স্বামীর বিরুদ্ধে ‘ওরাল সেক্সের’ অভিযোগে সুপ্রিম কোর্টে স্ত্রী

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৯ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:১৮
স্বামীর বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন ভারতীয় এক নারী। তার অভিযোগ তার বিবাহিত জীবন চার বছরের। এর মধ্যে স্বামী তাকে জোরপূর্বক অস্বাভাবিক ‘ওরাল সেক্সে’ বাধ্য করে। এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আর্জি জানিয়েছেন তিনি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া। এতে বলা হয়েছে, ওই নারীর পক্ষে আইনি লড়াই করছেন অপর্ন ভাট। তার মাধ্যমেই সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করা হয়েছে। বলা হয়েছে, স্বাভাবিক নিয়মের বাইরে যান তার স্বামী।
তাকে বাধ্য করা হয় ‘ওরাল সেক্সে’। এমন অভিযোগ পাওয়ার পর বিচারপতি এনভি রামানা ও এমএম শান্তানাগৌদরের বেঞ্চ তার স্বামীকে নোটিশ পাঠিয়েছে। ঘটনাটি গুজরাট রাজ্যের। সেখানে সরকারকান্তা নামের একটি স্থানে ২০০২ সালে ১৫ বছর বয়সে বাগদান হয় ওই নারী ও তার স্বামীর। এরপর তাদের বিয়ে হয় ২০১৪ সালে। তার স্বামী একজন ডাক্তার। কিন্তু তার মধ্যে রয়েছে অপ্রকৃত যৌন ক্ষুধা। এ জন্য তিনি বার বার স্ত্রীকে ওরাল সেক্সে বাধ্য করেন। এতে সায় দেন না ওই নারী। তার মানসিক অবস্থা তার স্বামী বুঝতে পারেন না। ঘটনা এখানেই শেষ নয়। ওরাল সেক্সের বাইরেও তাদের শারীরিক সম্পর্কের দৃশ্য ভিডিও আকারে ধারণ করতে জোরাজুরি করেন ওই ডাক্তার স্বামী। চাপে পড়ে তার এসব চাহিদা পূরণ করেন ওই নারী। এতে রাজি না হলে তাকে হুমকি দেয়া হয়। শারীরিক অত্যাচার করা হয়। এমন অবস্থায় স্বামীর বিরুদ্ধে বৈবাহিক সম্পর্ক থাকার পরও ধর্ষণ ও ওরাল সেক্সের অভিযোগে এফআইআর করেছেন ওই নারী। কিন্তু এ অভিযোগ আমলেও নেয় নি তার স্বামী। পাল্টা তার স্বামীও গিয়েছেন আদালতে। এ বিষয়ে গুজরাট হাইকোর্ট বলেছে, এই অভিযোগ ৩৭৭ ধারার অধীনে অপরাধের মধ্যে পড়ে। ভারতীয় দন্ডবিধির ৩৭৭ নং ধারাকে অপরাধ হিসেবে গণ্য না করার দাবিকে করা পিটিশনের রায় মঙ্গলবার স্থগিত রেখেছে আদালতের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ। শুনানির সময় বেঞ্চের একজন বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় তার পর্যবেক্ষণে বলেন, যদি স্বামী ও স্ত্রী উভয়ে সম্মত থাকা অবস্থায় তারা ওরাল সেক্স করেন তাহলে তাকে অপ্রাকৃতিক যৌনতা বা প্রকৃতির নিয়মের বাইরে যৌনতা বলা যাবে না।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বাংলাদেশকে এখন সবাই সম্মানের চোখে দেখে

এরপরও মুক্তিযোদ্ধা সার্টিফিকেট পেলাম না

রাজনৈতিক গোষ্ঠী ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে ধর্মের অপব্যবহার করছে

সেই চালক-হেলপারের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

তৃতীয় ধাপে ভোট পড়েছে ৪১ দশমিক ৪১ শতাংশ

কালরাত স্মরণে ব্ল্যাকআউট

সরকার ছদ্মবেশে একদলীয় বাকশাল প্রতিষ্ঠা করেছে

শহিদুল আলমের মামলায় হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত হয়নি

সাহসিকতা ও সেবায় পুরস্কার পাচ্ছেন ৫৯ সদস্য

ঘুষ না খাওয়ার শপথ পড়ালেন অর্থমন্ত্রী

মৌলভীবাজার যুবলীগের কমিটিতে ছাত্রদল নেতা!

মঠবাড়িয়ায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

মাদক পাচার ও বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শরণার্থী

ফেল থেকে পাস ৮ হাজার শিক্ষার্থী

ক্রাইস্টচার্চের ঘটনায় সর্বোচ্চ পর্যায়ের তদন্তের ঘোষণা

ভিকারুননিসায় অধ্যক্ষ নিয়োগে বাধা নেই