বর্তমান সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন হতে পারে না

বাম গণতান্ত্রিক জোটের আত্মপ্রকাশ

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৯ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:১৯
৮টি বামপন্থি রাজনৈতিক দল মিলে ‘বাম গণতান্ত্রিক জোট’ গঠনের ঘোষণা  দেয়া হয়েছে। গতকাল দুপুরে রাজধানীর পুরানা পল্টনস্থ মুক্তি ভবনে জোটের অস্থায়ী কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই জোটের ঘোষণা দেয়া হয়। এ সময় নেতারা বলেন, ‘জনগণের অন্তরের আকাঙ্ক্ষার প্রতিধ্বনিত করাই এই জোটের লক্ষ্য।’ তারা বলেন, ‘নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করা হয়েছে, এর বিরুদ্ধে আমরা একটি শক্তিশালী আন্দোলন গড়ে তুলতে চাই। নির্বাচনী ব্যবস্থার আমূল সংস্কার চাই। নির্বাচন কমিশনসহ যে সব ক্ষেত্রে প্রয়োজন, সেখানে আমরা লাগাতার অবরোধসহ শক্তিশালী আন্দোলন করবো।’

জোটভুক্ত দলগুলো হলো- বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ, খালেকুজ্জামান), বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলন, গণসংহতি আন্দোলন ও বাসদ (মার্ক্সবাদী)। জোটের সমন্বয়ক হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হককে। তবে, জোটের শরিক দলগুলোর মধ্য থেকে তিন মাস পর পর একজন করে সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানান সাইফুল হক। নতুন এই জোটের পক্ষ থেকে গতকাল কর্মসূচিও ঘোষণা করা হয়।
সমন্বয়ক সাইফুল হক জানান, জোটের শরিক দলগুলোর মধ্যে থেকে তিন মাস পর পর একজন সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করবেন। জোটের কেন্দ্রীয় পরিষদের সদস্যরা হচ্ছেন- সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম, বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, বাসদ নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা আকবর খান, বাসদের (মার্ক্সবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা শুভ্রাংশু চক্রবর্তী ও ফখরুদ্দিন কবির আতিক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকী, গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা ফিরোজ আহমেদ, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু ও একই দলের কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক আবদুস সাত্তার, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু ও কেন্দ্রীয় নেতা মমিন- উর রহমান বিশাল, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক ও কেন্দ্রীয় নেতা রণজিৎ কুমার।

সংবাদ সম্মেলনে সিপিবি’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ‘নির্বাচনকে যে প্রহসনে পরিণত করা হয়েছে, এর বিরুদ্ধে আমরা একটি শক্তিশালী আন্দোলন গড়ে তুলতে চাই। নির্বাচন কমিশনসহ যেসব ক্ষেত্রে  প্রয়োজন সেখানে লাগাতার অবরোধসহ শক্তিশালী আন্দোলন এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। আর এসব কর্মসূচি শুধু ঢাকাতেই সীমাবদ্ধ থাকবে না, সারা দেশে এই আন্দোলন ছড়িয়ে দেবো।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা নির্বাচন ব্যবস্থার আমূল সংস্কার চাই। সেখানে সংখ্যানুপাতিক প্রতিনিধিত্ব ব্যবস্থা চালু করতে চাই। টাকার খেলা, পেশিশক্তি, প্রশাসনিক কারসাজি থেকে নির্বাচনকে মুক্ত করতে চাই।’ মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ‘বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না। তাই, আগামী নির্বাচনের আগে পার্লামেন্ট ভেঙে দিতে হবে। নির্বাচনকালে যাতে প্রকৃত নিরপেক্ষ সরকার এবং নির্বাচন কমিশন উভয়ের ক্ষেত্রে যাতে নিরপেক্ষ কর্তৃত্ব এই দেশের উপরে থাকে সেই জন্য সংবিধান সংশোধন করে হলেও সেই ব্যবস্থা অবিলম্বে চালু করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘জনগণের অন্তরের আকাঙ্ক্ষার প্রতিধ্বনিত করাই জোটের লক্ষ্য এবং সেটাকে ভোটের সংখ্যায় রূপান্তরিত করার জন্যও আমাদের প্রচেষ্টা থাকবে। কিন্তু এই জোট ভোটসর্বস্ব জোট না, এটি ইলেকশন অ্যালায়েন্স না। ইলেকশনটা আমাদের সামগ্রিক আন্দোলনের একটা অংশ। আন্দোলনের স্বার্থে ভোটে আমরা অংশগ্রহণ করতে পারি, আবার বয়কটও করতে পারি।’ সরকারের সঙ্গে থাকা বাম দলগুলো এই জোটে আসতে পারবে কিনা- এমন প্রশ্নে মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ‘প্রকৃত বামপন্থিরা রাজপথে নামলে পরে আমাদের সঙ্গে মিলিতভাবে এই জোটকে আরো সমপ্রসারণ করবো। কিন্তু যারা শাসক শ্রেণির সঙ্গে এই ফ্যাসিস্ট দুঃশাসনের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে তারা আমাদের এই চিন্তা বা আহ্বানের আওতাভুক্ত না। আমাদের লড়াই তাদের বিরুদ্ধেও।’

সংবাদ সম্মেলনে নতুন জোটের পক্ষ থেকে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। নেতারা জানান, সরকারের নির্যাতন-দুর্নীতি-লুটপাটের বিরুদ্ধে এবং জনগণের অধিকার নিশ্চিত করার দাবিতে আগামী ২৪শে জুলাই ঢাকাসহ দেশব্যাপী বিক্ষোভ সমাবেশ হবে। ঢাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ বিকাল ৪টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া ভোটাধিকার নিশ্চিত করা এবং বিদ্যমান নির্বাচনী ব্যবস্থার আমূল সংস্কারের দাবিতে আগামী ৪ঠা আগস্ট মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হবে। আন্দোলন জোরদার করার লক্ষ্যে আগামী ১০ ও ১১ই আগস্ট দেশের ৬টি বিভাগীয় শহর চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী ও রংপুরে জনসভা ও মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Now pilitics

২০১৮-০৭-১৮ ১৮:৩৫:২৬

নো কমেন্ট

আপনার মতামত দিন

জাতীয় আইনজীবী ঐক্যফ্রন্ট ঘোষণা

‘ক্ষমতায় গেলে ৭ দিনের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল’

‘ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই’

ব্যারিস্টার মঈনুলের খবর বর্জনের আহ্বান

বাংলাদেশকে কী দিয়ে গেলেন আইয়ুব বাচ্চু?

গাজীপুরে পলিটেকনিক ছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা

টাঙ্গাইলে দীপু মনির জনসভা পন্ড, উত্তপ্ত গোপালপুর-ভূঞাপুর

খালেদা জিয়া নির্বাচনে আসলে আওয়ামী লীগের অস্তিত্ব থাকবে না: ফখরুল

পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

খাসোগি হত্যা স্বীকার নিয়ে আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়া, সৌদি আরবের পদক্ষেপকে স্বাগত জানালেন ডনাল্ড ট্রাম্প

শীঘ্রই মিয়ানমার ফেরত যাচ্ছে ৮০০০ রোহিঙ্গা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঠাকুরগাঁও সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি যুবক নিহত

লন্ডন ফ্যাশন উইকের প্রথম বাংলাদেশি মডেল হলেন রমজান মিয়া

জাতির স্বার্থে জাপা’র মেরুকরণ ভিন্ন হতে পারে: এরশাদ

জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে ফের চাঁদাবাজি মামলা

খাসোগিকে হত্যা করা হয়েছে, স্বীকার করল সৌদি আরব