মংলা বন্দর উন্নয়নে ভারত আর্থিক সাহায্য দিচ্ছে

অনলাইন

কলকাতা প্রতিনিধি | ২৫ জুন ২০১৮, সোমবার, ১২:৪৩
বাংলাদেশের মংলা বন্দর দিয়ে ভারত বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য বৃদ্ধি করতে উদ্যোগী হয়েছে। আর এদিক লক্ষ্য রেখেই ভারত মংলা বন্দর উন্নয়নে ৬হাজার ২শ ৫৬ কোটি টাকা অর্থ সাহায্য দিচ্ছে। এই অর্থে বন্দর উন্নয়নের কাজ করা হবে। আগামী ২০১৯ থেকে ২০২২ সালের মধ্যে উন্নয়নের কাজ সম্পূর্ণ করা হবে বলে জানা গেছে। সূত্রের খবর, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের সময় তৃতীয় লাইন অব ক্রেডিটের (এলওসি) আওতায় আনার জন্য সাড়ে চার বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ চুক্তি করেছিলেন। সেখান থেকেই এই উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য টাকা দেওয়া হচ্ছে। প্রকল্পের জন্য দেয় ঋণ দিয়ে বন্দর জেটিতে ১ ও ২ নং কন্টেইনার টার্মিনাল নির্মাণ, কন্টেইনার হ্যান্ডলিং ইয়ার্ড নির্মাণ, কন্টেইনার ডেলিভারি ইয়ার্ড নির্মাণ, ইয়ার্ড শেড নির্মান, নিরাপত্তা দেওয়াল অটোমেশন ও অন্যান্য অবকাঠামোসহ বন্দরের সংরক্ষিত এলাকা সম্প্রসারণ, সার্ভিস ভেসেল জেটি শেড ও অফিস নির্মাণ, বন্দর ভবন (প্রশাসনিক) সম্প্রসারণ, এমপিএ টাওয়ার, পোর্ট রেসিডেনশিয়াল কমপ্লেক্স কমিউনিটি সুবিধাদি নির্মাণ, ইকুইপমেন্ট ইয়ার্ড, ইকুইপমেন্ট শেড ও প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিসহ এমটি পুল নির্মাণ, সিগনাল রোড ক্রসিং ও ওভারপাস নির্মাণ ও বিনোদন ব্যবস্থাসহ বাঁধ নির্মাণ এবং ৫ টি হারবার ক্রাফট কেনার কাজ করা হবে। মংলা বন্দরের গুরুত্ব বিদেশিদের কাছে বৃদ্ধি পেলেও বন্দরের পরিকাঠামো মোটেই ভাল নয়।
পদ্মাসেতু চালু হলে বন্দরের ব্যস্ততা আরও বৃদ্ধি পাবে। ফলে সেদিকে লক্ষ্য রেখে অবকাঠামো উন্নয়ন করা হবে।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বার্ন ইউনিটে প্রধানমন্ত্রী

খালেদা জিয়াকে কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হচ্ছে

গণশুনানির রিপোর্ট প্রকাশ করবে ঐক্যফ্রন্ট

যে কৌশলে ব্যাংকের টাকা হাতিয়ে নিতো ওরা

কয়েক সেকেন্ডে ঘিরে ফেলে ‘আগুনের সুনামি’

দগ্ধ ৯ জনই আইসিইউতে

মাকে বলেছিলেন ফিরতে দেরি হবে

শপথ নেবেন মোকাব্বির খান

মৌলভীবাজারে একটি আলোচিত বিয়ে

অষ্টম শ্রেণি পাস ওসি দিচ্ছেন এসএসসি পরীক্ষা

ফোন দেয়া হলো না নুরুজ্জামানের

এমন ভয়াল দৃশ্য আর দেখতে চান না বাসিন্দারা

মেয়রের নেতৃত্বে পুরান ঢাকার কেমিক্যাল মজুত সরানো শুরু

সোনাগাজীতে মা-মেয়ের আর্তনাদ

নোয়াখালীতে ১৭ জনের দাফন সম্পন্ন এখনো নিখোঁজ ৩১

তিন মিনিট দেরি করায় তোপের মুখে জাপানের মন্ত্রী