সানগ্লাসের জন্য কানাডার প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোকে জরিমানা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৪ জুন ২০১৮, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:১৩
একটি সানগ্লাসকে কেন্দ্র করে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোকে জরিমানা করা হয়েছে ১০০ ডলার। ওই জরিমানা তিনি পরিশোধও করেছেন। ওই সানগ্লাসটি তিনি উপহার হিসেবে পেয়েছিলেন। তবে তা গ্রহণের ৩০ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে তিনি আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তার বিরুদ্ধে ওই জরিমানা করা হয়েছে। উল্লেখ্য, সানগ্লাসটির অর্থমূল্য ২০০ ডলারের বেশি। এ নিয়ে সিবিসি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে শুক্রবার। এতে বলা হয়েছে ট্রডোকে এই জরিমানা করেছে পার্লামেন্টের নীতিগত ওয়াচডগ বা পর্যবেক্ষকরা। এ বিষয়ে কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট অ্যান্ড এথিকস কমিশনার মারিও ডিওনের অফিস থেকে একটি নোটিশ দেয়া হয়েছে।
কানাডার ‘কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট অ্যাক্ট’-আইনের অধীনে সরকারি দায়িত্বে থাকা সব কর্মকর্তা, কর্মচারী যদি ২০০ ডলার বা তার বেশি মূল্যের কোনো উপহার পেয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই তা প্রাপ্তির ৩০ দিনের মধ্যে জনসমক্ষে জানাতে হবে বা প্রকাশ করতে হবে। কিন্তু ট্রুডো তা করেন নি। ফলে জাস্টিন ট্রুডো ওই জরিমানা পরিশোধ করেছেন ১৮ই জুন। জরিমানা যখন দেয়ার কথা ছিল তার থেকে তিনি প্রায় এক বছর বেশি সময় নিয়েছেন। আর রিপোর্টটি প্রকাশ পেয়েছে অনেকটা বিলম্বে। প্রথমে এ রিপোর্ট প্রকাশ করে ব্লাকলোকস রিপোর্টার ২২ শে জুন। এ বিষয়ে শুক্রবার ট্রুডোর প্রেস সচিব ইলেনোর ক্যাটেনারো বলেছেন, প্রশাসনিক ত্রুটির কারণে যথাযথ প্রক্রিয়া সময়মতো সম্পন্ন করা যায় নি এবং উপহারটির কথা ৩০ দিনের মধ্যে প্রকাশ করা হয় নি। উল্লেখ্য, ট্রুডোকে ওই সানগ্লাসটি উপহার দিয়েছিলেন কানাডার একজন রাজনীতিক ওয়েড ম্যাকলাচলান গত গ্রীষ্মে। বাইরে এর খুচরা দাম ৩০০ থেকে ৫০০ ডলার। প্রথমে সানগ্লাসটি ট্রুডোকে পরতে দেখা যায় ২০১৭ সালে ভিয়েতনাম সফরের সময়। তবে প্রস্তুতকারক কে তা জানা যাচ্ছিল না। তবে কানাডার প্রধানমন্ত্রী সেখানকার কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট অ্যাক্ট আইনের অধীনে যে এবারই প্রথম ধরা পড়লেন তা নয়। ডিওনের পদে এর আগে দায়িত্ব পালনকারী মেরি ডসন গত বছর বলেছিলেন, জাস্টিন ট্রুডো ওই আইনের কিছু ধারা লঙ্ঘন করেছেন। ২০১৬ সালে বড় দিনের সময়ে তিনি আগা খানের মালিকানাধিন একটি ব্যক্তিগত দ্বীপে অবকাশ কাটাতে গিয়েছিলেন। ব্যবহার করেছিলেন একটি ব্যক্তিগত হেলিকপ্টার। এসব বিষয় তিনি প্রকাশ করেন নি। কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট অ্যান্ড এথিকস কমিশনার মারিও ডিওন বলেছেন, ট্রুডো কিভাবে ওই সফরে আইন লঙ্ঘন করেছেন? তা হলো, এই সফর উপহার দিয়ে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার ক্ষমতাকে প্রভাবিত করার চেষ্টা হিসেবে দেখার যৌক্তিক কারণ রয়েছে।  এ ছাড়া কানাডার অর্থমন্ত্রী বিল মোনিউকেও একবার ২০০ ডলার জরিমানা করা হয়েছে। কারণ, তিনি ফ্রান্সে একটি ভিলা বা বাড়ির মালিক এমন একটি করপোরেশনের সঙ্গে যুক্ত। এ বিষয়টি তিনি প্রকাশ করেন নি। তবে ম্যাকলাচলানের অফিস এসব জরিমানা নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয় নি। কিন্তু উপহার নিয়ে কথা বলতে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন। ম্যাকলাচলানের যোগাযোগ বিষয়ক ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ম্যারি মোজসিনস্কি এক ইমেইলে জানিয়েছেন, কানাডার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও তার স্ত্রী সোফি গ্রেগোইরেকে গত বছর জুনে ওই সানগ্লাস উপহার দিয়েছিলেন। কারণ, প্রধানমন্ত্রী স্থানীয়ভাবে তৈরি জিনিস পরতে পছন্দ করেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কিশোরিদের বাল্যবিবাহ না করার শপথ

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ৪৯ নারী এমপি

৫৫ দিন ধরে বেডরুমে মায়ের মৃতদেহ লুকিয়ে রেখে ধরা পড়ল মেয়ে

ঘুম থেকে দেরি করে উঠলে কি হয়?

ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা তুঙ্গে, যুদ্ধের আশঙ্কা

কেজির দরে প্রাথমিকের বই

৪৭ বছর পর ক্ষমা চাওয়ার বিষয় কেনো এলো?

শপথ নিলেন সৈয়দ আশরাফের বোন

সৌদি ক্রাউন প্রিন্সের পাকিস্তান সফর বিলম্বিত

আজিমপুর-ধানমন্ডি-মোহাম্মদপুর-মিরপুরে ২৪ ঘণ্টা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ

সি জিনপিংয়ের বৈশ্বিক স্বপ্নে বাধা

ইয়াবা ও অস্ত্র জমা দিয়ে ১০২ মাদক ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ

নাটোরে অগ্নিকান্ডে সর্বশান্ত দিনমজুর

রূপপুর প্রকল্পে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে রাশিয়ান নাগরিকের মৃত্যু

‘মিয়ানমার বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের ওপরে আঘাত করেছে’

কবি আল মাহমুদের মৃত্যুতে মির্জা ফখরুলের শোক