মাহমুদুর রহমানকে নিরাপত্তা দিতে আসেনি পুলিশ: ফখরুল

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২২ জুলাই ২০১৮, রোববার, ৯:২১
আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও দৈনিক আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে নিরাপত্তা দিতে পুলিশ এগিয়ে আসেনি বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, মাহমুদুর রহমান আদালতের কাছে নিরাপত্তা চাইলে আদালত থানার ওসিকে (ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) ডাকেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও পুলিশ মাহমুদুর রহমানকে নিরাপত্তা দিতে এগিয়ে আসেনি। এমনকি উচ্চ পর্যায়ের সহযোগিতা চাওয়ার পরও তাঁকে সহযোগিতা করা হয়নি। সন্ধ্যায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ অভিযোগ করেন বিএনপি মহাসচিব। কুষ্টিয়ায় মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলার ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে মির্জা আলমগীর বলেন, মাহমুদুর রহমান যখন আদালতের কাছে প্রোটেকশন চান, কোর্ট থানায় ফোন করে এবং ওসিকে ব্যবস্থা নিতে বলেন। ওসি সেখানে এসে উপস্থিত হননি। এরপর একেবারে উচ্চ মহলেও পর্যন্ত যোগাযোগ করা হয়েছে কিন্তু দুভার্গ্যজনকভাবে এই সরকারের পুলিশ কোনো ব্যবস্থা গ্রহন করেনি।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, আদালতে যে ওসি থাকেন তিনি মাহমুদুর রহমানসহ অন্যান্যদেরকে বলেনÑ আপনারা বাইরে আসেন, বের হন। যাকে বলা যায় যে, জোর করে বের করে ওই সন্ত্রাসীদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে। যার ফলে সঙ্গে সঙ্গে তাদেরকে আক্রমন করা হয়েছে বিশেষ করে মাহমুদুর রহমানকে মাথায় আঘাত করেছে এবং বুকে রক্তাক্ত করা দিয়েছে। সেখানে অন্যান্য যারা ছিলেন তারা আহত হয়েছেন। মির্জা আলমগীর বলেন, মাহমুদুর রহমান হামলার কথা বুঝতে পেরে কোর্টে অবস্থান নেন। পরে কোর্টের ওসির কথায় তিনি আদালত থেকে বের হয়ে আসেন। বলতে গেলে, কোর্টের ওসি জোর করে মাহমুদুর রহমানকে বের করে সন্ত্রাসীদের হাতে তুলে দেয়। বিএনপি মহাসচিব বলেন, হামলার পর মাহমুদুর রহমান সেখানে চিকিৎসা নেয়ারও সুযোগ পাননি। কিন্তু সরকারের উচিৎ ছিলে তাঁকে পুলিশের সহযোগিতায় চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা আসার ব্যবস্থা করে দেয়া। কিন্তু সরকার সেটি করেনি। বরং হামলার জন্য হামলাকারীদের সুযোগ করে দিয়েছে। মির্জা আলমগীর বলেন, মাহমুদুর রহমান আদালতে যাওয়ার পর অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আদালত এলাকা ঘিরে রাখে ছাত্রলীগ। তাদের সাথে যোগ দেয় স্থানীয় যুবলীগ। মাহমুদুর রহমান কোর্টের ওসির কথায় আদালত থেকে বের হওয়ার পর চারদিক থেকে তার ওপর হামলা করা হয়। এতে তার মাথা ও গালে আঘাত লাগে, তিনি রক্তাক্ত হন। মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলার ঘটনায় ধিক্কার জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা দ্রুত হামলাকারীদের চিহ্নিত করে বিচার বিভাগীয় তদন্ত করার দাবি জানাচ্ছি। এ হামলার মাধ্যমে আবারও প্রমাণ হলো দেশের প্রতিটি সেক্টর সরকার নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। রাষ্ট্রযন্ত্র ভেঙে পড়েছে। রাষ্ট্রের কোনো প্রতিষ্ঠান এখন আর জনগণের কাজে আসছে না। তিনি বলেন, আজকে পুলিশ চলছে আওয়ামী লীগের নির্দেশে এবং দুঃখজনকভাবে বিচারাঙ্গনকেও তারা প্রায় দখল করে ফেলেছে। আমরা আপনাদের মাধ্যমে দেশের জনগনের কাছে এই কথাটা পৌঁছাতে চাই যে, এদেশে গণতন্ত্রের সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলো ধ্বংস হয়ে গেছে। রাষ্ট্রযন্ত্র আওয়ামী লীগের ক্রীড়ানকে পরিণত হয়েছে। মির্জা আলমগীর বলেন, একমাত্র আন্দোলনের মাধ্যমে এ স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটিয়ে গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে। না হলে শুধু মাহমুদুর রহমান নয়, কোনো নাগরিকই আদালত বা কোথাও নিরাপদ থাকবে না। সংবাদ ব্রিফিংয়ে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. আবদুল মঈন খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব মাহবুবউদ্দিন খোকন, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবীর খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, আসাদুল হাবিব দুলু, নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, মাহবুবের রহমান শামীম, শামা ওবায়েদ ও প্রচার সম্পাদক শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি উপস্থিত ছিলেন।
ড্যাব ও ফিনল্যান্ড বিএনপির নিন্দা
বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ-বিএসপিপি’র আহ্বায়ক ও দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমানের উপর হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, ড্যাব। সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. একেএম আজিজুল হক ও মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন বিবৃতিতে বলেন, আদালত প্রাঙ্গণে এহেন বর্বরোচিত হামলায় পেশাজীবী মহলসহ দেশবাসী গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। বুদ্ধিজীবী ও পেশাজীবী প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমানকে হত্যার উদ্দেশ্যে এ হামলা চালায় বলে প্রতিয়মান হচ্ছে। জাতি আজ গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। এই ন্যক্কারজনক হামলার দায়-দায়িত্ব বর্তমান সরকারকেই বহন করতে হবে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি করছি। সেই সঙ্গে দোষী ব্যক্তিদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি। এদিকে বিএসপিপি’র আহ্বায়ক ও দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমানের উপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ-বিএসপিপি। বিএফইউজে, সুপ্রিম কোট বার এসোসিয়েশন, ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশÑড্যাব, ডিইউজে, এসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স, এসোসিয়েশন অফ এগ্রিকালচারিস্ট-এ্যাব, শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্যজোট, ইউট্যাব, ঢাকা আইনজীবী সমিতি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক জোট, জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম জাবি, এমবিএ এসোসিয়েশনের সমন্বয়ে গঠিত সংগঠনটির সভাপতি হলেন মাহমুদুর রহমান। ওদিকে দৈনিক আমার দেশ-এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের উপর হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে ফিনল্যান্ড বিএনপি। গতকাল গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা বলেন, দেশে বিরোধী মতের মানুষ কতোটা অসহায় তা এ হামলার ঘটনা থেকেই স্পষ্ট। দেশে শুধু বিরোধীদের কণ্ঠরোধ নয়, মানুষের ভরসার স্থান আদালতও আজ আর কারো জন্য নিরাপদ নয়। বিবৃতিতে তারা অবিলম্বে এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের আইনের আওতায় এনে বিচারের সম্মুখিন করার দাবি জানান। বিবৃতিতে ফিনল্যান্ড বিএনপি নেতা জামান সরকার, মবিন মোহাম্মদ, মোকলেসুর রহমান চপল, এজাজুল হক ভূঁইয়া রুবেল, বদরুম মনির ফেরদৌসসহ অর্ধশতাধিক নেতা স্বাক্ষর করেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

অতোটা উদার নন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান

দাম না বাড়িয়ে গ্যাস আমদানিতে ভর্তুকি ৩১০০ কোটি টাকা

২৪ ঘন্টা আগে সেনা নামালে, বাঁচত হাজারো মানুষ

নির্মম নির্যাতনের শিকার শিশু গৃহকর্মী

সৌদি আরবের পথে প্রধানমন্ত্রী

যৌন হয়রানির অভিযোগে শাবি’র সহকারী প্রক্টরকে অব্যাহতি

‘মতবিরোধ থাকলেও নির্বাচন করা কঠিন হবে না’

এসএসসি’র নির্বাচনী প্রশ্নপত্র ফাঁস

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটে পাসের হার ২৬.২১ শতাংশ

২০ দল থেকে বেরিয়ে গেল ন্যাপ-এনডিপি

সম্পাদক পরিষদের সাত দফার প্রতি সুপ্রিম কোর্ট বারের সমর্থন

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রথম কর্মসূচি সিলেটে

গ্রেনেড হামলা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য সামঞ্জস্যহীন ও রহস্যাবৃত: রিজভী

নারী ত্রাণকর্মীকে গুলি করে হত্যা করলো বোকো হারাম

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৯টি ধারা সংশোধনে লিগ্যাল নোটিশ

জাফরুল্লাহ’র বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা