লেবু খাওয়া ভালো, তবে বেশি লেবু বিপদও ডাকে! জানেন?

শরীর ও মন

| ৯ জুলাই ২০১৮, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:১১
বেশ কিছুদিন ধরেই লক্ষ্য করছেন এনার্জি লেভেল আগের থেকে কমে গিয়েছে. কোনও কাজই বিশেষ মনোযোগ দিয়ে করতে পারছেন না. পছন্দের জামা ঠিক ফিট করছে না. ওজন মাপতে গিয়ে দেখলেন তিন মাসে প্রায় ৬ কেজি ওজন বেড়ে গিয়েছে. কারণ ভাবতে গিয়ে দেখা গেল এই কয়েক মাস দেদার চকোলেট, মিষ্টি সাঁটিয়েছেন. বন্ধু বান্ধবদের পেন্ডিং ট্রিট সব মিলিয়ে খাওয়া দাওয়া ভালোই হয়েছে. আর তাতেই বেড়েছে ওজন. ঠিক করলেন কাল সকাল থেকে কিছু একটা শারীরিক কসরত করতেই হবে. সঙ্গে ডায়েট. নিকটজনেরা পরামর্শ দিল সকালে উঠে খালি পেটে একগ্লাস ঈষদুষ্ণ গরম জলে একটা গোটা পাতিলেবুর রস খেলে নাকি খুব ভালো কাজ হয়. চর্বি গলে, ডিটক্সিফিকেশনে সাহায্য করে. অগত্যা সকাল শুরু হল গরম জল আর লেবু দিয়ে. কদিন যাওয়ার পর দেখলেন নানা রকম শারীরিক সমস্যা দেখা দিচ্ছে. গ্যাস, অ্যাসিডিটি, খিদেমন্দা, বমি ইত্যাদি.
আমাদের শরীরের জন্য লেবু ভালো. লেবুর মধ্যে থাকা ভিটামিন সি ত্বক ভালো রাখে, দাঁত ও হাড়ের গঠনে সাহায্য করে কিন্তু অতিরিক্ত খেলে নানারকম শারীরিক সমস্যা দেখা যায়. যেমন???

দাঁতের এনামেল ক্ষয়ে যায়
লেবু আমাদের নানা রকম উপকারে আসে. তবে অতিরিক্ত খেলে লেবুর মধ্যে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড থেকে দাঁত ক্ষয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা যায়. দাঁতের উপর সাদা স্তর পড়ে যায়. সম্প্রতি ব্রাজিলের National Institute of Dental and Craniofacial Research এর একটি গবেষণা পত্রে বলা হয়েছে সফট ড্রিংক খেলে দাঁতের যে সমস্যা হয় লেবুর থেকেও ঠিক একই সমস্যা হয়. এছাড়াও যারা প্রতিদিন সকালে উঠে লেবু জল খান তাঁরা যদি দিনে অন্তত দুবার ব্রাশ করেন তাহলে দাঁতের সমস্যা অনেক কম হয়.

মুখমন্ডলের কোশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়
দীর্ঘদিন ধরে লেবু খেলে মুখের মধ্যে থাকা নরম কোশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়. সেখান থেকে মুখের মধ্যে ফোঁড়া বা ফুসকুড়ি হওয়ার সম্ভাবনা রয়ে যায়. সাইট্রিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ যে কোনও ফল খেলেই এই সমস্যা হতে পারে.

উৎসেচক ভেঙে যায়
খালি পেটে লেবু খেলে আমাদের শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় উৎসেচক পেপসিন ভেঙে যায়. পেপসিন আমাদের হজমে সাহায্য করে. মূলত প্রোটিন হজম করায়. এদিকে লেবুর মধ্যে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড পেপসিন কে ভেঙে ক্ষতিকর এনজাইম তৈরি করে. ফলে খাবার ঠিকমতো হজম হয় না. এমনকি পেপটিক আলসারের সম্ভাবনা থেকে যায়. যে কোনও আ্যাসিড সমৃদ্ধ ফল খেলেই এই সসম্ভাবনা থাকে.

অ্যাসিড এবং বমির সম্ভাবনা থাকে
ভিটামিন সি শরীরের জন্য প্রয়োজন. কিন্তু অতিরিক্তও ভালো নয়. অতিরিক্ত লেবু বা লেবুর রস খেলে সেখান থেকে অ্যাসিড তো হবেই. সেই সঙ্গে বমি বমি ভাব বা বমি হতেই পারে. যেখান থেকে পরবর্তীকালে গুরুতর সমস্যা দেখা দেয়. শুধুমাত্র লেবু জল নয়. যে কোনও ডিটক্স ডায়েট ড্রিংক থেকেই এই সমস্যা হতে পারে.

বারবার বাথরুম পাওয়া, শরীর শুকনো হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা যায়
গরম জলে লেবু যেহেতু ডিটক্সিফিকেশনে সাহায্য করে তাই বারে বারে বাথরুমে যাওয়ার প্রয়োজন হয়. এছাড়াও পেট ফেঁপে যাওয়া, শরীর শুকনো হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দেয়. বারবার প্রস্রাব হওয়ার ফলে ইলেকট্রোলাইটস ও সোডিয়াম দেহের থেকে বেরিয়ে যায়. আর এই বার বার বাথরুমে যাওয়ার ফলে ব্লাডারে চাপ পড়ে. যা কিন্তু শরীরের জন্য ক্ষতিকর. এছাড়াও পটাসিয়ামের অভাব দেখা যায়. এক সপ্তাহ লেবু বা সাইট্রিক জাতীয় ফল খাওয়া বন্ধ রাখুন. তাহলেই পার্থক্য বুঝতে পারবেন.

আয়রনের মাত্রা বাড়ায়
অতিরিক্ত ভিটামিন সি রক্তে আয়রনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়. আয়রন প্রয়োজন. কিন্তু পরিমাণ বেশি হলে তা ক্ষতিকর. যার ফলে অভ্যন্তরীন অঙ্গ প্রত্যঙ্গের ক্ষতি হয়.

মাইগ্রেন বাড়ায়
সাইট্রাস মাইগ্রেন বাড়ায়. যাদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে তাদের এমনিই লেবু জাতীয় ফল না খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়.

সানবার্ন হয়
লেবুতে অনেকের অ্যালার্জি আছে. অনেকেই তা বুঝতে পারেন না. লেবু খেয়ে রোদে বেরোলে স্কিনে লাল র‌্যাশ দেখা যায়. কিছু ক্ষেত্রে কালো ছোপও দেখা দেয়. যাকে আমরা সানবার্ন বলে ভুল করি. ডাক্তারি পরিভাষায় একে সাইটোফোটোডার্মাটাইটিস বলা হয়. লেবুর মধ্যে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিডের সঙ্গে সূর্যালোকের বিক্রিয়ায় এই সমস্যা দেখা যায়. এছাড়াও অতিরিক্ত লেবুর রস স্কিন ক্যানসার ডেকে আনে.

জেনে রাখুন
প্রতিদিন কোনও গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ খেলে লেবু বা সাইট্রিক জাতীয় ফল এড়িয়ে যাওয়াই ভালো.
এছাড়াও ক্যালসিয়ামের ওষুধ খেলে সঙ্গে লেবু খাবেন না. এতে হিতে বিপরীত হবে.
সম্প্রতি জাপানের একটি সমীক্ষা বলছে, ওষুধ চলাকালীন ফলের জুস এড়িয়ে যেতে পারলে সবচেয়ে ভালো হয়.

প্রতিদিন কতটা খেতে পারেন
প্রতিদিন ১২০ মিলি লিটার পর্যন্ত লেবুর রস খেতে পারেন. অর্থাৎ প্রতিদিন ফলের রস এবং লেবু রস মিলিয়ে ১২০ মিলি লিটারের বেশি খাওয়া শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর. তবে গর্ভবতী দের ক্ষেত্রে এবং যাদের দুগ্ধ জাতীয় খাবারে সমস্যা রয়েছে তাঁরা ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া লেবুর রস বা খালি পেটে গরম জলে লেবু খাবেন না.

সূত্র: এই সময়



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তাদের প্রতি সিইসি সব প্রার্থীকে সমান সুযোগ দিতে হবে

‘জীবন একটা পাঠশালা, বোঝার আগেই বন্ধ হয়ে যায়’

ময়মনসিংহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

শায়েস্তাগঞ্জে ইয়াবাসহ বিক্রেতা আটক

৬ মাসের মধ্যে ভারত-বাংলাদেশ আরেকটি নতুন পানিপথ

যৌন আসক্তি ও একজন নীলার স্বীকারোক্তি- প্রথম পর্ব

নির্বাচন নয়, প্রত্যাবাসন নিয়েই কূটনৈতিক ব্রিফিং: পররাষ্ট্র সচিব

বিশিষ্ট নাগরিকদের ইতিবাচক ভূমিকা চায় ঐক্যফ্রন্ট

ঢাকায় ভোটের অঙ্ক

নির্বাচন পেছানোর সুযোগ নেই

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ইসির অধীনে আনা উচিত

পর্যবেক্ষকদের জন্য নির্বাচন পেছানোর দাবি অযৌক্তিক- কাদের

নির্বাচন নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কূটনৈতিক ব্রিফিং বৃহস্পতিবার

পল্টনে অন্যরকম দৃশ্য

নির্বাচনে লড়তে চান শতাধিক শীর্ষ ব্যবসায়ী

‘হাসিনা: অ্যা ডটারস টেল’ মুক্তি পাবে ১৬ই নভেম্বর