ভারতে একটি পরিবারের ১১ জনের গণ আত্মহত্যা

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১ জুলাই ২০১৮, রোববার
একজন, দুইজন নয়, একসঙ্গে একটি পরিবারের ১১ জনের গণ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে দিল্লির বুখারি এলাকায়। প্রতিবেশিদের কাছে খবর পেয়ে রবিবার সকালে পুলিশ ঘরের দরজা ভেঙ্গে দেখে ১১ জনের ঝুলন্ত লাশ। প্রত্যেকের চোখ ও মুখ কাপড়ে বাঁধা ছিল। হতবাক হয়ে যান পুলিশ কর্তারাও। রবিবার সকালে এমনই ঘটনার সাক্ষী হল বুখারি। জানা গেছে এরা সকলেই একটি পরিবারের। মৃতদের মধ্যে ৫টি শিশু রয়েছে। কোনও আত্মহত্যার নোট পাওয়া যায়নি।
পুলিশ লাশগুলি ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে জানিয়েছে, এটা মনে করা হচ্ছে গণ আত্মহত্যার ঘটনা। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, ২০ বছর ধরে বুখারি এলাকার ২৪ সন্ত নগরের দোতলা বাড়িতে থাকত ওই পরিবারটি। দুই ভাই ললিত এবং ভুবনেশ্বর তাদের পরিবার নিয়ে ওই বাড়িতে থাকতেন। সঙ্গে থাকতেন তাদের মা, এক বিধবা বোন। তাদের আসল বাড়ি রাজস্থানে। পারিবারিক মুদির দোকানের ব্যবসা রয়েছে ললিত-ভুবনেশ্বরদের। এ ছাড়াও বড় ভাই ললিতের একটি আসবাবের দোকানও ছিল বাড়ির নীচেই। প্রতিবেশিরা জানিয়েছেন, দুই ভাই এক সঙ্গেই থাকতেন। তাদের পরিবারে কোনও আর্থিক অস্বচ্ছলতা ছিল বলে কোনও দিনই মনে হয়নি। এমনকি, পারিবারিক দ্বন্দ্বের কোনও ঘটনাও শোনা যায়নি। পরিবারটি খুব মিশুক ছিল বলেও জানিয়েছেন তারা। পুলিশ জানিয়েছে, ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। পাশাপাশি খুন না আত্মহত্যা সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মসজিদ-উল নববীর ইমাম কারাগারে ‘মারা গেছেন’

জনগণের আস্থার মর্যাদা সমুন্নত রাখতে হবে

ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে ভোট ২৮শে ফেব্রুয়ারি

এমন মৃত্যু আর কত?

এক কিংবদন্তির প্রস্থান

ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে বিএনপির ১০ কমিটি

স্পাইসগার্ল টি-শার্ট এবং বাংলাদেশের গার্মেন্ট খাত

ইভিএমের কারচুপি জেনে ফেলায় খুন হন বিজেপি নেতা!

মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালের দাবিতে শাহবাগে ফের অবরোধ

ইজতেমা নিয়ে আদালতে আসা লজ্জাকর

তিনি সজ্জন, ভালো মানুষ

দেশে গণতন্ত্র ও উন্নয়ন একসঙ্গে এগিয়ে যাবে- প্রধানমন্ত্রী

সংরক্ষিত আসনে এমপি হতে চান ব্যারিস্টার মৌসুমী কবিতা

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আফজালের সব সম্পদ জব্দের নির্দেশ

মির্জাপুরে বিএনপির ৪০ নেতাকর্মী কারাগারে

মাঠ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সুবিধা আরো বাড়লো