তৃপ্তিকে গ্রেপ্তারের নিন্দা ফখরুলের

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১০ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার
বিএনপির সাবেক দপ্তর সম্পাদক মফিকুল হাসান তৃপ্তিকে গ্রেপ্তারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ প্রতিবাদ জানান। তিনি বলেন, সকল ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়ে দিশাহারা হয়ে পড়েছে সরকার। লুটপাট, দখল ও দাপটে এখন ভয়ঙ্কর অরাজকতা বিরাজ করছে বাংলাদেশে। তাই দুঃশাসন টিকিয়ে রাখতে তারা এখন নির্ভর করছে অনাচার-অবিচার আর অপকর্মের ওপর। মির্জা আলমগীর বলেন, সরকারের গণবিরোধী নীতির কারণেই এক ভীতিকর পরিবেশে বাস করছে জনগণ। বিরোধী দল দমনের জন্য রাষ্ট্রযন্ত্রকে নিজস্বার্থে নিষ্ঠুরভাবে ব্যবহার করে জনমনে এক ভয়ঙ্কর আতঙ্ক ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, স্বাধীন সংবাদপত্র এবং বিরোধী দলের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড সরকারি দমন-পীড়নে চরমভাবে পিষ্ট করে গণতন্ত্রকে অদৃশ্য করা হয়েছে।
নিজেদের ক্ষমতাকে কণ্টকমুক্ত করার জন্যই বিরোধী দল নিশ্চিহ্ন করার কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে অবৈধ ক্ষমতাসীনরা। এই জন্য মিথ্যা মামলা, গ্রেপ্তার, রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতন বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ভাগ্যলিপি হয়ে দাঁড়িয়েছে। আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী গুম-খুন, ক্রসফায়ারকে জাতীয় জীবনে স্বাভাবিক করে তুলেছে। মির্জা আলমগীর বলেন, বনানীর নিজ বাসা থেকে বিএনপি নেতা মফিকুল হাসান তৃপ্তিকে গ্রেপ্তার সরকারের চলমান দমননীতিরই অংশ। সারা দেশ থেকে সরকারের অপশাসনের বিরুদ্ধে সমালোচনা বন্ধ করতেই তৃপ্তির মতো বিরোধী রাজনৈতিক নেতাদেরকে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। এটা ফ্যাসিবাদ কায়েমের পথে আরেকটি পদক্ষেপ। মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে মফিকুল হাসান তৃপ্তিকে গ্রেপ্তারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি অবিলম্বে তার মুক্তির দাবি জানান।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

জামায়াতকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার আইন নেই: ইসি সচিব

তোমার হাসি চিরদিন টিকে থাকবে

ব্রেক্সিট চুক্তির ৯৫ ভাগ সম্পন্ন: তেরেসা মে

ময়মনসিংহে ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলা

খালেদার আইনজীবীদের আদালত বর্জন

‘নির্বাচন সামনে রেখে চূড়ান্ত ক্র্যাক ডাউন শুরু করেছে’

দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাককে অন্য ট্রাকের ধাক্কা, নিহত ২

পারমাণবিক অস্ত্র উৎপাদন বৃদ্ধির ঘোষণা ট্রাম্পের

সীমান্ত অস্ত্রমুক্ত করতে সম্মত দুই কোরিয়া

হাতিরঝিলে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে যুবকের মৃত্যু

রেলস্টেশনে ৭ ঘন্টা ধরে দু’পক্ষের গোলাগুলি

‘তার কথা, গান ও স্মৃতিগুলো ভেসে আসছে বার বার’

মিয়ানমারের পাঁচ জেনারেলের ওপর অস্ট্রেলিয়ার নিষেধাজ্ঞা

স্কাইপে খাসোগিকে হত্যার নির্দেশনা দিয়েছিলেন কাহতানি

খাসোগিকে মারবে ভেবে ‘বডি ডাবল’ নিয়ে আসে সৌদি ঘাতক দল!

সৌদি আরবের সঙ্গে অস্ত্র চুক্তি ছিন্ন করলো জার্মানি