আবহাওয়া অফিসের ভুল পূর্বাভাসে কৃষকের মামলা

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ৯ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৮:৩৩
ভুল পূর্বাভাস দেওয়ার অভিযোগে ভারতের আবহাওয়া বিভাগের (আইএমডি) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন এক কৃষক। মহারাষ্ট্র রাজ্যের মারাথওয়াদা অঞ্চলের এই কৃষক দাবি করেন,  আবাহাওয়া বিভাগ থেকে জানানো হয়, বর্ষা মৌসুমের স্থায়িত্ব দীর্ঘ হবে। এই আভাস পাবার ফলে তিনি সেই অনুযায়ী বীজ ও কীটনাশক ব্যবহার করে লোকসানে পড়েছেন। গত মঙ্গলবার রাজ্যের পারভানি থানায় এ অভিযোগ দায়ের করেন মানিক কদম নামের কৃষক। তিনি কদম মারঠওয়াড়া অঞ্চলের স্বাভিমানি ক্ষেতকারি সংগঠনেরও সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ৮ই আগস্ট, বুধবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম প্রচার করে, আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী ফসলের বীজ বপণ করেন ওই কৃষক। কিন্তু আভাস ভুল হওয়ায় কয়েক লাখ রুপি ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন দাবি করে ওই কৃষক আইএমডির পরিচালকের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনে মামলাটি দায়ের করেন। মানিক কদম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আবহাওয়া বিভাগের পূর্বাভাস অনুযায়ী কৃষকরা চাষাবাদ করেন। তারা এবার বর্ষণের কথা বললেও দেখা গেলো কোনো বৃষ্টি নেই। ফলে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত  হয়েছে টাদের ভুল তথ্যের দ্বারা।   

এ বিষয়ে আইএমডির কোনো কর্মকর্তার মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে জানা যায়, গত বছরের জুনেও মহারাষ্ট্রের বিদ জেলার এক কৃষক আইএমডির বিরুদ্ধে একই অভিযোগে মামলা করেন। তখন সেপ্টেম্বরে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফাড়নাভিসও পরিবেশমন্ত্রীকে আবহাওয়া বিভাগের ভুল পূর্বাভাসের অভিযোগের বিষয়টি জানিয়ে চিঠি লেখেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এবার মালিবাগে পুলিশকে লক্ষ্য করে হামলা

বগুড়ায় নুরের ওপর হামলা

ধানের দাম নেই, চালে ছাড় নেই

বৃষ্টিতেও দৃঢ় মনোবল টাইগারদের

খালেদার মামলায় আদালত স্থানান্তরের বৈধতা নিয়ে রিট

তরুণ সাংবাদিক ফাগুনের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় হত্যা মামলা

ট্রাভেল পারমিটে কড়াকড়ি জটিলতার আশঙ্কা

গতবছর ফেসবুকের কাছে ১৯৫ ব্যবহারকারীর তথ্য চেয়েছিল বাংলাদেশ

রঙ লাগিয়ে ঈদে সড়কে নামছে লক্করঝক্কড় বাস

তারেকের স্মৃতি হাতড়ে ফেরেন নুরুন নাহার

রাজাকারদের তালিকা সংরক্ষণের সুপারিশ

মামলার আগেই গ্রেপ্তার, শাহপরাণে তোলপাড়

ইতালিতে প্রদর্শিত হলো ড. ইউনূসের জীবনীভিত্তিক অপেরা

৩০শে মে সন্ধ্যায় শপথ নেবেন মোদি

পদত্যাগ করলেন মহারাষ্ট্র কংগ্রেস প্রধান

চিকিৎসকদের আরো দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান ডা. এ আর খানের