পাকিস্তানের বিচারপতির বিস্ফোরক মন্তব্য

আইএসআই আমাকে প্রধান বিচারপতি বানাতে চেয়েছিল

প্রথম পাতা

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ জুলাই ২০১৮, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৪৭
প্রকাশ্যে পাকিস্তানের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্স (আইএসআই)-এর সমালোচনা করলেন ইসলামাবাদ হাই কোর্টের বিচারপতি শওকত সিদ্দিকী। তিনি গতকাল রাওয়ালপিন্ডি বার এসোসিয়েশনে বক্তব্য দিচ্ছিলেন। এ সময় তিনি অভিযোগ
 করেন, আইএসআই প্রচণ্ড শক্তিশালী একটি গোয়েন্দা সংস্থা। তারা পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি ও অন্যদের ওপর প্রচণ্ড চাপ সৃষ্টি করছে, যাতে বিভিন্ন মামলায় তাদের পছন্দ অনুযায়ী রায় দেয়া হয়। এর মধ্যে রয়েছে ক্ষমতাচ্যুত সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ।

আইএসআই চায়, নওয়াজ শরীফ ও তার মেয়ে মরিয়ম যেন নির্বাচনের আগে জেল থেকে বেরুতে না পারে। তিনি বলেন, আইএসআই পাকিস্তানের বিচার বিভাগ ও মিডিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করছে। তার ভাষায়- এখন বিচার বিভাগ ও মিডিয়া চলে গেছে বন্দুকওয়ালাদের নিয়ন্ত্রণে।
বিচার বিভাগ স্বাধীন নয়। এমন কি সেনাবাহিনী দিকনির্দেশনা দিচ্ছে মিডিয়াকে।

তাই মিডিয়া সত্য বলতে পারছে না। কারণ, তাদের ওপর রয়েছে চাপ এবং তাদেরও স্বার্থ রয়েছে। ওই বিচারপতি বলেন, আইএসআই প্রধান বিচারপতিকে বলেছে তিনি যেন এটা নিশ্চিত করেন যে, ২৫শে জুলাইয়ের নির্বাচনের আগে যেন নওয়াজ শরীফ ও তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ বাইরে বেরিয়ে আসতে না পারেন। এ ছাড়া অ্যাভেনফিল্ড মামলায় নওয়াজ শরীফ ও তার মেয়ের আপিলের শুনানিতে যে বেঞ্চ গঠন করা হবে তাতে যেন আমাকে রাখা না হয়।

জবাবে আইএসআইকে প্রধান বিচারপতি বলেছেন, তিনি তাদের পছন্দমতোই বেঞ্চ গঠন করবেন। ওই বেঞ্চে নওয়াজের আপিল শুনানি হবে নির্বাচনের পরে। উল্লেখ্য, নওয়াজ ও মরিয়ম যথাক্রমে ১০ ও সাত বছর করে জেল ভোগ করছেন। তাদের রাখা হয়েছে রাওয়ালপিন্ডির আদিয়ালা জেলে। লন্ডন থেকে দেশে ফেরার পর পরই ১৩ই জুলাই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। বিচারপতি শওকত সিদ্দিকী আরো বলেন, আইএসআই আমাকেও প্রস্তাব দিয়েছিল। বলেছিল, আমি যদি তাদের সহযোগিতা করতে রাজি হই তাহলে আমার বিরুদ্ধে একটি রেফারেন্স প্রত্যাহার করা হবে।

আমাকে প্রধান বিচারপতি বানানোর টোপ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু আমি তা প্রত্যাখ্যান করেছি। কারণ, আমি আমার বিবেককে বিক্রি করার চেয়ে মারা যাওয়াকে ভালো মনে করি। তিনি বলেন, বিচার বিভাগ ও মিডিয়া হলো জনগণের বিবেক। যদি এর স্বাধীনতা কেড়ে নেয়া হয় তাহলে পাকিস্তান আর নিরপেক্ষ দেশ, স্বাধীন দেশ থাকবে না।

আইএসআইয়ের বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগ যাচাইয়ের আবেদন আইএসপিআরের
বিচারপতি শওকত আজিজ সিদ্দিকীর তোলা অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছেন পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)। আইএসপিআরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুর তার টুইটারে এ খবর জানান। গণমাধ্যমে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী জানায়, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের পবিত্রতা ও বিশ্বাসযোগ্যতা রক্ষার্থে সুপ্রিম কোর্টে এ আবেদন করা হয়েছে। এই আবেদনে, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতে ও যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের প্রক্রিয়া শুরু করতে বলা হয়েছে।

এর আগে রোববার ইসলামাবাদ হাইকোর্টের বিচারপতি শওকত সিদ্দিকী রাওয়ালপিন্ডির এক বার অ্যাসোসিয়েশনে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই-এর বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি বলেন, আইএসআই বিচারপতিদের ওপর চাপ সৃষ্টি করে নিজেদের মত রায় দেয়াতে বাধ্য করে। এ ঘটনার পরে পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি ইলেকট্রনিক মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের কাছে বিচারক সিদ্দিকীর সম্পূর্ণ বক্তব্যের রেকর্ড চেয়েছে।

তার বক্তব্যের বিরোধিতা করে প্রধান বিচারপতি নিসার বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি হিসেবে আমি বলতে চাই আমাদের উপরে কোনো ধরনের চাপ নেই। আমরা স্বাচ্ছন্দ্যেই সংবিধান এবং আইন অনুসারে কাজ করতে পারছি’। তিনি বলেন, বিচারবিভাগ নিয়ে এ ধরনের মন্তব্য কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। তিনি এ ধরনের বক্তব্যের জন্য বিচারক শওকত সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে সকল সম্ভাব্য আইনি পদক্ষেপ বিবেচনা করবেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

হাইকোর্টের আদেশের পর ধানের শীষ পেলেন ৩ প্রার্থী

১০ বছরে দ্রুত বেড়েছে ধনী-গরিব বৈষম্য

ধ্রুপদী লড়াই

ইমরান এইচ সরকারের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ

বিএনপিতে নতুন মুখের জয়জয়কার

উন্মুক্ত আসনের রাজনীতির নেপথ্যে কী?

মহাজোটে পুরনো আর অভিজ্ঞদের প্রাধান্য

প্রার্থিতা ফিরে পেতে খালেদা জিয়ার রিট

ব্যাংক লুটেরাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি টিআইবির

পেট্রোলবোমার পাশাপাশি লগি-বৈঠা, ব্যাংক লুট বাকস্বাধীনতা হরণের কথাও তুলে ধরা যেতো

রিটার্নিং কর্মকর্তাদের নিয়ে বিব্রত ইসি

যে ব্যাখ্যা দিলেন কামাল মজুমদার

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিদেশিদের ভ্রমণ বন্ধ!

ঝিনাইদহে বিএনপি প্রার্থী মজিদের কার্যালয়ে হামলা ভাঙচুর, আহত ১৫

মর্যাদার আসনে লড়াইয়ে মোমেন-মুক্তাদির

পাকিস্তান দূতাবাসে ফখরুলদের বৈঠক ষড়যন্ত্রের আভাস- আওয়ামী লীগ