সিলেটের রাগীব আলী ও তার ছেলের ১৪ বছরের সাজা বহাল

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে | ৯ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ৬:৫৫ | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৪৪
সিলেটের রাগীব আলী ও তার ছেলে আবদুল হাইয়ের ১৪ বছরের রায় বহাল রেখেছেন বিশেষ আদালত। বৃহস্পতিবার সকালে আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এ রায় বহাল রাখেন। মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি করে তারাপুর চা বাগান দখলের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় রাগীব আলী ও তার ছেলে আবদুল হাইকে নিম্ন আদালতে ২০১৭ সালের ২রা ফেব্রুয়ারি ১৪ বছরের সাজা দেয়া হয়েছিল। সেটির বিরুদ্ধে করা আপিল শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার সকালে বিশেষ দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিম্ন আদালতের রায় বহাল রাখেন।

জননিরাপত্তা আদালতের স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট নওশাদ আহমদ চৌধুরী গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘আদালত রাগীব আলীর সাজার রায় বহাল রেখেছেন। ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি করে শহরতলির তারাপুর চা বাগান ৯৯ বছরের জন্য লিজ নেয়ার অভিযোগে বিগত ২০০৫ সালে সিলেটের কোতোয়ালী থানায় মামলা করেন তৎকালীন সহকারী কমিশনার ভূমি এসএম আব্দুল কাদের।
তদন্ত ও বিচার শেষে এই মামলায় ২০১৭ সালের ২রা ফেব্রুয়ারি সিলেট জেলা আদালতের তৎকালীন মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরো পাঁচটি ধারায় রাগীব আলী ও তার ছেলে আবদুল হাইকে ১৪ বছরের কারাদন্ড দিয়েছিলেন।’

এই রায়ের বিরুদ্ধে আসামীরা আপিল করলে গতকাল নিম্ন আদালতের রায় বহাল রেখে রায় প্রদান করেন বিশেষ জজ আদালতের বিচারক। শুনানীকালে রাষ্ট্রপক্ষে একমাত্র আইনজীবী ছিলালেন অ্যাডভোকেট নওশাদ আহমদ চৌধুরী। আপিলের রায় ঘোষণাকালে রাগীব আলী ও তার ছেলে আবদুল হাই আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বাজপেয়ীকে শেষ বিদায়

তিন দিনের রিমান্ডে ফারিয়া

ফ্যাশন শোতে হাঁটলেন সোনাগাছির বারবণিতারা

বাজপেয়ীর শেষকৃত্যে যোগ দিতে এসেছেন প্রতিবেশি দেশের প্রতিনিধিরা

বিশ্ববিদ্যালয়ের শ'খানেক শিক্ষার্থী যে কারণে আটক

নির্বাচনকালীন সরকারে বিএনপির থাকার সুযোগ নেই: কাদের

নিরাপদ বাংলাদেশের জন্য আপনারা এগিয়ে আসুনঃ ফখরুল

জিয়া পরিবারের দুষ্কর্মের মুখোশ উন্মোচন করা জরুরী: তথ্যমন্ত্রী

ঈদের আগেই গ্রেপ্তার শিক্ষার্থীদের মুক্তি দাবি

কলকাতায় বাংলাদেশি ও ভারতীয় পণ্যের স্থায়ী প্রদর্শন কেন্দ্র হচ্ছে

আন্দোলনের মুখে জাবির সান্ধ্যকালীন কোর্সের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

ফেসবুকে অশ্লীল ছবি: চীন ফেরত স্ত্রীর হাতে স্বামী খুন

শিবির সন্দেহে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

তিন জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে নারী ব্যবসায়ীকে আটক

আত্মহত্যার আগে ফেসবুকে যা লিখেছেন ঢাবি শিক্ষার্থী মুশফিক