শিক্ষাবিদদের আশ্বাসে অনশন ভাঙলেন নন-এমপিও শিক্ষকরা

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১২ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার
শিক্ষাবিদ ও শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসে অনশন ভাঙলেন নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা। গতকাল দুপুরে সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সঙ্গে দেখা করেন আন্দোলনরত শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধিদল। প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস অনুযায়ী এমপিও করা হবে এমন প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন শিক্ষামন্ত্রী। এরপর বিকালে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, শিক্ষাবিদ রাশেদা কে চৌধুরী প্রেস ক্লাবের সামনে গিয়ে অনশনরত শিক্ষকদের আশ্বাস দিয়ে অনশন ভাঙান। এমন আশ্বাসের পর শিক্ষক নেতারা বলেন, শ্রদ্ধেয় শিক্ষকদের আশ্বাসে আমরা আন্দোলন স্থগিত করেছি। অধ্যাপক আনিসুজ্জামান ও রাশেদা কে চৌধুরী সরকারের পক্ষ থেকে এসেছেন। আমরা তাদের কাছ থেকে আশ্বাস পেয়েছি। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে খুশির বার্তা দেয়া হয়েছে।
দাবি বাস্তবায়নে আগামী এক থেকে দুই মাস সময় লাগতে পারে। জুলাই থেকে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিও সুবিধা দেয়া হবে বলে শিক্ষামন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন। ফলে আমরা এখন থেকে আন্দোলন স্থগিত করেছি। আজ (বৃহস্পতিবার) থেকে পাঠদানে মনোযোগী হবো। এর আগে বিকাল সাড়ে ৩টায় অনশন পাঠদানের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষক-কর্মচারীদের পানি খাইয়ে অনশন ভাঙান জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান।
আন্দোলনরত শিক্ষকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা দীর্ঘদিন ধরে খোলা আকাশের নিচে না খেয়ে আন্দোলন করে যাচ্ছেন। এটি জাতির জন্য কষ্টদায়ক ব্যাপার। আপনাদের দাবির যৌক্তিকতা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সংসদে আপনাদের বিষয়টি নিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন। আমরা আশা করছি বিষয়টি দ্রুত সমাধান হবে। আপনাদের সমস্যা সমাধানে শিক্ষা মন্ত্রণালয় একটি উপায় বের করবে, যাতে দ্রুত এমপিওভুক্তিকরণ করা সম্ভব হয়। আপনারা শিক্ষার্থীদের কথা ভাবুন, দেশের মানুষের কথা ভাবুন। আপনারা ক্লাসে ফিরে যান। এরপর তিনি শিক্ষকদের পানি পান করিয়ে অনশন ভাঙান। এ সময় উপস্থিত গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী বলেন, আপনাদের দাবি যৌক্তিক। আপনারা শিক্ষার্থীদের কথা ও সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে অনশন ভেঙে পাঠদানে মনোযোগ দিন। দ্রুত আপনাদের দাবি বাস্তবায়ন করা হবে। এরপর রাশেদা কে চৌধুরী একজন মহিলা শিক্ষককে পানি খাইয়ে অনশন ভাঙান।
নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিনয় ভূষণ রায় বলেন, অনশন ভাঙানের আগে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের সঙ্গে আমরা পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল সচিবালয়ে গিয়ে দেখা করেছি। শিক্ষামন্ত্রী তাদের এমপিও দেয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন বলে জানিয়েছেন। তাই আমরা আন্দোলন স্থগিত করেছি।
গত ৭ই জুন জাতীয় সংসদে চলতি অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী। তাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তিতে সুস্পষ্ট বরাদ্দ না থাকায় ক্ষুব্ধ হন নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা। এমপিওভুক্তির দাবিতে তারা রোজার মধ্যে ১০ই জানুয়ারি সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জড়ো হন। পুলিশ বাধা দিলে উল্টোপাশে রাস্তার ওপর অবস্থান নেন। ঈদের দিনও তারা সেখানে অবস্থান করেন। ২৫শে জুন থেকে টানা অনশন কর্মসূচি শুরু করেন।
এদিকে শিক্ষকদের দীর্ঘদিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৪ই জুন ‘বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮’ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তাতে আগের চেয়ে কিছু কঠিন শর্ত জুড়ে দেয়া হয়। তাতে শিক্ষকরা আরো ক্ষুব্ধ হন। তারা দাবি করেন সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করতে হবে। প্রয়োজনে পর্যায়ক্রমে তারা আর্থিক সুবিধা নেবেন। এমনকি এমপিও নীতিমালা শিথিল করতে হবে।




এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে ইসির অনাপত্তি, মুহিতকে নিষেধ

নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের স্ট্যাটাস কী হবে জানতে চান কূটনীতিকরা

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্টের উদ্বেগ

কারাগারে থেকে ভোটের প্রস্তুতি

শহিদুল আলমের জামিন

ধানের শীষে লড়বে ঐক্যফ্রন্ট

নিপুণ রায় চৌধুরী গ্রেপ্তার

আতঙ্ক উপেক্ষা করে পল্টনে ভিড়

বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত

কুলাউড়ায় সুলতান মনসুরের বিপরীতে কে?

ঢাকার প্রচেষ্টা ব্যর্থ

নির্বাচন পেছাবে না ইসির সিদ্ধান্ত

ঝিনাইদহে ৩৭৪ মামলায় আসামি ৪১ হাজার

বিএনপি আবার আগুন সন্ত্রাস শুরু করেছে

বড় জয়ে সিরিজে সমতা

উত্তেজনায় ফুটছে বৃটিশ রাজনীতি, চার মন্ত্রীর পদত্যাগ