দৃষ্টান্ত

রকমারি

জহুরুল ইসলাম | ১০ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৪৯
‘নিরাপদ সড়ক চাই’ দাবিতে সমপ্রতি হয়ে যাওয়া শিশু-কিশোরদের আন্দোলন আমাদের কাছে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকলো। প্রচলিত অনিয়মগুলো তারা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিলো। সেই সঙ্গে আইন মেনে, নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে চলার বিষয়টিও বুঝিয়ে দিলো। তারা দেখিয়েছে রাজধানীর ব্যস্ততম সড়কে কত চালক লাইসেন্স ও কত যানবাহন ফিটনেসবিহীন অবস্থায় চলাচল করে। এ ছাড়াও দেখিয়েছে জরুরি লেনসহ সারিবদ্ধভাবে যানবাহন চলাচলের সুবিধা। নতুন প্রজন্ম নিয়ে চারদিকে যে হা-হুতাশ ছিল সেই গ্লানি থেকেও তরুণেরা নিজেদের বের করতে পেরেছে এ আন্দোলনে। বাংলাদেশের ইতিহাসে অহিংস এক আন্দোলনের নতুন অধ্যায়। এ আন্দোলন উদাহরণ হয়ে থাকবে বহুদিন।
কিন্তু এত পরিচ্ছন্ন আন্দোলনকে রাজনীতির কালিমালিপ্ত করা হয়েছে যা খুবই দুঃখজনক। একপক্ষ এই আন্দোলনকে সামনে রেখে ফায়দা লুটতে চাইলো আরেকপক্ষ করলো অমানবিক দমন-পীড়ন। সুন্দরভাবে শুরু হওয়া অরাজনৈতিক আন্দোলনটি রাজনৈতিক মারপ্যাঁচে কিছুটা হলেও শ্রী হারালো, যা আমাদের জন্য লজ্জার।

লিখেছেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী জহুরুল ইসলাম।




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

প্রস্তুতি ম্যাচে সহজ জয় বাংলাদেশের

১৯ জেলার বন্যার্তদের মাঝে নগদ অর্থ ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির

বৃটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

‘স্টোকস মিথ্যাচার করেছেন’

এক প্রেমিককে পেতে দুই যুবতীর জোট, একজনের স্বামীকে হত্যা

‘টাকার বস্তা’ দিয়ে এমবাপ্পেকে আটকাচ্ছে পিএসজি!

বাছিরের জামিন নাকচ, কারাগারে

‘গুজব ছড়ালে কঠোর ব্যবস্থা’

সিরাজগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি

বন্দরে গার্মেন্ট শ্রমিককে কুপিয়ে হত্যা, গ্রেপ্তার ৫

উত্তরাখণ্ডের শতাধিক গ্রামে ৩ মাসে জন্ম নেয়নি কোনো কন্যাশিশু

দেশে কোনো সরকার আছে বলে দেশবাসী মনে করে না: দুদু

মানববন্ধনেও মাকে খুঁজেছে তুবা

সাউথ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

সিরাজগঞ্জে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে যুবককে গণধোলাই

গণপিটুনির বিরুদ্ধে সরব হলেন নাসিরুদ্দিন শাহ