মিডফিল্ডে প্রভাব বিস্তারের মাধ্যমেই এসেছে ক্রোয়াটদের জয়

দেশ বিদেশ

| ১৩ জুলাই ২০১৮, শুক্রবার
মিডফিল্ডে প্রভাব বিস্তারের মাধ্যমেই ক্রোয়াটরা বিশ্বকাপে নতুন ইতিহাস গড়েছে বলে মনে করেন বাংলাদেশ ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল হক। তিনি বলেন, বিশ্বকাপে অংশ নেয়া সবদলের ভেতরে ক্রোয়াটদের মিডফিল্ডই বিশ্বসেরা। ম্যাচটি নিয়ে পেডিকশন করতে গিয়ে আমি বলেছিলাম- ইংলিশ আক্রমণভাগের সঙ্গে ক্রোয়েট মিডফিল্ডের লড়াই হবে। সেটাই হয়েছে বাস্তবে। ক্রোয়েশিয়ার মিডফিল্ড যেভাবে ডমিনেট করে ফুটবল খেলেছে তারই ফল হিসেবে মানজুকিচের পা হয়ে এসেছে জয়ের কাঙিক্ষত গোল। ইংল্যান্ড ফুটবলকে তার আঁতুড়ঘরে ফেরাতে না পারলেও ক্রোয়াটরা গড়েছে ইতিহাস। ইংলিশদের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে ক্রোয়েশিয়া। আমিনুল বলেন, ক্রোয়াটদের এ জয়ের নেপথ্যে কাজে করছে আরেকটি বিষয়।
এ দলটি অত্যন্ত প্যাশনেটিক ফুটবল খেলে। ম্যাচের পর ম্যাচে তারা পিছিয়ে পড়েও পেনিক হয় না। ধৈর্য্য ধরে একই টেম্পোতে ইতিবাচক ফুটবল খেলে যায়। শেষ পর্যন্ত প্রতিপক্ষের দু’য়েকটি ভুলকে কাজে লাগিয়ে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে। দ্বিতীয় রাউন্ডে তারা জাপানের সঙ্গে দুই গোলে পিছিয়ে থেকেও জিতেছে ৩-২ গোলে। কোয়ার্টার ফাইনালে এক গোলে পিছিয়ে পড়েও পরে সমতা এসেছে। সেদিন টাইব্রেকারেও তাদের খেলোয়াড়দের শারীরিক ভঙ্গিতেই ছিল চাপমুক্ততার রেশ। সেমিফাইনালেও পিছিয়ে পড়ে এগিয়ে গেছে ক্রোয়েশিয়া। ক্রোয়াটদের ধৈর্য্যও ইংল্যান্ডের হারের অন্যতম কারণ। তিনি বলেন, প্রথম পর্ব থেকেই ইংল্যান্ডের খেলা ছিল পজিটিভ, গতিময়। তারা দারুণ কার্যকারিতা দেখিয়েছে সেটপিসে। হ্যারি কেইন নিয়মিত গোল পেয়ে হয়েছেন গোল্ডেন বুটের দাবিদার। ইংলিশরা কেবল দেশবাসীর নয়, বিশ্ববাসীর প্রত্যাশার পারদ ঊর্ধ্বমুখী করেছিল তাদের নৈপুণ্যে। কিন্তু ১৯৯০ বিশ্বকাপের পর সেমিফাইনালে ফের স্বপ্নভঙ্গ ঘটেছে ইংল্যান্ডের। ম্যাচের আগে ইংল্যান্ডের পক্ষেই ছিল ফুটবলপ্রেমীদের বাজি। অনুমিতই ছিল তাদের জয়। ম্যাচের ৫ মিনিটের মাথায় জন ট্রিপিয়ারের গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর তারা খেলার টেম্পোটা ধরে রাখতে পারেনি। ইংলিশ ফুটবলাররা ধীরে ধীরে ম্যাচটি হাতছাড়া করে দেন। পিছিয়ে পড়ে বলের পজিশনে। কিন্তু হওয়ার কথা ছিল উল্টো। অন্যদিকে এক গোলে পিছিয়ে পড়ার পর ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিতে থাকে ক্রোয়াট মিডফিল্ড। স্পেসালি রাকিটিচ ও মদরিচ। তারা যেভাবে বল ট্রানজেকশন করেছে তারা সত্যিই অসাধারণ। মানজুকিচ যে গোলটি পেয়েছে তখন ইংল্যান্ডের ডিফেন্স ছিল এক্কেবারেই অসতর্ক। আমিনুল বলেন, হ্যারি কেইন একটি নিশ্চিত গোল মিস করেছেন। বলতে গেলে ম্যাচই মিস করেছেন। গোল্ডেন বুটও মিস করেছেন হয়তো। আর ক্রোয়াটরা ইতিবাচক খেলেই বের করে নিয়েছে ম্যাচটি। ম্যাচের আগে হ্যারি কেইনের বিপক্ষে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছিলেন ক্রোয়েট ডিফেন্ডার লভরেন। লুঝনিকি স্টেডিয়ামে তিনি সে চ্যালেঞ্জ জিতেছেন হ্যারি কেইনকে আটকে রাখার কাজটি দায়িত্বের সঙ্গে পালন করে। আমিনুল বলেন, বিশ্বকাপের আসরে বারবার সুযোগ আসে না, সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে না পারা তাই অমার্জনীয়। ক্রোয়াটদের বিপক্ষে প্রথমার্ধে অনেক সুযোগ নষ্ট করেছে ইংল্যান্ড। দুই ডিফেন্ডারে ছকে হ্যারি কেইনকে আটকানোর কৌশলে সফল হয়েছেন ক্রোয়াট কোচ জলাতকো দালিচ। এছাড়া ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে বারবার খেই হারিয়েছে ইংল্যান্ডের অনভিজ্ঞ ডিফেন্স। প্রথমার্ধে ক্রোয়াটরা কিছুটা ছন্দহীন থাকলেও তাদের স্বাভাবিক ছন্দে ফিরিয়ে এনেছে পেরিসিচ। আমিনুল বলেন, নকআউট পর্বে ক্রোয়াটরা প্রতিটি ম্যাচই খেলেছে ১২০ মিনিট। একভাবে বিবেচনা করলে এটা তাদের শারীরিক সক্ষমতার পরিচয়। বেশির ভাগ দলই নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পর শারীরিক এবং মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে। কিন্তু ক্রোয়াটরা ভিন্নধাতুতে গড়া। অতিরিক্ত সময়ে ক্রোয়াটরা ভয়ঙ্কর আক্রমণাত্মক হয়ে উঠেন।  অনুলিখন: কাফি কামাল




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

যে ২৩ দেশে তিন তালাক নিষিদ্ধ

মেলবোর্নে সন্ত্রাসের অভিযোগ স্বীকার করল বাংলাদেশের সোমা

বঙ্গবন্ধু মহাবিদ্যালয়ের নাম মুছে হলো এমপির নাম,প্রতিবাদে মানববন্ধন

চকরিয়ায় যুবকের মাথা ন্যাড়া করলেন পৌর কাউন্সিলর

এলকোহল মিশ্রিত পানীয় পানে বাংলাদেশী সহ ২১ জনের মৃত্যু মালয়েশিয়ায়

মায়ার জীবনে যা ঘটেছে, তা ছিল মিরাকল!

বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস

কেউ বলতে পারবে না কারো গলা টিপে ধরেছি, বাধা দিয়েছি

মেজর মান্নান স্বাধীনতাবিরোধী - মহিউদ্দিন আহমদ

কেন আমাকে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে না?

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের প্রাথমিক তদন্ত শুরু আইসিসি’র

ভারতের বড় জয়

নওয়াজ মুক্ত, সাজা স্থগিত

সামনে আফগানিস্তান, সূচি নিয়ে ক্ষুব্ধ বাংলাদেশ

ঘণ্টায় দুজন ডেঙ্গু রোগী

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক গ্রেপ্তার