি অফিসারকে দিয়ে অপদস্ত করা হয়েছে। এরপরে তো কিছুই করার থাকে না। এরমধ্যে আবার ডাক্তার আসলো। আমি বললাম আপনাদের তো ইনভাইটেশন দেই নাই। কেন এসেছেন? বললাম, কই আপনাদের কানে যে দেয়, ওইটা কোথায়? ব্লাড প্রেসার মাপে ওই যন্ত্র কোথায়? কিছুই আনেন নাই।  মুছকি হাসতেছে। বলল, স্যার আপনি বুঝেন তো। আপনি তো আমাদের চেয়েও সুস্থ। এভাবে মশকারা করলো। একদিন একজন আসে। আরেকদিন আরেকজন আসে। ৬ তারিখে রাত ১০টার সময় আবার ডিজিএফআইয়ের প্রধান আসলেন। আমাকে চার্জ করছে। স্যার আপনাকে ভর্তি হতে হবে। আপনি অসুস্থ। হোয়াট? আমি কেন ভর্তি হবো? একজন আর্মি অফিসারকে দিয়ে একজন প্রধান বিচারপতিকে একেবারে পা দিয়ে লাথি দেয়া হয়েছে। আমাকে চার্জ করেছে ডিজিএফআই চিফ। স্যার আপনাকে ভর্তি হতে হবে। স্যার আপনি অসুস্থ। তিনি বললেন, আমি যা বলছি তাই ফাইনাল। ওয়াহাব মিয়াসহ সবাইকে প্রধান বিচারপতি করার লোভ দেখানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির ব্যাপারে তিনি বলেন, আমি ষোড়শ সংশোধনীর রায় দেয়ার আগের দিন পর্যন্ত আমার বিরুদ্ধে দুর্নীতির কোনো অভিযোগ ছিল না। 




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Razzaqul Hyder

২০১৮-০৯-২২ ১৩:৪১:৪৪

The real picture of our judiciary has been revealed

নুরআলম

২০১৮-০৯-২০ ০৯:১২:১৩

বেটা ভালো লোকদের ফাঁশি দিয়ে একটা নাটক করে দেশ ছাড়লি আমরা সবি বুজি

Md. Ziaul Islam

২০১৮-০৯-২০ ০৮:৩৭:২৬

Dear Sir.Thanks a lot indeed for telling the truth.

Saiful

২০১৮-০৯-২০ ০৩:৪৮:৩৫

এত ‍সৎ হলে রঞ্জিত সাহেব কে আগে তিনি নিজেই বিদেশে পাঠালেন কেন? আসলে পাওয়ার চেয়ে বেশি পেয়ে খেই হারিয়ে ফেলেছিলেন।

Saiful

২০১৮-০৯-২০ ০৩:৪৪:৫৩

দেশের প্রধান বিচারপতি যদি এত একটু হুমকিতে দেশ ত্যাগ করেন তবে বুঝতে হবে তার নৈতিক দুর্বলতা আছে। উনি আসলে পালিয়ে নিজেকে রক্ষা করেছেন।

ইনাম

২০১৮-০৯-২০ ০৩:৩৭:০৫

সব কিছু মিলিয়ে আপনার দুর্বলতা সন্দেহ জনক মনে হচ্ছে।

Saiful

২০১৮-০৯-২০ ০৩:০৪:৩১

সরকার না হয় জোর করছে। আপনার কলিকরা কি করেছে? ৪জন আপনার বিরুদ্ধে গেলেও কেন? আর আপনার নৈতিক জোর হঠাৎ উধাও হয়ে গেল কেন?

আপনার মতামত দিন

বিএনপির পক্ষে গণসংযোগের সময় সাবেক কাউন্সিলর মক্কি গ্রেপ্তার

লালমোহনে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষ, ক্যামেরা ভাঙচুর, সাংবাদিক সহ আহত অর্ধশতাধিক

বিজয়নগরে বিএনপি প্রার্থীর প্রচারণায় হামলা

চকরিয়ায় বিএনপি প্রার্থীর গাড়ি বহরে হামলা, আহত ৫

‘ভোটকক্ষের ভেতরে সাংবাদিকরা লাইভ দিতে পারবে না’

‘প্রধানমন্ত্রী ভয় পেয়েছেন’

কামাল হোসেনের ওপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তার চায় ঐক্যফ্রন্ট

সাবেক এমপি আবদুল গফুর ভূঁইয়াকে তুলে নেয়ার অভিযোগ

মির্জা আব্বাসের ওপর হামলা

গোলাম মাওলা রনির স্ত্রীর ওপর হামলা

ময়মনসিংহ অভিমুখে ঐক্যফ্রন্টের রোডমার্চ

দিল্লিতে পাকিস্তান হাই কমিশন থেকে ২৩ ভারতীয়ের পাসপোর্ট লাপাত্তা

একজন ব্যবহারকারী সম্পর্কে তথ্য চেয়ে টুইটারে অনুরোধ বাংলাদেশের

ড. কামাল বেপরোয়া আচরণ শুরু করেছেন: কাদের

৩০০ আসনেই হামলা হয়েছে: রিজভী

ইমরান খানের মতো উচ্চাভিলাষ নেই মাশরাফির