অনলাইন শপিংয়ের বাক্স খুলতেই বেরিয়ে এল কুমিরছানা!

রকমারি

| ১৮ আগস্ট ২০১৮, শনিবার
অনলাইনে অর্ডার করেছিলেন কিছু হেল্থ কেয়ার প্রডাক্টস, আর হাতে পেলেন মৃত কুমির ছানা!

ঘটনাটি চিনের ঝেজিয়াং প্রদেশের সুইচাং শহরের। ঝ্যাং নামের এক মহিলা অনলাইনে কিছু হেল্থ কেয়ার প্রডাক্টস অর্ডার করেছিলেন। সঙ্গে অর্ডার করেছিলেন কিছু সাপ্লিমেন্টস। সেই মতো চারটি বাক্স এসে পোঁছয় তাঁর কাছে। তিনটে বাক্স এক্কেবারে ঠিকঠাক ছিল। কিন্তু সন্দেহ হয় চতুর্থ বাক্স নিয়ে। বাক্সের মুখ একটু খুলতেই দুর্গন্ধ বেরতে থাকে। বাক্স খুলতেই ঝ্যাং দেখতে পান মৃত টিকটিকি আর কুমিরছানা।

তড়িঘড়ি পুলিশের কাছে ছোটেন ঝ্যাং আর তাঁর স্বামী। তদন্তে পুলিশ জানতে পারে, কোনও এক সরীসৃপ প্রজনন কেন্দ্রের সিয়ামিজ প্রজাতির কুমির এইগুলি। কুমিরগুলির গায়ে কিউআর কোডও ট্যাগ করা ছিল। আর এই কোডের মাধ্যমেই পুলিশ ওই কুমিরগুলি সম্বন্ধে যাবতীয় তথ্য পেয়ে যান।

আসলে কুরিয়ার কোম্পানিটিই ভুল করে ওই সরীসৃপগুলি ঝ্যাংয়ের ঠিকানায় পাঠিয়েছিল। প্যাক করার সময়ে জীবিত ছিল সরীসৃপ দু’টি। পরে দীর্ঘ দিন প্যাকেটের মধ্যে থাকার কারণেই মৃত্যু হয় প্রাণীগুলির।

চিনে সিয়ামিজ প্রজাতির কুমিরের চাহিদা প্রবল। কারণ, এই প্রজাতির কুমিরের চামড়া দিয়ে নানান জিনিসপত্র তৈরি হয়।

অনলাইন শপিং নিয়ে বিড়ম্বনা অবশ্য নতুন নয়। কখনও গ্যাজেটের জায়গায় চলে এসছে সাবান আর ইট। কখনও আবার জামা কাপড়ের সাইজ নিয়ে সমস্যা। তবে ঝ্যাংয়ের সঙ্গে যা হল, তা দেখে চক্ষু চড়কগাছ হওয়া স্বাভাবিক।

সুত্রঃ- আনন্দবাজার পত্রিকা



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

তেরেসা মে’র চোখে তখন পানি

২৮শে মে শপথ নিতে পারেন নরেন্দ্র মোদি

সরকার এত অমানবিক নয়

খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার

ধারণা পাল্টে দিতে চায় অভিজ্ঞ বাংলাদেশ

গান্ধী পরিবারের রাজনীতির সমাপ্তি?

দোহার-নবাবগঞ্জকে আধুনিক উপজেলায় পরিণত করবো

তৃতীয় দিনেও ট্রেনের টিকিট পেতে ভোগান্তি

মৃত্যুর দুয়ার থেকে ফিরে এলাম

চট্টগ্রামে মাদক নিয়ন্ত্রণে ‘কিশোর গ্যাং’

বাংলাদেশে মানব পাচার রোধে কাজ করছে আইওএম

মোদির সামনে যেসব চ্যালেঞ্জ

জৈন্তাপুরে এখন নয়া ‘ধান্ধা’ চোরাকারবার

ড্যাবের নির্বাচনে ডা. হারুন-সালাম প্যানেলের নিরঙ্কুশ জয়

ছয় শতাধিক কারখানায় বেতন বোনাস নিয়ে সমস্যা

এক সপ্তাহ আগে মোটরসাইকেলটি কিনেছিলেন মেহেদী