গোপনীয়তা নিশ্চিত করতে প্রশ্ন ব্যাংক তৈরি করা হবে

দেশ বিদেশ

সংসদ রিপোর্টার | ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, সোমবার
প্রশ্নপত্র প্রণয়নে গোপণীয়তা নিশ্চিত করতে সকল বোর্ডের সমন্বিত উদ্যোগে প্রশ্ন ব্যাংক তৈরি করার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে। বর্তমান বোর্ডসমূহের প্রশ্ন ব্যাংক তৈরির নিমিত্ত সফ্‌টরয়্যার তৈরির কাজ চলছে। সফ্‌টরয়্যারটি তৈরি হলে বাংলাদেশ পরীক্ষা মূল্যায়ন ইউনিট কর্তৃক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকগণ অনলাইনে তৈরিকৃত প্রশ্নপত্র প্রশ্ন ব্যাংকে প্রেরণ করবেন। প্রেরিত প্রশ্নসমূহ হতে সুপার মডারেটর কর্তৃক মডারেশন হয়ে পরীক্ষার জন্য চূড়ান্ত প্রশ্নপত্র তৈরি হবে। এর ফলে পাবলিক পরীক্ষাসমূহের প্রশ্নপত্রের গোপনীয়তা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে গতকাল সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য বেগম লুৎফা তাহেরের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এতথ্য জানান। সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার। উন্নয়নকে গতিশীল ও স্থায়ী করতে এসডিজিতে শিক্ষাকে মূল ভিত্তি হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে।
দেশের সকলের জন্য যুযোপযোগী শিক্ষা নিশ্চিতকরণ এবং শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশ্বমান অর্জনে যে অগ্রগতি সাধিত হয়েছে তার ধারাবাহিকতায় ভবিষ্যতেও শিক্ষাক্ষেত্রে গুণগত পরিবর্তন অব্যাহত থাকবে এবং জ্ঞানভিত্তিক দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টিতে এ প্রয়াস সহায়ক হবে বলে আশা করি। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস শিক্ষাক্ষেত্রে গৃহীত কার্যক্রমসমূহ রূপকল্প-২০২১ এর স্বপ্নকে বাস্তবে রূপান্তর করবে। শিক্ষামন্ত্রী জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শিক্ষক-অভিভাবক-সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তি, কমিউনিটি নেতা-ইমাম-গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হচ্ছে। কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদের পৃষ্ঠপোষকতার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহে এরূপ কার্যক্রমের বিষয়ে মনিটরিং জোরদার করা হয়েছে। সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিনের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী জানান, কওমি মাদ্‌রাসা শিক্ষাকে যুযোপযোগী করে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে মূল ধারায় সম্পৃক্তকরণের লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে। এ লক্ষ্যে ’আল হাইয়াতুল উলুম লিলজামি আতিল কওমিয়া বাংলাদেশ’ এর অধীন কওমি মাদ্‌রাসার হাওরায়ে হাদিস (তাকমিল)-এর সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরবি)-এর সমমান প্রদানের উদ্দেশে খসড়া আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। আইনটি বর্তমানে সংসদের শিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে রয়েছে। সরকারি দলের সংসদ সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে নুরুল ইসলাম নাহিদ জানান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্তি বাড়ানোর জন্য কাজ চলছে। ইতিমধ্যে আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে। আশা করছি আগামী মাসের মধ্যে কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হবে। তবে কতটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে করা হবে তা এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কিশোরিদের বাল্যবিবাহ না করার শপথ

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ৪৯ নারী এমপি

৫৫ দিন ধরে বেডরুমে মায়ের মৃতদেহ লুকিয়ে রেখে ধরা পড়ল মেয়ে

ঘুম থেকে দেরি করে উঠলে কি হয়?

ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা তুঙ্গে, যুদ্ধের আশঙ্কা

কেজির দরে প্রাথমিকের বই

৪৭ বছর পর ক্ষমা চাওয়ার বিষয় কেনো এলো?

শপথ নিলেন সৈয়দ আশরাফের বোন

সৌদি ক্রাউন প্রিন্সের পাকিস্তান সফর বিলম্বিত

আজিমপুর-ধানমন্ডি-মোহাম্মদপুর-মিরপুরে ২৪ ঘণ্টা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ

সি জিনপিংয়ের বৈশ্বিক স্বপ্নে বাধা

ইয়াবা ও অস্ত্র জমা দিয়ে ১০২ মাদক ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ

নাটোরে অগ্নিকান্ডে সর্বশান্ত দিনমজুর

রূপপুর প্রকল্পে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে রাশিয়ান নাগরিকের মৃত্যু

‘মিয়ানমার বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের ওপরে আঘাত করেছে’

কবি আল মাহমুদের মৃত্যুতে মির্জা ফখরুলের শোক