ভারতে একটি পরিবারের ১১ জনের গণ আত্মহত্যা

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১ জুলাই ২০১৮, রোববার
একজন, দুইজন নয়, একসঙ্গে একটি পরিবারের ১১ জনের গণ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে দিল্লির বুখারি এলাকায়। প্রতিবেশিদের কাছে খবর পেয়ে রবিবার সকালে পুলিশ ঘরের দরজা ভেঙ্গে দেখে ১১ জনের ঝুলন্ত লাশ। প্রত্যেকের চোখ ও মুখ কাপড়ে বাঁধা ছিল। হতবাক হয়ে যান পুলিশ কর্তারাও। রবিবার সকালে এমনই ঘটনার সাক্ষী হল বুখারি। জানা গেছে এরা সকলেই একটি পরিবারের। মৃতদের মধ্যে ৫টি শিশু রয়েছে। কোনও আত্মহত্যার নোট পাওয়া যায়নি।
পুলিশ লাশগুলি ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে জানিয়েছে, এটা মনে করা হচ্ছে গণ আত্মহত্যার ঘটনা। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, ২০ বছর ধরে বুখারি এলাকার ২৪ সন্ত নগরের দোতলা বাড়িতে থাকত ওই পরিবারটি। দুই ভাই ললিত এবং ভুবনেশ্বর তাদের পরিবার নিয়ে ওই বাড়িতে থাকতেন। সঙ্গে থাকতেন তাদের মা, এক বিধবা বোন। তাদের আসল বাড়ি রাজস্থানে। পারিবারিক মুদির দোকানের ব্যবসা রয়েছে ললিত-ভুবনেশ্বরদের। এ ছাড়াও বড় ভাই ললিতের একটি আসবাবের দোকানও ছিল বাড়ির নীচেই। প্রতিবেশিরা জানিয়েছেন, দুই ভাই এক সঙ্গেই থাকতেন। তাদের পরিবারে কোনও আর্থিক অস্বচ্ছলতা ছিল বলে কোনও দিনই মনে হয়নি। এমনকি, পারিবারিক দ্বন্দ্বের কোনও ঘটনাও শোনা যায়নি। পরিবারটি খুব মিশুক ছিল বলেও জানিয়েছেন তারা। পুলিশ জানিয়েছে, ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। পাশাপাশি খুন না আত্মহত্যা সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

এলকোহল মিশ্রিত পানীয় পানে বাংলাদেশী সহ ২১ জনের মৃত্যু মালয়েশিয়ায়

মায়ার জীবনে যা ঘটেছে, তা ছিল মিরাকল!

বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস

কেউ বলতে পারবে না কারো গলা টিপে ধরেছি, বাধা দিয়েছি

মেজর মান্নান স্বাধীনতাবিরোধী - মহিউদ্দিন আহমদ

কেন আমাকে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে না?

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের প্রাথমিক তদন্ত শুরু আইসিসি’র

ভারতের বড় জয়

নওয়াজ মুক্ত, সাজা স্থগিত

সামনে আফগানিস্তান, সূচি নিয়ে ক্ষুব্ধ বাংলাদেশ

ঘণ্টায় দুজন ডেঙ্গু রোগী

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক গ্রেপ্তার

ড. কামালের সঙ্গে জোনায়েদ সাকির বৈঠক

খালেদার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি আসছে

মানবসেবার ব্রতই লোটে শেরিংকে তুলেছে এ পর্যায়ে

৫ দিনের রিমান্ডে হাবিব-উন নবী সোহেল