দেশের মধ্যে ৪০ লক্ষ মানুষকে উদ্বাস্তু করে দেওয়া হয়েছে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৩০ জুলাই ২০১৮, সোমবার
আসামে জাতীয় নাগরিক পঞ্জীর চূড়ান্ত খসড়ায় ৪০ লক্ষ বাঙালীর নাম বাদ পড়ার ঘটনায় কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ বলেছেন, দেশের মধ্যে ৪০ লক্ষ মানুষকে উদ্বাস্তু করে দেওয়া হযেছে। মমতা অভিযোগ করেছেন, ভোটের অঙ্ক কষেই আসামে বাঙালী খেদানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। তিনি অভিযোগ করেছেন, নাম ও পদবী দেখে বেছে বেছে বাদ দেওয়া হয়েছে। ডিভাইড অ্যান্ড রুল চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। পুরোটাই নির্বাচনী গেমপ্ল্যান। ভোট রাজনীতি করতে গিয়ে আগুন নিয়ে খেলা হচ্ছে। উস্কানিমূলক কাজ করা হচ্ছে। আজ প্রকাশিত হয়েছে আসামে জাতীয় নাগরিক পঞ্জীর চূড়ান্ত খসড়া।
নাম তোলার জন্য ৩ কোটি ২৯ লাখ আবেদন জমা পড়েছিল। দু-দফায় খসড়া নাগরিক পঞ্জীতে ২ কোটি ৯০ লাখ নাম উঠেছে। বাদ পড়েছে ৪০ লক্ষ বাঙালীর নাম। এদিন দিল্লী রওনা হওয়ার আগে নবান্নে সাংবাদিক সম্মেলন করে মমতা বলেছেন, আসামে বাঙালীরা আক্রান্ত হলে বাংলার উপর চাপ পড়বে। তাই এনআরসি নিয়ে কেন্দ্রের আগে পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে কথা বলা উচিত ছিল। অবিলম্বে এই নিয়ে তিনি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন। পাশাপাশি, আসামে দলীয় সাংসদদের পাঠানোর কথাও বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। দরকারে তিনি নিজেও আসাম যেতে পারেন, বলেছেন মমতা। যাঁদের নাম বাদ পড়েছে তাঁদের বিদেশি হিসেবে চিহ্নিত করে আসাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হতে পারে বলে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ইতিমধ্যেই অশান্তির আশঙ্কায় বাঙালী অধ্যুষিত বরাক ও ব্রহ্মপুত্র উপত্যকায় বাড়তি নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করা হয়েছে। ৩৩ জেলায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে ২০০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। এনআর সি থেকে নাম বাদ পড়ার ঘটনা নিয়ে এদিন সংসদের উভয় কক্ষে তৃণমূল কংগ্রেস প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছে। তুমুল হই হট্টগোল হয়। রাজনাথ সিংয়ের হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদরা। তবে এখনই আতঙ্কিত হওয়ার কোনও দরকার নেই বলে আশ্বস্ত করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, বৈধ ভারতীয় নাগরিকদের কেউ-ই সমস্যায় পড়বেন না। কাউকেই জোর করে ডিটেনশন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হবে না। আসামবাসী বিদেশিদের চিহ্নিত করতে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে জাতীয় নাগরিক পঞ্জীর কাজ শুরু হয়েছিল।




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মসজিদ-উল নববীর ইমাম কারাগারে ‘মারা গেছেন’

জনগণের আস্থার মর্যাদা সমুন্নত রাখতে হবে

ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে ভোট ২৮শে ফেব্রুয়ারি

এমন মৃত্যু আর কত?

এক কিংবদন্তির প্রস্থান

ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে বিএনপির ১০ কমিটি

স্পাইসগার্ল টি-শার্ট এবং বাংলাদেশের গার্মেন্ট খাত

ইভিএমের কারচুপি জেনে ফেলায় খুন হন বিজেপি নেতা!

মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালের দাবিতে শাহবাগে ফের অবরোধ

ইজতেমা নিয়ে আদালতে আসা লজ্জাকর

তিনি সজ্জন, ভালো মানুষ

দেশে গণতন্ত্র ও উন্নয়ন একসঙ্গে এগিয়ে যাবে- প্রধানমন্ত্রী

সংরক্ষিত আসনে এমপি হতে চান ব্যারিস্টার মৌসুমী কবিতা

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আফজালের সব সম্পদ জব্দের নির্দেশ

মির্জাপুরে বিএনপির ৪০ নেতাকর্মী কারাগারে

মাঠ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সুবিধা আরো বাড়লো