জমে উঠেছে রাসিক নির্বাচন

ভোট নিশ্চিত করতে মাঠে কেন্দ্রীয় নেতারা

অনলাইন

আসলাম-উদ-দৌলা, রাজশাহী থেকে | ১৯ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১২:৪১ | সর্বশেষ আপডেট: ৫:১৮
শান্তির নগরী, নির্মল বাতাসের নগরী হিসেবে খ্যাত রাজশাহী সিটিতে অবস্থান তৈরি করতে মরিয়া হয়ে আছে রাজনৈতিক দলগুলো। আওয়ামী লীগ- বিএনপির পাশাপাশি একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী পক্ষে গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি মাঠে আছেন। এবার নির্বাচনী প্রতিটি দলই চাচ্ছে চমক তৈরি করতে। চলছে কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে প্রার্থীর প্রচারণা। কেন্দ্রীয় নেতারা স্থানীয় নেতাকর্মীদের দলীয় প্রার্থীর পক্ষে ভোটারদের রায় প্রার্থনা করছেন। চাচ্ছেন যে কোন ভাবে ভোটারদের আশ্বস্ত করতে।
খুলনা ও গাজীপুর নির্বাচনের পর বিএনপি নেতাকর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করতে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের পক্ষে মাঠে নামেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক তালুকদার রুহুল কুদ্দুস দুলু। কয়েকদিন অবস্থান করে গতকাল সন্ধ্যায় তিনি রাজশাহী ছেড়েছেন। এখন রাজশাহীতে অবস্থান করছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।
সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট লক্ষ্মীপুর এলাকায় কেন্দ্রীয় নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বিএনপি প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে সাথে নিয়ে প্রচারণা শুরু করেন।
সঙ্গে ছিলেন দুই হেভিওয়েট নেতা সাবেক মেয়র বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু ও মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন।
কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতি, বাঁধা-বিঘেœর মধ্যেও কৌশলী প্রচারণায় বিএনপির তৃণমূলের  নেতাকর্মীদের জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী করছে। শেষ পর্যন্ত মান ভেঙ্গে মাঠে নামেন জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি সাবেক এমপি নাদিম মোস্তফা। জামায়াত নীরব থাকলেও তাদের পুরোটা ভোটই যাচ্ছে বিএনপির ঘরে। বিএনপি নেতৃবৃন্দ একযোগে প্রার্থীর প্রচারণায় নামছে। তারা ভোটারদের ভোটকেন্দ্রমুখী করতে চেষ্টা চালাচ্ছেন।
অন্যদিকে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জাতীয় ফিগার এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন জাতীয় নেতার সন্তান হওয়ার সুবাদে কেন্দ্রীয় নেতাদের আন্তরিক সহযোগিতা পাচ্ছেন। তারা প্রশাসনিক দক্ষতা নগর উন্নয়ন সহায়ক বলে ভোটারদের আশ্বস্ত করতে মাঠে নেমেছেন খুলনা সিটি নির্বাচনের সদ্য বিজয়ী মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। তিনি পৃথকভাবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন।
আওয়ামী লীগ প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন নিজেই কোন শীর্ষ নেতাছাড়া স্থানীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রচারণায় নামছেন। সকালে তিনি দাশমারী বউবাজার এলাকা থেকে প্রচারণা শুরু করেন পরে নতুন বিলসিমলা, ব্যাংক কলোনীতে গণসংযোগ করেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এমন নির্বাচন হওয়া উচিত যাতে বৈধতার সংকট থেকে শাসনব্যবস্থা মুক্ত হয়

সেপ্টেম্বরে খাসোগি হত্যার নীলনকশা তৈরি হয়

খালেদা জিয়ার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড চায় দুদক

মানহানির মামলায় মইনুল হোসেন কারাগারে

মইনুলকে গ্রেপ্তার জরুরি ছিল- কাদের

ঢাবি’র ‘ঘ’ ইউনিটের উত্তীর্ণদের নিয়ে আবার পরীক্ষা

সরকারের সাম্প্রতিক পদক্ষেপে ড. কামালের উদ্বেগ

সেলিম ওসমানকে অব্যাহতি

কোটা আন্দোলনের চার নেতাকে ছাত্রলীগের মারধর

জয়-পরাজয়ে অন্তরায় কোন্দল

পার্বত্য অঞ্চলের শান্তিতে হুমকি ৯৬৯-এর তৎপরতা

সিলেটে রাতে ধরপাকড়ের অভিযোগ

সিলেটে মাজার জিয়ারতে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা ( ভিডিও)

এবার মোবাইল অ্যাপ দেবে অ্যাম্বুলেন্সের সন্ধান

মধ্যরাতে তরুণীর সঙ্গে পুলিশের অশোভন আচরণ ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ

সৌদিতে ‘যৌনদাসী’ হিসেবে বিক্রি হচ্ছে বাংলাদেশি নারীরা